নিউজিল্যান্ডের দুর্দান্ত শুরু

অনলাইন ডেস্ক

নিউজিল্যান্ডের দুর্দান্ত শুরু

সুপার টুয়েলভের লড়াইয়ে টসে হেরে নামিবিয়ার বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করছে শক্তিশালী নিউজিল্যান্ড। শুক্রবার (৫ নভেম্বর) শারজায় বাংলাদেশ সময় বিকেল চারটায় ম্যাচটি শুরু হয়।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চার ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৩০ রান তুলেছে কিউইরা। মিচেল ১২ রান আর গাপটিল ১৮ রানে ব্যাট করছেন। 

এর আগে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে তিনটায় টস অনুষ্ঠিত হয়। টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন নামিবিয়ার অধিনায়ক গেরহার্ড এরাসমাস।


আরও পড়ুন:

বাড়লো লঞ্চ চলাচলের সময়সীমা

বিকেল ৫টায় দেশে ফিরছে টাইগারবাহিনী

পরিবহন ধর্মঘট: বিকল্প বাহনও থামিয়ে দিচ্ছে শ্রমিকরা


এই পর্বে ৩ ম্যাচের দুটিতেই জিতে সেমির দৌড়ে আছে নিউজিল্যান্ড। অন্যদিকে সমান ম্যাচে এক জয়ে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে নামিবিয়ার।

নামিবিয়া একাদশ
স্টিফেন বার্ড, মাইকেল ফন লিঙ্গেন, ক্রেইগ উইলিয়ামস, গেরহার্ড ইরাসমাস (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়াইজ, জেজে স্মিট, নিকোল লফটি-ইটন, জ্যান গ্রিন, কার্ল বার্কেনস্টক, রোবেন ট্রাম্পেলম্যান, বেরনার্ড স্কলজ।

নিউজিল্যান্ড একাদশ
মার্টিন গাপটিল, ড্যারেল মিচেল, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), ডেভন কনওয়ে, গ্লেন ফিলিপস, জেমস নিশাম, মিচেল স্যান্টনার, অ্যাডাম মিলনে, টিম সাউদি, ইশ সোধি, ট্রেন্ট বোল্ট।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

পাকিস্তান সফর থেকে ছিটকে গেলেন পোলার্ড

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তান সফর থেকে ছিটকে গেলেন পোলার্ড

কাইরন পোলার্ড

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাওয়া হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট থেকে সেরে ওঠেননি তিনি। পাকিস্তান সফর থেকে ছিটকে গেলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড।

পোলার্ডের অনুপস্থিতিতে নিকোলাস পুরান টি-টোয়েন্টি সিরিজে নেতৃত্ব দিবেন। আর ওয়ানডেতে অধিনায়কত্ব করবেন শাই হোপ।

আরও পড়ুন


চট্টগ্রামেও হাফ ভাড়া নেওয়ার ঘোষণা


পাকিস্তান সফরে পোলার্ডের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন ডেভন থমাস। আর টি-টোয়েন্টি দলে পোলার্ডের জায়গায় রভম্যান পাওয়েলকে নেওয়া হয়েছে। এই সময়ে ত্রিনিদাদে পুনর্বাসনে থাকবেন পোলার্ড।

তার ফিটনেস পর্যবেক্ষণ করা হবে এবং আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ফিরতে পারবেন কি না চূড়ান্ত হবে সিরিজ শুরুর আগ দিয়ে।

তিনটি করে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে খেলতে পাকিস্তানে সফর করবে ক্যারিবীয়রা। ১৩ থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এই সিরিজ।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

নিউজিল্যান্ডে যাবেন না সাকিব, দল ঘোষণার পর চিঠি

অনলাইন ডেস্ক

নিউজিল্যান্ডে যাবেন না সাকিব, দল ঘোষণার পর চিঠি

দেশ সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান আবারও আলোচনায়। এবার ইস্যু নিউজিল্যান্ড সফরে না যাওয়া নিয়ে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ইনজুরির কারণে প্রথম টেস্ট খেলেননি সাকিব। এর আগে টি-টোয়েন্টিতেও ছিলেন না তিনি।

পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে খেলছেন তিনি। এরইমধ্যে আবার জানিয়েছেন ছুটির আবেদন। আগে থেকেই সাকিবের নিউজিল্যান্ড সফরে না যাওয়া নিয়ে গুঞ্জন চলছিলো। সাকিব নাকি মৌখিকভাবে জানিয়েছিলেন বিবিসি প্রধানকে। এদিকে নিউজিল্যান্ড সফরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুই টেস্ট সিরিজের জন্য ১৮ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করে বোর্ড।

সাকিবকে দলে রেখেই স্কোয়াড ঘোষণা করে ক্রিকেট বোর্ড। এরপরেই টনক নড়ে সাকিবের। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় চিঠি দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সাকিব জানিয়েছেন নিউজিল্যান্ড সফরে ছুটি চান তিনি। ঘোষিত এই স্কোয়াডে রাখা হয়েছে, তাসকিন আহমেদ এবং মিরপুর টেস্টে প্রথমবারের মতো ডাক পাওয়া দুই ওপেনার মাহামুদুল হাসান জয় ও নাঈম শেখ।

শনিবার সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ আসন্ন নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য বিসিবির দল ঘোষণার এক ঘণ্টা পর চিঠি দিয়ে সাকিব নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছুটি চান। আনুষ্ঠানিকভাবে ‘পারিবারিক কারণ’ দেখিয়ে নিউজিল্যান্ড সিরিজ থেকে ছুটি চেয়ে আবেদন করেছেন দেশ সেরা এই অলরাউন্ডার।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরীকে পাঠানো চিঠিতে সাকিব জানিয়েছেন, জরুরি পারিবারিক কারণে তিনি ৯ ডিসেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া নিউজিল্যান্ড সফরে যেতে চান না। সাকিব তাই অনুরোধ করেছেন তাকে দলের বাইরে রাখতে। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ দল। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট দুটির প্রথমটি তারাঙ্গুণার বে ওভালে ১-৫ জানুয়ারি। দ্বিতীয় টেস্ট ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে ৯-১৩ জানুয়ারি।

আরও পড়ুন


বাবার কাছে দুই সন্তান, কাছে পেতে জাপানি মায়ের আপিল

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

মিরপুরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, খেলা শুরু হতে দেরি

অনলাইন ডেস্ক

মিরপুরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, খেলা শুরু হতে দেরি

বাংলাদেশ-পাকিস্তান দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে বাধা বৃষ্টি। ঢাকা টেস্টের প্রথম দিন ভালো ভাবেই নির্ধারিত সময়ে খেলা শুরু হলেও লাঞ্চের পরেই বিপত্তি সৃষ্টি করে বৃষ্টি। আর যে কারণে শেষ পর্যন্ত দিনের খেলা পুরো ৩৩ ওভার বাকি রেখেই সমাপ্তি ঘোষণা করতে বাধ্য হন ম্যাচ রেফারি।

গতকাল ওভার কম হওয়ায় আজ দ্বিতীয় দিন নির্ধারিত সময়ের আধা ঘণ্টা আগেই খেলা শুরু হওয়ার কথা। কিন্তু আজও বাধা বৃষ্টি। সকাল ৯টা থেকেই মিরপুরে শুরু হয়েছে ইলশেগুঁড়ি বৃষ্টি। তাই এখন পর্যন্ত খেলাই শুরু করা সম্ভব হয়নি। পিচ কাভার দিয়ে পুরোপুরি ঢেকে রাখা হয়েছে। বৃষ্টি থামলে মাঠ শুকানোর কাজ হবে। তারপর শুরু হবে দ্বিতীয় দিনের খেলা।

গতকাল শনিবার চা বিরতির পর বেলা ৩টার দিকে খেলোয়াড়েরা মাঠে প্রবেশ করে আবার ফিরে যান। আলো পরীক্ষা করে আম্পায়াররা খেলা শুরু করেননি। এরপর বেশ কয়েকবার আলোর পরিমাপ করা হয়। কিন্তু টেস্ট ম্যাচ মাঠে গড়ানোর মতো পর্যাপ্ত আলো ছিল না। শেষ পর্যন্ত বিকাল ৪টা ৭ মিনিটে দিনের খেলার সমাপ্তি টানার সিদ্ধান্ত হয়।

প্রথম দিন শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১৬১ রান। অজহার আলী অপরাজিত আছেন ১১২ বলে ৩৬* রান। আর হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া অধিনায়ক বাবর আজম ৯৯ বলে ৬০* রানে অপরাজিত। প্রথম দিনের দুটি উইকেটই শিকার করেছেন বাংলাদেশের স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

আরও পড়ুন


ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদের’ প্রভাবে উত্তাল সমুদ্র, বৃষ্টি শুরু

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

এজাজের দিনে কঠিন বিপদে নিউজিল্যান্ড

অনলাইন ডেস্ক

এজাজের দিনে কঠিন বিপদে নিউজিল্যান্ড

এজাজ প্যাটেলের বিশ্বরেকর্ডটি যেন খানিক ম্লান করে দিলেন নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। টেস্টের এক ইনিংসে ১০ উইকেট নেন নিউজিল্যান্ডের স্পিনার আজাজ প্যাটেল। একইদিনে মুদ্রার অন্য পিঠ দেখলো তার দল। টেস্টের দ্বিতীয় দিন নিজেদের প্রথম ইনিংসে অলআউট হয়েছে মাত্র ৬২ রানে।  ভারতের বিরুদ্ধে টেস্টে এটি কোনো দলের সর্বনিম্ন রানের লজ্জা। এর আগে ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার ৭৯ রান।

আর প্রথম ইনিংসে ৩২৫ রান করার পর দ্বিতীয় ইনিংসে বিনা উইকেটে ৬৯ রান তুলে দিন শেষ করে ভারত। ফলে ৩৩২ রানের বিশাল লিড পায় ভিরাট কোহলির দল।

ব্লাক ক্যাপসদের ৯ ব্যাটসম্যানকেই কাল ড্রেসিংরুমে ফিরতে হয়েছে দুই অংকের কোটায় পৌঁছার আগেই। কেবলমাত্র কাইল জেমিসন ও অধিনায়ক টম লাথাম ডাবল ফিগারে পৌঁছেছেন। তারপরও একজনের স্কোর ১৭, আরেকজনের মাত্র ১০। নিউজিল্যান্ডকে অলআউট করে দিয়ে বিনা উইকেটে ৬৩ রান করেছে ভারত। দ্বিতীয় দিন শেষে কোহলিদের লিড ৩২৬ রান।

সর্বশেষ ২২ বছর আগে এমন ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল ক্রিকেট বিশ্ব। অনিল কুম্বলের কল্যাণে। দেড়শ বছরের ইতিহাসে এর আগে এই কীর্তি গড়েছিলেন জিম লেকারও। তবে ল্যাকার বা কুম্বলে কেউই ম্যাচের প্রথম ১০ উইকেট শিকার করতে পারেননি। আবার সফরকারী দলের সদস্য হিসেবেও ১০ উইকেট নেওয়ার রেকর্ডও এবারই প্রথম। এজাজের কীর্তি তাই তাদের চেয়েও আগে থাকার যোগ্যতা রাখে।

টেস্ট ইতিহাসে ইনিংসে ১০ উইকেট নেওয়ার কীর্তি আছে এই তিনজনেরই। ইনিংসে ৯টি উইকেট শিকারের রেকর্ড আছে ১৭ জনের। বাংলাদেশের তাইজুল ইসলাম ২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৮ উইকেট পেয়েছিলেন, যা টেস্ট ইতিহাসের সেরা বোলিং ফিগারের তালিকায় ৩৩তম।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

একাই ভারতের সব উইকেট নিয়ে ইতিহাস গড়লেন এজাজ

অনলাইন ডেস্ক

একাই ভারতের সব উইকেট নিয়ে ইতিহাস গড়লেন এজাজ

নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড় এজাজ প্যাটেল মুম্বাইয়ের ছেলে। ভারতের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের খেলাও হচ্ছে মুম্বাইয়ে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের হয়ে খেলা এই এজাজ ইতিহাসই গড়ে বসলেন ভারতের বিপেক্ষ মুম্বাই টেস্টে। মুম্বাই টেস্টের প্রথম ইনিংসে ভারতের ১০ উইকেটের সবগুলোই নিলেন নিউজিল্যান্ডের এই বোলার। সর্বশেষ ২২ বছর আগে এমন ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল ক্রিকেট বিশ্ব। অনিল কুম্বলের কল্যাণে। দেড়শ বছরের ইতিহাসে এর আগে এই কীর্তি গড়েছিলেন জিম লেকারও। তবে ল্যাকার বা কুম্বলে কেউই ম্যাচের প্রথম ১০ উইকেট শিকার করতে পারেননি। আবার সফরকারী দলের সদস্য হিসেবেও ১০ উইকেট নেওয়ার রেকর্ডও এবারই প্রথম। এজাজের কীর্তি তাই তাদের চেয়েও আগে থাকার যোগ্যতা রাখে।

মুম্বাই টেস্টে শুভমন গিলকে ফিরিয়ে শুরুটা করেছিলেন এজাজ। এরপর টেস্টের প্রথম দিনেই চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলিদের সাজঘরের পথ দেখিয়েছিলেন শূন্য রানে। সেদিনই আউট করেছিলেন শ্রেয়াস আয়ারকেও। 

দ্বিতীয় দিনে শনিবার যেন আরও ধারালো হয়ে উঠলেন এজাজ। ভারতের যে ছয় ব্যাটসম্যান আউট হলেন পরে, সবাইকেই আউট করলেন তিনি। শেষটা করলেন ভারতের ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ সিরাজকে দিয়ে।

ইনিংসশেষে তার বোলিং ফিগার দাঁড়ালো- ৪৭.৫ ওভার, ৩ মেডেন, ৩৬ রান, ১০ উইকেট।

আরও পড়ুন:

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনা


 

ইনিংসে প্রতিপক্ষের সব ব্যাটসম্যানকে আউট করার প্রথম কীর্তিটি ছিল ইংল্যান্ডের জিম লেকারের। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিনি এমন ঘটনা ঘটিয়েছিলেন ১৯৫৬ সালে, ম্যানচেস্টার টেস্টে। ওই ম্যাচটি ইনিংস ও ১৭০ রানের বড় ব্যবধানে জিতেছিল ইংলিশরা।

পরের কীর্তিটা আজকের প্রতিপক্ষ ভারতের বোলারেরই। অনিল কুম্বলেও কীর্তিটা গড়েছিলেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে, দিল্লিতে। ওই টেস্টে ২১২ রানের বড় ব্যবধানে জিতেছিল ভারত। এজাজ ও লেকারের কীর্তি প্রথম ইনিংসে হলেও কুম্বলে ১০ উইকেট নিয়েছিলেন দ্বিতীয় ইনিংসে।

টেস্ট ইতিহাসে ইনিংসে ১০ উইকেট নেওয়ার কীর্তি আছে এই তিনজনেরই। ইনিংসে ৯টি উইকেট শিকারের রেকর্ড আছে ১৭ জনের। বাংলাদেশের তাইজুল ইসলাম ২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৮ উইকেট পেয়েছিলেন, যা টেস্ট ইতিহাসের সেরা বোলিং ফিগারের তালিকায় ৩৩তম।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর