আই মেকআপ তোলার সহজ টিপস

অনলাইন ডেস্ক

আই মেকআপ তোলার সহজ টিপস

চোখ খুবই সংবেদনশীল। তাই আই মেকআপ তোলার সময় সাবধানতা অবলম্বন করা উচিৎ। তাড়াতাড়ি করলে চোখের পলক পড়ে যেতে পারে। এতে করে চোখের বেশি ক্ষতি হয়। 

আবার চোখের চার পাশের চামড়া খুব পাতলা হওয়ায় সহজেই শুকিয়ে গিয়ে বলিরেখা পড়ে যাওয়ার সমস্যাও বেড়ে যেতে পারে। তাই খুব যত্নসহকারে করে আই মেকআপ তোলা প্রয়োজন।

চলুন আই মেকআপ তোলার কিছু টিপস সম্পর্কে জেনে নেই।

সময় নিন: চোখের মেকআপ তোলার ক্ষেত্রে একটু ধৈর্যের প্রয়োজনে। সময় নিয়ে ধীরে ধীরে একটি মেকআপ রিমুভার লাগান। তারপর আলতো করে মেকআপ তুলে ফেলুন। বাজারের আই মেকআপ রিমুভার ব্যবহার না করে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন।

চোখের কোণায় যত্ন নেওয়া: চোখের মেকআপ তোলার সময়ে আমরা চোখের কোণার দিকে খেয়াল রাখি না। কিন্তু ভাল করে চোখের কোণা থেকে মেকআপ তুলতে হবে। কারণ কাজল বা আইলাইনার চোখার কোণায় জমে থাকে। তারপর ভিতরে চলে গিয়ে সমস্যা করতে পারে।

আরও পড়ুন: 

১০ মিনিটের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র নয়াপল্টন

এনআইডি নিয়ে সরকারের নতুন পরিকল্পনার কথা জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ


তুলো আগে ভিজিয়ে নিন: শুকনা তুলো দিয়ে চোখ ঘষবেন না। তাহলে চোখের চামড়া শুকিয়ে যেতে পারে। মাইসেলার ওয়াটার বা নারকেল তেল দিয়ে তুলো ভিজিয়ে নেবেন। তার পরে ১৫ থেকে ২০ সেকেন্ড চোখের উপর চেপে ধরে রাখুন। এরপর আলতো করে মুছে নিন।তবেই চোখের পলকের ক্ষতি হবে না।

ময়েশ্চারাইজ করুন: চোখের মেকআপ তোলার পর চোখের চামড়া শুষ্ক হয়ে যায়। তাতেই বলিরেখার সমস্যা বেশি হয়। অনেকের চোখ শুকিয়ে গিয়ে র‌্যাশও হতে পারে। তাই মেকআপ তোলা হয়ে গেলে অবশ্যই চোখে আই ক্রিম লাগিয়ে নেবেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

কোন বাদাম উপকারী: কাঁচা নাকি ভাজা?

অনলাইন ডেস্ক

কোন বাদাম উপকারী: কাঁচা নাকি ভাজা?

বাদাম

বাদাম স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস হিসেবে বেশ সুপরিচিত। এতে রয়েছে ক্যালরি, প্রোটিন, ফ্যাট, কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, ভিটামিন ই, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, কপার, ম্যাংগানিজ ইত্যাদি। 

বাদাম থেকে শরীরের জন্য উপকারী কোলেস্টেরল পাওয়া যায়। এছাড়া এতে রয়েছে সি-রিঅ্যাক্টিভ প্রোটিন ও ইন্টারলিউকিন  যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। ফাইবার সমৃদ্ধ বাদাম দূর করে হজমের গণ্ডগোল।

বাদাম খেলে হৃদপিণ্ড সক্রিয় থাকে। নিয়মিত বাদাম খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এমনকি রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে বাদাম। 

বাদাম কাঁচা বা ভাজা দুই অবস্থাতেই খাওয়া যায়। তবে কোন বাদাম খাওয়া বেশি উপকারী? 

দুই ধরণের বাদামেই রয়েছে উপকারিতা। কাঁচা বাদামে অনেক সময় ব্যাকটেরিয়া থাকে যেগুলো স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। আবার ভাজা বাদাম হারিয়ে ফেলে কিছু পুষ্টিগুণ।

ফলে বাইরে থেকে সরাসরি ভাজা বাদাম না কিনে কাঁচা বাদাম কিনে তা বাড়িতে ভেজে খেতে পারেন। এতে বাইরের অতিরিক্ত লবণ, চিনি কিংবা তেল থেকে মুক্ত থাকা যাবে।

আরও পড়ুন:

আইপিএলে নিজের বেতন কমালেন কোহলি


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

করলার তেতো কমানোর টিপস

অনলাইন ডেস্ক

করলার তেতো কমানোর টিপস

পুষ্টিগুণে ভরা সবজি করলা

করলা স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী হলেও অনেকেই করলা খেতে পছন্দ করেন না। বিশেষ করে ছোটরা। কারণ এর স্বাদ তেতো। তবে চিন্তার কারণ নেই। কারণ তেতো কমানোর কিছু উপায় রয়েছে। আসুন সেগুলো একটু জেনে নেই।

১. করলা লম্বালম্বি মাঝ বরাবর কাটুন। এবার চা চামচ দিয়ে আঁচড়ে বিচি বের করে নিন।

২. সুন্দর পাতলা স্লাইস করে নিন ভাজির জন্য। আগেই কোনো পানি দেবেন না।


আরও পড়ুন:

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি, কাটাখালীর মেয়র আটক

শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

আজ থেকে ঢাকার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক কার্যকর


৩. সামান্য লবণ দিয়ে মেখে ২০ মিনিট রেখে দিন। ২০ মিনিট পর হাত দিয়ে কচলান।

৪. দেখবেন সবুজ তেতো পানি বের হবে। এই পানি ফেলে দিন।

৫.এবার পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে চিপে সঙ্গে সঙ্গে রান্না করুন। বুঝতেই পারবেন না করলা খাচ্ছেন, নাকি অন্যকিছু খাচ্ছেন।

মনে রাখবেন, করলা কেটে বেশি সময় পানিতে ভিজিয়ে রাখলে বেশি তেতো হয়ে যায়। তাই ধোয়ার সঙ্গে সঙ্গে রান্না করে ফেলতে হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ত্বকের বয়স কমায় কাঁচা হলুদ

অনলাইন ডেস্ক

ত্বকের বয়স কমায় কাঁচা হলুদ

কাঁচা হলুদ

কাঁচা হলুদের ব্যবহার আমাদের গায়ের রঙ উজ্জ্বল হতে তো সাহায্য করেই, পাশাপাশি ত্বকের ভেতর থেকেও যত্ন নেয় এটি। তাই ত্বকের যত্নে নিয়মিত হলুদ ব্যবহার করতে পারেন।

কাঁচা হলুদের উপকার সম্পর্কে জানানো হল।

কাঁচা হলুদ ত্বকের বয়স কমায়। তাই বিভিন্ন ক্রিমের প্রয়োজনীয় উপাদান হিসেবে হলুদ ব্যবহার করা হয়। ত্বকের বিভিন্ন দাগ, রিঙ্কল ও সান ট্যান থেকে ত্বককে রক্ষা করার জন্য কাঁচা হলুদের ফেসপ্যাক ঘরেই তৈরি করে মুখে লাগানো যেতে পারে।


আরও পড়ুন:

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনায়েত উল্লাহ

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যা: ৬ হামলাকারী শনাক্ত


কাচা হলুদকে জাদুকরি উপাদান বলা হয়। এটি ত্বকের অধিকাংশ সমস্যা সমাধান করতে পারে। কারকিউমিন রং ফর্সা করে, ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। কারকিউমিন ত্বককে পাতলা করতে কাজ করে। ব্যাকটেরিয়া দূর করে; ভেতর থেকে উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

কাঁচা হলুদের অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি, এন্টিসেপ্টিক ও অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল গুণ মুখে ব্রণ কমায়। ব্রণ সমস্যার থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য মুখে নিয়ম করে কাঁচা হলুদ পেস্ট করে মাখুন ও খান, দেখবেন তাড়াতাড়ি উপকার পাচ্ছেন। কাঁচা হলুদ শুধু ব্রণই দূর করে না, তার সাথে ব্রণের দাগ এবং লোমকূপ থেকে তেল বের হওয়ার পরিমাণও কমিয়ে দেয়।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

শেভের পর ত্বক জ্বালা-পোড়া থেকে বাঁচতে যা করবেন

অনলাইন ডেস্ক

শেভের পর ত্বক জ্বালা-পোড়া থেকে বাঁচতে যা করবেন

প্রতীকী ছবি

শেভ করার পর অনেকেরই ত্বক জ্বালা-পোড়া করে। বিশেষ করে শীতকালে অনেকেই এই সমস্যায় ভোগেন। বেশ কয়েকটি পরামর্শ মেনে চললে এই অবস্থা থেকে নিস্তার পাওয়া সম্ভব।

এক নজরে দেখে নেয়া যাক এমন কিছু উপায়-

১) ত্বক যাতে বেশি শুষ্ক না হয়ে যায়, সে দিকে খেয়াল রাখুন। সকালে দাড়ি কামানোর পরিকল্পনা থাকলে আগের রাতে মুখে ভালোভাবে ময়শ্চারাইজার মাখুন। এতে ত্বক আর্দ্র থাকবে।

২) তুলনামূলক লম্বা দাড়ি কাঁচি দিয়ে প্রথমে ছেঁটে নিন। লম্বা দাড়িও রেজর দিয়ে কাটতে গেলে গালের এক-একটি অংশে একাধিক বার ব্লেড ছোঁয়াতে হবে। ফলে ক্ষত তৈরি হওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকবে।

৩) দাড়ি কামানোর সময়ে চেষ্টা করুন যে সব ক্রিমে বেশি ফেনা হয়, তা ব্যবহার করতে। তবে ত্বক মোলায়েম থাকবে।

৪) দাড়ি কাটার পর অবশ্যই অ্যালোভেরা জেল বা ভারী কোনো ময়শ্চারাইজার গালে মাখুন। তা হলে প্রথমেই অনেকটা নিয়ন্ত্রিত হবে জ্বালা ভাব।

আরও পড়ুন:

রামপুরা ব্রিজ অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

দীর্ঘক্ষণ চেয়ারে বসে থেকে যেসব বিপদ ডেকে আনছেন

অনলাইন ডেস্ক

দীর্ঘক্ষণ চেয়ারে বসে থেকে যেসব বিপদ ডেকে আনছেন

প্রতীকী ছবি

অফিসে কাজের জন্য অনেককেই দীর্ঘ সময় চেয়ারে বসে থাকতে হয়। কিন্তু কখনো ভেবে দেখেছেন কী, এতে আমাদের শরীরের কী ধরনের ক্ষতি হচ্ছে। চলুন জেনে নেই দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকলে আপনার কী ক্ষতি হতে পারে-

পিঠে ব্যথা:

দীর্ঘ সময় যাবৎ বসে থাকার আরেকটি পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া হলো পিঠে ব্যথা। বিশেষ করে, আপনি যদি চেয়ারে বসে থাকেন এবং কম্পিউটারে কাজ করতে থাকেন। কারণ এটি আপনাকে ঘাড় ও মাথাকে সামনে ঝুকিয়ে, মেরুদণ্ডে অনেক চাপের সৃষ্টি করে, একইভাবে চেয়ারে বসে থাকতে বাধ্য করে, যা পিঠ এমনকি ঘাড়ের ব্যাথার কারণ হয়।

মেদ বৃদ্ধি:

দীর্ঘসময় বসে থাকা মেদ বৃদ্ধির জন্য খুবই সহায়ক। বসে থাকার সময়ে শারীরিক বিপাক ক্রিয়া ধীর হয়ে যায়, ক্যালোরি বার্ন হওয়ার পরিমাণ কমে যায়। আপনি অনেকক্ষ ধরে বসে থাকলে চর্বির পক্ষে আপনার কোমরের চারপাশে জমেতেও সুবিধা হয়। আমরা সকলেই জানি পেটের অত্যাধিক চর্বি কতোটা বিপদ্দজনক হতে পারে!

হাড় সংক্রান্ত সমস্যা:

একটানা বসে থাকার ফলে আমাদের দেহের নিচের অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলোতে সঠিকভাবে রক্ত সঞ্চালন হয় না। এতে করে সমস্যা শুরু হয় নানা অঙ্গে। একটানা বসে থাকার ফলে দেহের নিচের অংশের হাড় ভারী হয়। ফলে দেখা দেয় হাড় সংক্রান্ত নানা সমস্যা। এতে পিঠ ও মেরুদণ্ডে ব্যথা হতে পারে।


আরও পড়ুন:

দেশে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া সবাই পুরুষ

খালেদা জিয়ার মেডিকেল বোর্ডের বক্তব্যকে গুরুত্ব দিন: সরকারকে রিজভী

ফাঁকিবাজ সরকার বলেই সত্য বললেও মানুষ বিশ্বাস করেনা: মান্না


এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে করণীয়:

আধা ঘণ্টা পর পর চেয়ার ছেড়ে উঠুন:

আপনার কাজ রয়েছে বুঝলাম। তবে কাজের অজুহাতে শরীর খারাপ করলে তো চলবে না। তাই প্রতি ৩০ মিনিটে একবার চেয়ার ছেড়ে উঠুন। পারলে নিজের মোবাইলে রিমাইন্ডার দিয়ে রাখুন। তারপর রিমাইন্ডার বাজলেই উঠে পড়ুন।

হাঁটুন: চেয়ার ছেড়ে শুধু দাঁড়িয়ে থাকা যাবে না। হেঁটে আসুন। খুব দূর যেতে হবে না। একটু অফিসের লনেই হেঁটে নিন। বারান্দায় গিয়ে দাঁড়ান। তারপর ফিরে আসুন। এটুকু করলেই চলবে।

স্ট্রেচিং করুন: যখনই সময় পাবেন, একটু দাঁড়িয়ে স্ট্রেচিং করুন। দেখবেন হালকা লাগছে। এই স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ শরীরকে নমনীয় করে, পেশির শক্তি বাড়ায়, মেরুদণ্ডকে ঋজু রাখে। বিশেষত, ঘাড়ে, হাতে, কোমরে ব্যথা থাকলে একজন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ মতো করতে হবে স্ট্রেচিং।

ব্যায়াম করুন: সারা দিনে ঠিক ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন। শুধু এইটুকু করতে পারলেই আপনার শরীর থাকবে ভালো। সঙ্গে মনও নিজের মতো করে মুক্ত হবে। দূর হবে দুশ্চিন্তা।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর