আসিয়ান শীর্ষ সম্মেলনে থাকছে না মিয়ানমার

অনলাইন ডেস্ক

আসিয়ান শীর্ষ সম্মেলনে থাকছে না মিয়ানমার

আসিয়ানের বার্ষিক শীর্ষ সম্মেলন শুরু হয়েছে। আল-জাজিরা এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংস্থার এ সম্মেলন আজ মঙ্গলবার ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করা হয়।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, আসিয়ানের বার্ষিক শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন সদস্য দেশগুলোর প্রধান নেতারা। তবে আঞ্চলিক শান্তি প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ হওয়ায় সম্মেলন থেকে বাদ পড়েছে মিয়ানমার।

আরও পড়ুন:

মা কালী সেজে জনগণকে তাক লাগালেন রিখিয়া

আরিয়ানের জামিন শুনানি আজ, টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়ার প্রস্তাব

জানা গেছে, ২৬ থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত এ ভার্চুয়াল সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং অংশ নেবেন।

এই সম্মেলনে অরাজনৈতিক প্রতিনিধি হিসেবে মিয়ানমারের উচ্চপদস্থ কূটনীতিক চ্যান আই-ই’কে আমন্ত্রণ জানানো হয়। তবে তিনি অংশগ্রহণ করেননি।

আসিয়ানভুক্ত দেশগুলো হলো ব্রুনাই, কম্বোডিয়া, ইন্দোনেশিয়া, লাওস, মিয়ানমার, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনাম।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

তাইওয়ান ইস্যুতে উত্তেজনা (ভিডিও)

ডেস্ক রিপোর্ট

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় জরুরি বৈঠকের  জন্য বেইজিংয়ে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে। তাইওয়ান নিয়ে জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের মন্তব্যর পরই চীন এ পদক্ষেপ নিল।

চীন তাইওয়ানে আক্রমণ করে বসলে যুক্তরাষ্ট্র কিংবা জাপান দাঁড়িয়ে থাকবে না বলে বুধবার মন্তব্য করেছিলেন শিনজো আবে। আবের এই মন্তব্য ভুল এবং বেইজিং ও টোকিও মধ্যকার সম্পর্কের মৌলিক নীতি বিরোধী  বলে আখ্যা দিয়েছেন, চীনের সহকারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হুয়া চুনিং। চীনে নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত হিদেও তারুমির সঙ্গে বৈঠকে এ মন্তব্য করেন তিনি। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে একথা জানিয়েছে।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত    

পরবর্তী খবর

জন্মদানের অভিযোগে ডাক্তারের বিরুদ্ধে তরুণীর মামলা!

অনলাইন ডেস্ক

জন্মদানের অভিযোগে ডাক্তারের বিরুদ্ধে তরুণীর মামলা!

তরুণী দাবি, তার জন্ম হওয়াটাই উচিত ছিল না। জন্মদানের অভিযোগে এবার সেই তরুণী মামলা করেছেন তার মায়ের ডাক্তারের বিরুদ্ধে।মামলায় ওই তরুণী ক্ষতিপূরণ হিসেবে লাখ লাখা টাকা জিতেছেন। এমন খবর দিয়েছে ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল। 

বুধবার লন্ডন হাইকোর্টের একটি যুগান্তকারী রায়ে বিচারক রোজালিন্ড কো কিউসি ইভির অভিযোগের প্রতি সমর্থন জ্ঞাপন করেছেন। বিচারক রায় দিয়েছেন যে, যদি ইভির মাকে ‘সঠিকভাবে পরামর্শ দেওয়া হত, তাহলে তিনি গর্ভধারণে দেরি করতেন’।

তিনি বলেন, ‘ইভির মা যে পরিস্থিতিতে ছিলেন তাতে তিনি সঠিক পরামর্শ পেলে আরও দেরিতে গর্ভধারণ করতেন, যার ফলে একটি সুস্থ-স্বাভাবিক শিশুর জন্ম হত’। এরপর বিচারক ইভিকে বিশাল অংকের ক্ষতিপুরণ দেওয়ার আদেশ দেন।

ইভি টুম্বস (Evie Toombes) নামের ওই তরুণী যুক্তরাজ্যের একজন তারকা শো জাম্পার। আর তাকে  প্রায়ই মেরুদণ্ডের একটি মারাত্মক সমস্যার জন্য যন্ত্রণাদায়ক এবং ব্যায়বহুল চিকিৎসা নিতে হয়।মেরুদণ্ডের এই অসুখের জন্য কখনও কখনও ২৪ ঘণ্টাই টিউবের সাহায্যে চলতে হয় ইভিকে।

ডাক্তারের ভুল পরামর্শের কারণে তিনি মেরুদণ্ডের মারাত্মক এক সমস্যা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছেন। এজন্য তিনি তার মায়ের ডাক্তারের বিরুদ্ধে ‘ভুল গর্ভধারণ’ মামলা দায়ের করেন। এটি একটি যুগান্তকারী মামলা।

ইভি টুম্বস তার মেরুদণ্ডে স্পিনা বিফিডা নামের এমন একটি জন্মগত ত্রুটি নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছেন, যার ফলে তার মেরুদণ্ডের একটি অংশ এবং এর মেনিনজেস মেরুদণ্ডের একটি ফাঁক দিয়ে উন্মুক্ত হয়ে পড়ে। এই সমস্যার ফলে প্রায়শই শরীরের নীচের অঙ্গগুলো পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে পড়তে পারে এবং কখনও কখনও এর ফলে মানসিক প্রতিবন্ধীতাও সৃষ্টি হয়।

আরও পড়ুন


রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চেয়ে বিদেশে যেতে হবে খালেদাকে: হানিফ

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বের হয়ে যাওয়া ও বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ

সিলেট থেকে বিদেশে পণ্য রপ্তানির ব্যবস্থা করা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী


 

২০ বছর বয়সী এই তরুণী ফিলিপ মিচেল নামের একজন ডাক্তারকে গর্ভবতী থাকাকালীন তার মাকে সঠিকভাবে পরামর্শ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় আদালতে টেনে নিয়ে যান। 

ইভি টুম্বসের দাবি, ডাক্তার মিচেল যদি তার মাকে বলত যে, তার শিশুর স্পিনা বিফিডা হওয়ার ঝুঁকি কমাতে তাকে গর্ভবতী অবস্থায় ফলিক অ্যাসিডের সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে হবে, তাহলে তিনি গর্ভধারণই করতেন না এবং তাকে আর এই ত্রুটি নিয়ে জন্ম গ্রহণও করতে হত না।

ইভি টুম্বস এর মা আদালতে বলেছিলেন যে, ডাক্তার মিচেল যদি তাকে সঠিকভাবে পরামর্শ দিতেন তবে তিনি তার গর্ভবতী হওয়ার চেষ্টা বন্ধ করে দিতেন। তিনি বলেন, ‘আমাকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল যে, যদি আমি আগে ভাল খাবার খেয়ে থাকি তাহলে আমাকে আর ফলিক অ্যাসিড খেতে হবে না’।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

কানাডা বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষার দীর্ঘ লাইনে বিশৃঙ্খলা

অনলাইন ডেস্ক

কানাডা বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষার দীর্ঘ লাইনে বিশৃঙ্খলা

শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে আগত যাত্রী ছাড়া বাকি সব যাত্রীর করোনা টেস্ট বাধ্যতামূলক করেছে কানাডা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। এতে এর মধ্যেই সেখানে দীর্ঘ লাইনের সৃষ্টি হয়েছে।

উদ্যোক্তারা বলছে, এমন ব্যবস্থা নেওয়া হবে সে ব্যাপারে গত মঙ্গলবারেই ঘোষণা দেওয়া হয়।
 
রিয়টার্স জানায়, কানাডিয়ান এয়ারপোর্ট কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ড্যানিয়েল গুচ বলেন, বহিরাগত সব যাত্রীকে এক সঙ্গে পরীক্ষা করা সম্ভব নয়। এ জন্য অবশ্যই দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হবে। যাত্রীরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করুক, এটা আমরা চাইনি । কিন্তু যাত্রীদের নিরাপদ এবং স্বস্তিদায়ক ভ্রমণের জন্য এটা অবশ্যই জরুরি। আমরা এটাকে কোনোভাবেই এড়াতে পারি না।

গত মঙ্গলবার কানাডা কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা অন্য দেশ থেকে আসা সকল বিমানযাত্রীর করোনা পরীক্ষা করবে। শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যাত্রীদের ছাড়া। করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের বিস্তাররোধে এই সিদ্ধান্ত বলে জানায় তারা। শুধুমাত্র আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের যাত্রীদের পরীক্ষা করা হচ্ছে আর এটি করছে সরকারি ও বেসরকারি কর্তৃপক্ষ একসাথে।

আরও পড়ুন:

ইরানের ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার আহ্বান

এবার আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

সামনে দীর্ঘ ছুটির সময় আর এ জন্যই এই ছুটিকে নিরাপদ করার জন্য বিমান চলাচল ক্ষেত্রে যাত্রীদের করোনা পরীক্ষার এই বিধি-নিষেধ আরোপ করা হলো।

কানাডার সর্ববৃহৎ বিমানবন্দর টরন্টো পিয়ারসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র টোরি গাস বলেন, অন-সাইট এবং অফ-এয়ারপোর্ট পরীক্ষার একটি সমন্বয়সাধন জরুরি। পরীক্ষাগুলোর পরিমাণের বিষয়টিও বিবেচনায় আনা প্রয়োজন।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত    

পরবর্তী খবর

বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিষ পাওয়া যায় এর থেকে, দাম কত?

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিষ পাওয়া যায় এর থেকে, দাম কত?

নীলচে কাঁকড়াবিছে

নীলচে কাঁকড়াবিছে। দেখতে সুন্দর হলেও এই কাঁকড়াবিছে খুবই ভয়ানক। আর এই কাঁকড়াবিছের বিষকে বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান বিষ বলা হয়। 

দাবি করা হয়, এই বিছের এক লিটার বিষের দাম ৭৫ কোটি টাকা। যা থাইল্যান্ডের শঙ্খচূড়ের বিষের তুলনায় দ্বিগুণের বেশি।

জানা গেছে, এই বিছের বিষ থেকে ভিডাটক্স নামের একটি ওষুধ বানানো হয় যা কিউবায় ক্যানসারের চিকিৎসায় ব্যবহার হয়। এই বিষে পঞ্চাশেরও বেশি যৌগ পাওয়া যায়। যার মধ্যে খুব কম এখনও পর্যন্ত চিহ্নিত করা গিয়েছে। এই বিষের গুণ প্রকাশ্যে আসতেই চাহিদা বেড়েছে হু হু করে। এই বিষ থেকে আরও কোনও দুরারোগ্য ব্যাধির ওষুধ বানানো যায় কি না তা নিয়েও গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে। 

আরও পড়ুন:

প্রবেশপত্র ছাড়া সেই ২৫৮ শিক্ষার্থীর বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা


নীলচে এই কাঁকড়াবিছের গবেষণা করে ইজরায়েরেল তেল আভিভ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মাইকেরল গুরেভিজ জানান, এই বিছের বিষে এমন কিছু যৌগ আছে যেগুলি প্রাণঘাতী রোগের চিকিৎসায় কাজে লাগতে পারে। শুধু তাই নয়, অঙ্গ প্রতিস্থাপনের চিকিৎসাতেও এই বিষ কাজে লাগে বলে দাবি, ফ্রেড হাচিনসন ক্যানসার রিসার্চ সেন্টারের। 

news24bd.tv রিমু   

 

পরবর্তী খবর

বায়ু দূষণ ; দিল্লিতে আবারও স্কুল বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক

বায়ু দূষণ ; দিল্লিতে আবারও স্কুল বন্ধ

বায়ু দূষণ আবার বাড়তে শুরু করায় আগামীকাল শুক্রবার থেকে দিল্লিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। দিল্লির পরিবেশমন্ত্রী গোপাল রাই আজ বৃহস্পতিবার এই ঘোষণা দেন। এনডিটিভির খবরে এআ তথ্য প্রকাশ করা হয়।

জানা যায়, গত সোমবার খোলা হয় রাজধানীর সব স্কুল-কলেজ। ধারণা করা হয়, দূষণের কবল থেকে ধীরে ধীরে মুক্তি পাচ্ছে দিল্লি। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত নিয়েই প্রশ্ন ওঠে দেশটির সুপ্রিম কোর্টে।

আরও পড়ুন:

ইরানের ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার আহ্বান

এবার আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

যেখানে পূর্ণবয়স্করা ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ করছে সেখানে ৩-৪ বছরের খুদেদের স্কুলে পাঠানো হচ্ছে, শীর্ষ আদালত  কেজরিওয়াল সরকারকে জোরালোভাবে এই প্রশ্ন করে । এরপরই দিল্লি সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, শুক্রবার থেকে ফের বন্ধ করে দেওয়া হবে সমস্ত স্কুল।

দিল্লির পরিবেশমন্ত্রী গোপাল রাই জানান, ধীরে ধীরে পরিবেশের উন্নতি হবে, এমন পূর্বাভাস পেয়েই আমরা স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নেই। কিন্তু দূষণ আবারও বাড়তে শুরু করায় আমরা সিদ্ধান্ত নেই শুক্রবার থেকে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত  স্কুল বন্ধ রাখা হবে।

এর আগে, সুপ্রিম কোর্ট ২৪ ঘণ্টা সময় দিয়েছিল কেন্দ্র, দিল্লি ও পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলোকে। যেভাবে শিল্প ও যানবাহন থেকে দূষণের মাত্রা বাড়ছে এবং সেটাই বায়ুর গুণগত মান হ্রাসের প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে সে বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে শীর্ষ আদালত।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর