অবিবাহিত পরিচয়ে বিয়ে, প্রতারণার অভিযোগে নারীকে কারাদণ্ড
অবিবাহিত পরিচয়ে বিয়ে, প্রতারণার অভিযোগে নারীকে কারাদণ্ড

অবিবাহিত পরিচয়ে বিয়ে, প্রতারণার অভিযোগে নারীকে কারাদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ে করেছে একাধিক এরপরও নিজেকে পরিচয় দেয় অবিবাহিত বলে। অবিবাহিত পরিচয়ে বিয়ে করে প্রতারণার অভিযোগে এক মামলায় শাহরীন ইসলাম নীলা (২৪) নামে এক নারীকে এক বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

ঢাকার প্রথম অ্যাডিশনাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবুবকর ছিদ্দিকের আদালতে রোববার (৩১ অক্টোবর) এ রায় ঘোষণা করেন। এ মামলায় আদালত ৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।

আরও পড়ুন:


ফাঁকা বাড়িতে একা পেয়ে জোরপূর্বক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

ধারালো অস্ত্র দিয়ে প্রেমিককে কুপিয়েছে সাবেক প্রেমিকা

বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১


দণ্ডের পাশাপাশি নীলাকে দশ হাজার টাকা অর্থদণ্ডও করা হয়েছে। অনাদায়ে তাকে আরও ৩ মাস কারাভোগ করতে হবে। রায় ঘোষণার সময় নীলা অনুপস্থিত ছিলেন। আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাসহ সাজা পরোয়ানা জারি করেন।

অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় নীলার মা রাজিয়া বেগম এবং বাবা শাহ আলমকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

বাদীপক্ষের আইনজীবী পিকে আব্দুর রব রায়ের বিষয়টি জানান।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১৬ জুন ঢাকার খুলনা জেলার রূপসা থানা নৈহাটি গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে ইমরান শেখ ঢাকার সিএমএম আদালতে এ মামলা করেন। মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। পরবর্তীতে আসামিরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন নেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, নীলা নিজেকে অবিবাহিত পরিচয়ে ২০১৪ সালের ৩ জুলাই ইমরান শেখের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের পর ইমরান জানতে পারেন যে নীলার পূর্বে আরও একাধিক বিয়ে ছিল। কিন্তু নীলা বিয়ের সময় নিজেকে অবিবাহিতা পরিচয় দেন।  

এভাবে তিনি একাধিক বিয়ে করে পরবর্তীতে তালাক দিয়ে দেনমোহরের টাকা আদায় করেছেন বলেও এজাহারে জানা যায়।

news24bd.tv/ কামরুল 

;