বিভিন্ন স্থানে খুন সহিংসতা, আরও দুইজন নিহত

অনলাইন ডেস্ক

বিভিন্ন স্থানে খুন সহিংসতা, আরও দুইজন নিহত

গতকাল শনিবারও ইউপি নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষ, ভাঙচুর, আগুনসহ হাঙ্গামার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া পটুয়াখালী ও নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে দুজন নিহত হয়েছে। পটুয়াখালী সদর উপজেলার বড় বিঘাই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী অহিদুজ্জামান মজনু মোল্লার ব্যক্তিগত মোটরসাইকেল চালক মাসুদ ব্যাপারীকে (২৫) পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গত শুক্রবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে বড় বিঘাই গ্রামের গনি সিকদারের বাড়ি সংলগ্ন স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

গতকাল ভোরে রাস্তার পাশের ডোবায় ফেলে রাখা মরদেহটি পানিতে ভাসমান অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা। ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। নিহত যুবক মাসুদ ওই ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা আবদুল লতিফ ব্যাপারীর ছেলে। বড় বিঘাই ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অহিদুজ্জামান মজনু মোল্লা বলেন, ‘গত রাতে আমিসহ বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মী পটুয়াখালী শহর থেকে বড় বিঘাই গ্রামের আমার নিজ বাড়িতে আসি। পরে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুস ছত্তার হাওলাদার এবং রাহাত মাঝিকে মাসুদ তাদের বাড়িতে নামিয়ে দিয়ে ফেরার পথে তাকে হত্যা করা হয়েছে। সকালে মরদেহ দেখতে পেয়ে আমাকে ও পুলিশকে ফোন করে স্থানীয়রা। ওসিসহ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে তদন্ত করেছেন।

পটুয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল শামিম কুদ্দুছ ভূঁইয়া জানান, মাসুদের গলায় শ্বাসরোধ করার চিহ্ন দেখা যাচ্ছে। তার মাথায়ও রক্তাক্ত আঘাতের চিহ্ন আছে।

এদিকে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থানার মুড়াপাড়ায় গতকাল রাতে গুলিতে আবদুর রশিদ মোল্লা নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি স্থানীয় ৫ নম্বর ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দি¦তায় হওয়া মেম্বার আওলাদ হোসেনের শ্যালক। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা গতরাত ১১টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, লাশের ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় আহত সাব্বির নামে একজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রূপগঞ্জ থানার ওসি আবুল ফয়সল মোহাম্মদ ছায়েদ জানান, ‘ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে এলাকায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ছিল। কিন্তু হঠাৎ করেই গোলাগুলির খবর পেয়েছি।

অন্যদিকে, মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার কয়ারিয়া ইউপি নির্বাচনে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকির হোসেন জমাদারের সমর্থকদের সঙ্গে গতকাল প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কামরুল হাসান নুর মোহাম্মদ মোল্লার সমর্থকদের সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। 

আরও পড়ুন:


চলন্ত বাসে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, গ্রেফতার বাসচালক


শরীয়তপুর সদরের রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম ঢালী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিবুর রহমান ঢালীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও পার্টি অফিস ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত হন ২০ জন। শুক্রবার রাতে উপজেলার সুবচনী বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

news24bd.tv রিমু

পরবর্তী খবর

বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে: মেয়র আতিকুল

অনলাইন ডেস্ক

বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে: মেয়র আতিকুল

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, দেশে প্রথমবারের মতো বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে যাচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ঢাকায় বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

আতিকুল ইসলাম বলেন, রাজধানীর আমিনবাজার এলাকায় বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পের জন্য ডিএনসিসি ৩০ একর জমি বরাদ্দের ব্যবস্থা করেছে। ৪২.৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন প্রকল্পটিতে প্রতিদিন সর্বমোট ৩ হাজার মেট্রিক টন কঠিন বর্জ্য ব্যবহার করা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রকল্পটিতে কাঁচামাল হিসেবে নগরীর কঠিন বর্জ্য‌ ব্যবহার করার ফলে এটি নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি সুস্থ পরিবেশ ও প্রতিবেশের জন্যও সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

ডিএনসিসি মেয়রের উপস্থিতিতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে চীনের চায়না মেশিনারি ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশনের এসংক্রান্ত দুটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন


লক্ষ্মীপুরে ধান ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধূকে নির্মম নির্যাতন

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

অনলাইন ডেস্ক

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

সড়কে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা

নিরাপদ সড়কের দাবিতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সকাল থেকে রাজধানীর রামপুরা এলাকায় সড়ক আটকিয়ে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। বুধবার (১ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কয়েকশ' শিক্ষার্থী রামপুরা ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয়।

বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে শিক্ষার্থীরা ১১টি দাবি জানিয়েছে।

তাদের দাবিগুলো হলো:

১. সড়কে নির্মম কাঠামোগত হত্যার শিকার নাঈম ও মাঈনুদ্দিনের হত্যার বিচার করতে হবে। তাদের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। গুলিস্তান ও রামপুরা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় পথচারী পারাপারের জন্য ফুটওভারব্রিজ নির্মাণ করতে হবে।

২. সারাদেশের সব গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া সরকারি প্রজ্ঞাপন দিয়ে নিশ্চিত করতে হবে। হাফ ভাড়ার জন্য কোনো সময় বা দিন নির্ধারণ করে দেওয়া যাবে না। বর্ধিত বাস ভাড়া প্রত্যাহার করতে হবে। সব রুটে বিআরটিসির বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে।

৩. গণপরিবহনে ছাত্র-ছাত্রী এবং নারীদের জন্য অবাধ যাত্রা ও সৌজন্যমূলক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

৪. ফিটনেস ও লাইসেন্সবিহীন গাড়ি এবং লাইসেন্সবিহীন চালক নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।গাড়ি ও ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে বিআরটিএ’র দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।

৫. সব রাস্তায় ট্রাফিক লাইট, জেব্রা ক্রসিং নিশ্চিত করাসহ জনবহুল রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশের সংখ্যা বাড়াতে হবে। ট্রাফিক পুলিশের ঘুস-দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।

৬. বাসগুলোর মধ্যে বেপরোয়া প্রতিযোগিতা বন্ধে এক রুটে এক বাস এবং দৈনিক আয় সব পরিবহন মালিকের মধ্যে তাদের অংশ অনুয়ায়ী সমানভাবে বণ্টনের নিয়ম চালু করতে হবে।

৭. শ্রমিকদের নিয়োগপত্র, পরিচয়পত্র নিশ্চিত করতে হবে। চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বাতিল করতে হবে। চুক্তি ভিত্তিতে বাস দেওয়ার বদলে টিকিট ও কাউন্টারের ভিত্তিতে গোটা পরিবহন ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে হবে। শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার ও টয়লেটের ব্যবস্থা করতে হবে।

৮. গাড়ি চালকের কর্মঘণ্টা একনাগাড়ে ৬ ঘণ্টার বেশি হওয়া যাবে না। প্রতিটি বাসে ২ জন চালক ও ২ জন সহকারী রাখতে হবে। পর্যাপ্ত বাস টার্মিনাল নির্মাণ করতে হবে। পরিবহন শ্রমিকদের যথাযথ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।


আরও পড়ুন:

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি, কাটাখালীর মেয়র আটক

শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

আজ থেকে ঢাকার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক কার্যকর


৯. যাত্রী, পরিবহন শ্রমিক ও সরকারের প্রতিনিধিদের মতামত নিয়ে সড়ক পরিবহন আইন সংস্কার করতে হবে এবং এর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে।

১০. ট্রাক, ময়লার গাড়িসহ অন্যান্য ভারী যানবাহন চলাচলের জন্য রাত ১২টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করে দিতে হবে।

১১. মাদকাসক্তি নিরসনে গোটা সমাজে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে। চালক-সহকারীদের জন্য নিয়মিত ডোপ টেস্টের ও কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, নিরাপদ সড়কের জন্য তাদের দাবিগুলো না মানা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

গুলি ছাড়াই প্রতিবেশীর সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

গুলি ছাড়াই প্রতিবেশীর সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সচিবালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শান্তিতে বিশ্বাসী। সে কারণে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সমস্যা আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সমাধান করেছি। কোনো গুলি ছাড়াই আমরা শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছি বলে জানিয়েছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এটি আগামী ৪-৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠার ব্রতে নিয়োজিত বরেণ্য ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, কবি, সাহিত্যিক, শিক্ষাবিদ, বিজ্ঞানী, শিল্পী, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, বুদ্ধিজীবীরা অংশ নেবেন। এতে বিশ্বের ৫০টি দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন। এদের মধ্যে ৬০ জন প্রতিনিধি সশরীরে আসবেন। আর ৪০ জন প্রতিনিধি ভার্চ্যুয়ালি অংশ নেবেন।

করোনার নতুন ধরন প্রসঙ্গে ড. মোমেন বলেন, সাউথ আফ্রিকা থেকে আসা বন্ধ করে দিয়েছি। আগে যারা আসছে তাদেরও চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। আমরা আমাদের আফ্রিকা দূতাবাসে বার্তা পাঠিয়েছি, বলেছি সেখানে যারা আছেন এখন যেন তাদের দেশে আসতে নিরুৎসাহিত করা হয়।

এবিষয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানান, প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ আগামী ৪ ডিসেম্বর বিকেলে ভার্চ্যুয়ালি সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। আর ৫ ডিসেম্বর সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সম্মেলনে রাজনীতিবিদ, শিল্পী, সাহিত্যিক অংশ নেবেন। সম্মেলনে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন, নোবেল জয়ী কৈলাশ সত্যার্থী, ইউনেস্কোর মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা, ব্রিটেনের সাবেক ফার্স্ট লেডি শেরি ব্লেয়ার অংশ নেবেন।

আরও পড়ুন


করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

রামপুরায় আজও শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

অনলাইন ডেস্ক

রামপুরায় আজও শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

ফাইল ছবি

গাড়িচাপায় কলেজছাত্র মাঈনুদ্দিন নিহতের ঘটনার বিচার ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আজও রাজধানীর রামপুরা এলাকায় সড়ক আটকিয়ে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা।  

বুধবার (১ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কয়েকশ' শিক্ষার্থী রামপুরা ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয়।

রামপুরা ব্রিজ এলাকায় একরামুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ইম্পিরিয়াল কলেজ, ন্যাশনাল আইডিয়াল কলেজ, আলাতুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ক্যামব্রিয়ান কলেজ, গুলশান কমার্স কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছে।

শিক্ষার্থীদের টানা আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীতে বাসে অর্ধেক ভাড়ার দাবি মেনে নেওয়ার ঘোষণা দেয় পরিবহন মালিক সমিতি।

তবে শিক্ষার্থীদের ভাষ্য, নিরাপদ সড়কের জন্য তাদের ৯ দফার মধ্যে একটি দাবি হচ্ছে অর্ধেক ভাড়া কার্যকর করা। বাকি দাবিগুলো না মানা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) দুপুর ২টা পর্যন্ত আমরা অবরোধ কর্মসূচি পালন করছি। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আমরা আজ আন্দোলনে নেমেছি। শিক্ষার্থীদের জন্য যতক্ষণ পর্যন্ত সড়ক নিরাপদ হবে না এ আন্দোলন আমরা চালিয়ে যাব।


আরও পড়ুন:

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি, কাটাখালীর মেয়র আটক

শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

আজ থেকে ঢাকার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক কার্যকর


রামপুরা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা শুনেছি শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমেছে। আগে থেকে ঘোষণা ছিল তারা আজকেও নামবে। তবে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে করোনার প্রকোপ বাড়লে আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে। আর এই বিষয়টি মাথায় রেখে শিক্ষার্থীদের সময়কে কাজে লাগাতে এবং ক্লাসে মনোযোগী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

বুধবার (০১ ডিসেম্বর) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে শিশু একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল উদ্বোধন এবং ধানমন্ডিতে জয়িতা টাওয়ারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, মনে রাখতে হবে যে এই করোনা ভাইরাস কিন্তু এখনো শেষ হয়ে যায়নি। আমরা ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু করেছি, এখন শিক্ষার্থীদেরও দিচ্ছি। বর্তমানে আবার নতুন আরেকটা ওয়েব আসছে। কাজেই এটা মাথায় রাখতে হবে যদি এটা বিস্তার লাভ করে তাহলে যেকোনো সময় আবার কিন্তু সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাবে।

যেটুকু সময় পাওয়া যাচ্ছে সবাইকে অন্তত যার যার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে গিয়ে শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। 

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘ছাত্রছাত্রীদের জন্য আমি আরেকটা কথা বলবো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন করোনার জন্য বন্ধ ছিল। এখন সমস্ত স্কুল-কলেজগুলো খুলে গেছে। সবাইকে এখন পড়াশোনা করতে হবে। যার যার স্কুলে ফিরে যেতে হবে।

আরও পড়ুন


গৃহবধূকে গভীর রাতে স্কুলে নিয়ে পালাক্রমে ৩ জনের ধর্ষণ

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর