প্রেমিককে চিরকুট লিখে ছাত্রীর আত্মহত্যা!
প্রেমিককে চিরকুট লিখে ছাত্রীর আত্মহত্যা!

প্রেমিককে চিরকুট লিখে ছাত্রীর আত্মহত্যা!

অনলাইন ডেস্ক

চিরকুট লিখে হাদিসা আক্তার পপি (১৭) নামে এক কলেজছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। এই ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায়। সেখান থেকে জানা যায়, এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর প্রতারণার শিকার হয়ে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হন ওই তরুণী। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে সালিশ বসিয়ে টাকা দিয়ে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়।

এতে ক্ষোভে আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে নিজ বাড়ির টয়লেটে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই তরুণী।

ওই তরুণী ময়মনসিংহ নগরীর মুমিনুন্নিছা সরকারি মহিলা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। তার বাড়ি ঈশ্বরগঞ্জ উপজলার উচাখিলা ইউনিয়নর মরিচারচর নামাপাড়া গ্রামে। তার সঙ্গে পাশের বাড়ির মোনায়েম মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক গড় ওঠে। মোনায়েম একই গ্রামের আমীর আলীর ছেলে।

মৃত্যুর আগে একটি চিরকুট লিখে যায় পপি। পুলিশের মাধ্যমে হাতে পাওয়া চিঠিতে লেখা ছিল, মোনায়েম তুমিই ভালো থেক। সরল মনে তোমাকে ভালোবেসেছিলাম। কিন্তু তুমি আমার ভালোবাসাটা বুঝলে না। আমি আমার এই কলঙ্কিত মুখ নিয়ে আর বেঁচে থাকতে চাই না। তোমাকে সরল মনে ভালোবেসে কী অপরাধ করেছিলাম জানি না। তুমি ভালো থেক। আমি তো তোমার কাছে আগে যাইনি, তুমিই তো আমাকে আগেই ভালোবেসেছো। আমি বুঝতে পারিনি তোমার অভিনয়। সুখে থেক। সারাটা জীবন অনেক ভালো থেক, এটাই চাই।

চিঠিতে আরও লেখা হয়, আমি বুঝতে পারিনি, তুমি আমার সঙ্গে কেন এমন করলে। কি ক্ষতি করেছিলাম তোমার এমন, জানি না। আমি জীবন দিয়ে তোমাকে ভালোবেসেছিলাম। দেহ দিয়ে নয়। তুমি শুধু আমার দেহটাই বেছে নিয়েছিলে। আমি তো তোমায় সরল মনে ভালোবেসেছিলাম।

আরও পড়ুন

ট্রাক-কাভার্ডভ্যানের ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে

রায় প্রকাশের আগে ফাঁসি কার্যকর হবে না: আপিল বিভাগ

৫০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব মিনিবাসে

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মো. আবদুল কাদের মিয়া সংবাদমাধ্যমকে বলেন, প্রেমের সম্পর্কের পর বিয়ে করতে রাজী না হওয়ায় ওই তরুণী আত্মহত্যা করেছে। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত