পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন ইকবাল!
পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন ইকবাল!

ফাইল ছবি।

পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন ইকবাল!

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লা নগরীর নানুয়ার দীঘির পাড়ে অস্থায়ী পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ইকবাল হোসেনসহ চারজনকে দ্বিতীয় দফা পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে বুধবার আদালতে হাজির করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।  

এরপর অধিকতর তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তৃতীয় দফায় তাদের আরো পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করে সংস্থাটি। শুনানি শেষে আদালত আসামিদের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। তবে আসামিদের এখনই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নেওয়া হচ্ছে না।

গত দুই দফায় প্রাপ্ত সকল তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে তাদেরকে এই তিনদিনের রিমান্ডে নেবে সিআইডি।

আরও পড়ুন


সেদিন আমার কাছে আসলে ২ বাচ্চার মার কাছে ধরা খেতে হতো না: সুবাহ

ব্রিটিশ পার্লামেন্টে মাওলানা আজহারীকে নিয়ে কী আলোচনা হল?

জাতীয় চার নেতাকে আড়ালে রেখে সোনার বাংলা গড়া যাবে না

কথিত স্ত্রী ঝর্ণার করা ধর্ষণ মামলায় মাওলানা মামুনুল হকের বিচার শুরু


বুধবার (৩ নভেম্বর) দুপুর পৌনে ২টার দিকে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৬ নম্বর আমলি আদালতের বিচারক চন্দন কান্তি নাথের আদালতে তাদেরকে তোলা হয়। বিকেল ৪টার দিকে আদালত প্রাঙ্গনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিআইডি, কুমিল্লার বিশেষ পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান।

ইকবাল হোসেন ছাড়া অন্য তিনজন হলেন- পূজামণ্ডপের কাছের শাহ আবদুল্লাহ গাজীপুরি (রা.)-এর মাজার ও মসজিদের সহকারী খাদেম হিসেবে পরিচিত মো. হুমায়ুন কবির ও মো. ফয়সাল আহমেদ এবং ঘটনার দিন ৯৯৯-এ কল করা মো. ইকরাম হোসেন।

বিশেষ পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান জানান, ইকবালসহ চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছি। এই মামলাটিকে আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছি। আশা করি দ্রুত সময়ে মধ্যে ঘটনার পেছনে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে। রিমান্ড ও তদন্ত শেষে আমাদের পক্ষ থেকে প্রেস ব্রিফিং করে এ বিষয়ের বিস্তারিত জানানো হবে।

news24bd.tv/ কামরুল 

;