পর্দা নামলো বঙ্গবন্ধু আর্টিস্টিক জিমন্যাস্টিকসের
Breaking News
পর্দা নামলো বঙ্গবন্ধু আর্টিস্টিক জিমন্যাস্টিকসের

পর্দা নামলো বঙ্গবন্ধু আর্টিস্টিক জিমন্যাস্টিকসের

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ জিমন্যাস্টিকস ফেডারেশন আয়োজিত বঙ্গবন্ধু ৫ম সেন্ট্রাল সাউথ এশিয়ান জিমন্যাস্টিকস চ্যাম্পিয়নশীপের পদকের লড়াই শেষ হয়েছে। রবিবার আনুষ্ঠানিকভাবে  টুর্নামেন্টের সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল ।  

প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে ঢাকায় এমন একটা আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারায় আমি বাংলাদেশ জিমন্যাস্টিক ফেডারেশনকে ধন্যবাদ জানাই।

এমন মেগা ইভেন্টে থাকতে পেরে আমি গর্বিত।   অংশগ্রহণকারী সকল দেশকে ধন্যবাদ জানাই। বিজয়ীদের আমার শুভেচ্ছা।   জিমন্যাস্টিকের এমন আয়োজন আমরা আরো করতে চাই। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এমন আয়োজনে সব সময় বংলাদেশ জিমিন্যাস্টিক ফেডারেশনের পাশে থাকবে।

মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ জিমন্যাস্টিকস ফেডারেশনের সভাপতি শেখ বশির আহমেদ মামুনের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আহমেদুর রহমান বাবলু এবং অংশ গ্রহনকারী বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধি বৃন্দ।   

তিন বিভাগে (পুরুষ সিনিয়র ও জুনিয়র এবং মহিলা) ২২ ইভেন্টে পদকের জন্য লড়াই করে প্রতিযোগিরা। অংশগ্রহনকারী দেশ গুলোর খেলোয়াড়, প্রশিক্ষক ও ম্যাচ অফিসিয়ালদের অংশগ্রহনে উৎসব মুখর ছিল মিরপুরের শহীদ সোহরাওয়ার্দী  ইনডোর স্টেডিয়াম।   

মোট ৬৮ পদকের মধ্যে উজবেকিস্তান ১৯ স্বর্ণ, ১১ সিলভার এবং ৮টি ব্রোঞ্জ পদক লাভ করে।   পদক জয়ে প্রথম দু’দিন উজবেকিস্তানের একক আধিপত্য থাকলেও, শনিবার পুরুষ বিভাগে তিন স্বর্ণ জিতে আসর কিছুটা জমিয়ে তোলে ভারত ।   শেষ পর্যন্ত ভারত তিন স্বর্ণ, ৯টি সিলভার এবং ১২টি ব্রোঞ্জ পদক লাভ করে।   পদক তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকা বাংলাদেশ জয় করে একটি সিলভার ও তিনটি ব্রোঞ্জ পদক।   শ্রীলংকা জয় করে একটি করে রৌপ্য ও ব্রোঞ্জ পদক।  

শনিবার সকালে দিনে পুরুষ(জুনিয়র) ব্যক্তিগত ফ্লোর এক্সারসাইজে ১২.১০ স্কোর গড়ে রৌপ্য পদক জয় করেন রাজিব চাকমা। এরপর ভোল্টিং টেবিল ইভেন্টে ব্রোঞ্জ পদকও জয় করেন তিনি।   

সমাপনী দিনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী পুরুষ(জুনিয়র) ফ্লোর এক্সারসাইজ  ইভেন্টে এবং মহিলাদের ভোল্টিং ইভেন্টের বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। সমাপনী অনুষ্ঠানে বেশ কয়েকটি ইভেন্টে ক্রীড়া শৈলী প্রদর্শন করেন পদক জয়ী খেলোয়াড়রা। সমপনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারী দেশগুলোর হেড অব ডেলিগেটদের হাতে শুভেচ্ছা স্বারক তুলে দেন প্রধান অতিথি।   

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ জিমন্যাস্টিক ফেডারেশনের আয়োজনে আসরে পুরুষ বিভাগে ছয় দল এবং মহিলা বিভাগে পাঁচ দল অংশগ্রহন করে। দলগুলো হলো- ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলংকা, উজবেকিস্তান এবং স্বাগতিক বাংলাদেশ অংশগ্রহন করে।   টুর্নামেন্টের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে উদ্বোধনী দিনে উপস্থিত ছিলেন ২০১৬ রিও অলিম্পিকে রিদমিক জিমন্যাস্টিকসে স্বর্ণপদক জয়ী বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত রাশিয়ান জিমন্যাষ্ট মার্গারিটা মামুন।
বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক জিমন্যাস্টিকের এটিই সর্বোচ্চ আসর।   ১০ বছর আগে ২০১১ সালে সুলতানা কামাল চতুর্থ সেন্ট্রাল সাউথ এশিয়ান আর্টিস্টিক জিমন্যাস্টিকস চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজন করেছিল ফেডারেশন।

স্বাগতিক বাংলাদেশ ,ভারত, পাকিস্তান,উজবেকিস্তান, নেপাল, শ্রীলংকাসহ মোট ছয়টি দেশ টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহন করে।

news24bd.tv/আলী

;