ধর্মঘট প্রত্যাহার: ডিজেলে চলা বাসের ভাড়া বাড়ল

অনলাইন ডেস্ক

ধর্মঘট প্রত্যাহার: ডিজেলে চলা বাসের ভাড়া বাড়ল

তিন দিন ধরে চলা গণপরিবহনের ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছেন বাস মালিকরা। গতকাল রবিবার ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে সিদ্ধান্তের পর পরিবহনের ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়। বৈঠকে শুধু ডিজেলচালিত বাসের ভাড়া বাড়িয়েছে সরকার। 

যা ঢাকায় মাত্র ৫ শতাংশ বাস ডিজেলে চলে। আর দূরপাল্লার বাসের ৪০ শতাংশ চলে ডিজেলে। বাকি বাস চলে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাসে (সিএনজি)। কিন্তু সিএনজিচালিত বাসের মালিকরাও ধর্মঘটে যোগ দিয়েছিলেন। তবে তাঁদের ভাড়া বাড়ানো হয়নি।

এদিকে গত শনিবার লঞ্চ মালিকরাও ধর্মঘটে যোগ দেন। গতকাল বিআইডাব্লিউটিএর সঙ্গে লঞ্চ মালিকদের বৈঠকে ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্তের পর তাঁরাও ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন। তবে পণ্যবাহী যানবাহনের মালিকরা গতকালের বৈঠকে যোগ দেননি। তাঁরা ধর্মঘটও প্রত্যাহার করেননি।

গতকাল কয়েক দফায় সাত ঘণ্টার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন বাস ভাড়া নির্ধারণ কমিটির প্রধান ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার। সন্ধ্যায়ই ভাড়া বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়।

কোন বাস গ্যাসে আর কোন বাস ডিজেলে চলে, তা যাত্রীরা বুঝবে কিভাবে—এমন প্রশ্নের জবাবে নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, ‘নিশ্চয়ই এটা চিহ্নিত করার জন্য সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। প্রয়োজনে ভাড়া মনিটরিংয়ের জন্য ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে নামবেন।’ কতসংখ্যক বাস ডিজেলে চলে জানতে চাইলে তিনি পরিষ্কার তথ্য দিতে পারেননি। বিআরটিএর চেয়ারম্যান বলেন, ‘এই তথ্য বাস মালিকদের কাছে আছে।’ তবে গ্যাসে চলার পরও যেসব বাস এই ধর্মঘটে যোগ দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, এখন থেকে দূরপাল্লার বাসে এক টাকা ৪২ পয়সার পরিবর্তে প্রতি কিলোমিটারে এক টাকা ৮০ পয়সা ভাড়া নেওয়া হবে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরে এক টাকা ৭০ পয়সার বদলে ভাড়া নেওয়া হবে দুই টাকা ১৫ পয়সা। মহানগরে চলা মিনিবাসের ভাড়া এক টাকা ৬০ পয়সার জায়গায় দুই টাকা পাঁচ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে। এই হিসাবে দূরপাল্লার ক্ষেত্রে প্রতি কিলোমিটারে বাসের ভাড়া বাড়ল ২৭ শতাংশ আর মহানগরে ২৬.৫ শতাংশ। 

বাসের সর্বনিম্ন ভাড়া ছিল সাত টাকা। এটা এখন করা হয়েছে ১০ টাকা। মানে বাসে উঠলেই ১০ টাকা ভাড়া দিতে হবে। মিনিবাসের এই ভাড়া পাঁচ টাকা থেকে বাড়িয়ে আট টাকা করা হয়েছে।

ডিজেলচালিত বাসের ভাড়া বাড়ানোর বৈঠক থেকে বেরিয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ। তিনি বলেন, ‘আজ (গতকাল) সন্ধ্যা থেকে বাস চালানোর জন্য সারা দেশের বাস মালিক-শ্রমিকদের অনুরোধ জানাচ্ছি।’

এনায়েত উল্লাহ বলেন, ‘২০১৩ সালের পর আর বাসের ভাড়া বাড়েনি। অথচ এর মধ্যে সব জিনিসের দাম বেড়েছে। এখন আবার জ্বালানি তেলের দামও বাড়ল। ডিজেলের বর্ধিত মূল্য বিবেচনা করলে ভাড়া খুব বেশি বাড়ানো হয়নি।’

এদিকে লঞ্চের সর্বনিম্ন ভাড়া বাড়ল ৩৫%। গতকাল রাত থেকেই পুনর্নির্ধারিত ভাড়া অনুযায়ী লঞ্চ চলাচল শুরু হয়। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডাব্লিউটিএ) কার্যালয়ে সংস্থাটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে লঞ্চ মালিক সমিতির নেতাদের বৈঠকে ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়।

আরও পড়ুন:


বাংলা অর্থসহ ৫টি জরুরি দোয়া

বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফল এটি, কেজি প্রতি ২৩ লাখ টাকা!


বৈঠক শেষে বিআইডাব্লিউটিএ চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক জানান, প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া বাড়ানো হয়েছে ৬০ পয়সা। বর্তমান ভাড়া এক টাকা ৭০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে দুই টাকা ৩০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে। এটা ১০০ কিলোমিটারের মধ্যে প্রযোজ্য হবে। ১০০ কিলোমিটারের পর প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া হবে দুই টাকা। সর্বনিম্ন যাত্রীপ্রতি ভাড়া ছিল ১৮ টাকা। সেটি বাড়িয়ে ৩০ টাকা করা হয়েছে। সেই হিসাবে ভাড়া বেড়েছে শতকরা ৩৫ শতাংশ।

news24bd.tv রিমু 

 

পরবর্তী খবর

বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে: মেয়র আতিকুল

অনলাইন ডেস্ক

বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে: মেয়র আতিকুল

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, দেশে প্রথমবারের মতো বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে যাচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ঢাকায় বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

আতিকুল ইসলাম বলেন, রাজধানীর আমিনবাজার এলাকায় বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পের জন্য ডিএনসিসি ৩০ একর জমি বরাদ্দের ব্যবস্থা করেছে। ৪২.৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন প্রকল্পটিতে প্রতিদিন সর্বমোট ৩ হাজার মেট্রিক টন কঠিন বর্জ্য ব্যবহার করা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রকল্পটিতে কাঁচামাল হিসেবে নগরীর কঠিন বর্জ্য‌ ব্যবহার করার ফলে এটি নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি সুস্থ পরিবেশ ও প্রতিবেশের জন্যও সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

ডিএনসিসি মেয়রের উপস্থিতিতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে চীনের চায়না মেশিনারি ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশনের এসংক্রান্ত দুটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন


লক্ষ্মীপুরে ধান ক্ষেতে নিয়ে গৃহবধূকে নির্মম নির্যাতন

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

অনলাইন ডেস্ক

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

সড়কে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা

নিরাপদ সড়কের দাবিতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সকাল থেকে রাজধানীর রামপুরা এলাকায় সড়ক আটকিয়ে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। বুধবার (১ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কয়েকশ' শিক্ষার্থী রামপুরা ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয়।

বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে শিক্ষার্থীরা ১১টি দাবি জানিয়েছে।

তাদের দাবিগুলো হলো:

১. সড়কে নির্মম কাঠামোগত হত্যার শিকার নাঈম ও মাঈনুদ্দিনের হত্যার বিচার করতে হবে। তাদের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। গুলিস্তান ও রামপুরা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় পথচারী পারাপারের জন্য ফুটওভারব্রিজ নির্মাণ করতে হবে।

২. সারাদেশের সব গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া সরকারি প্রজ্ঞাপন দিয়ে নিশ্চিত করতে হবে। হাফ ভাড়ার জন্য কোনো সময় বা দিন নির্ধারণ করে দেওয়া যাবে না। বর্ধিত বাস ভাড়া প্রত্যাহার করতে হবে। সব রুটে বিআরটিসির বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে।

৩. গণপরিবহনে ছাত্র-ছাত্রী এবং নারীদের জন্য অবাধ যাত্রা ও সৌজন্যমূলক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

৪. ফিটনেস ও লাইসেন্সবিহীন গাড়ি এবং লাইসেন্সবিহীন চালক নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।গাড়ি ও ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে বিআরটিএ’র দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।

৫. সব রাস্তায় ট্রাফিক লাইট, জেব্রা ক্রসিং নিশ্চিত করাসহ জনবহুল রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশের সংখ্যা বাড়াতে হবে। ট্রাফিক পুলিশের ঘুস-দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।

৬. বাসগুলোর মধ্যে বেপরোয়া প্রতিযোগিতা বন্ধে এক রুটে এক বাস এবং দৈনিক আয় সব পরিবহন মালিকের মধ্যে তাদের অংশ অনুয়ায়ী সমানভাবে বণ্টনের নিয়ম চালু করতে হবে।

৭. শ্রমিকদের নিয়োগপত্র, পরিচয়পত্র নিশ্চিত করতে হবে। চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বাতিল করতে হবে। চুক্তি ভিত্তিতে বাস দেওয়ার বদলে টিকিট ও কাউন্টারের ভিত্তিতে গোটা পরিবহন ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে হবে। শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার ও টয়লেটের ব্যবস্থা করতে হবে।

৮. গাড়ি চালকের কর্মঘণ্টা একনাগাড়ে ৬ ঘণ্টার বেশি হওয়া যাবে না। প্রতিটি বাসে ২ জন চালক ও ২ জন সহকারী রাখতে হবে। পর্যাপ্ত বাস টার্মিনাল নির্মাণ করতে হবে। পরিবহন শ্রমিকদের যথাযথ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।


আরও পড়ুন:

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি, কাটাখালীর মেয়র আটক

শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

আজ থেকে ঢাকার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক কার্যকর


৯. যাত্রী, পরিবহন শ্রমিক ও সরকারের প্রতিনিধিদের মতামত নিয়ে সড়ক পরিবহন আইন সংস্কার করতে হবে এবং এর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে।

১০. ট্রাক, ময়লার গাড়িসহ অন্যান্য ভারী যানবাহন চলাচলের জন্য রাত ১২টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করে দিতে হবে।

১১. মাদকাসক্তি নিরসনে গোটা সমাজে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে। চালক-সহকারীদের জন্য নিয়মিত ডোপ টেস্টের ও কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, নিরাপদ সড়কের জন্য তাদের দাবিগুলো না মানা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

গুলি ছাড়াই প্রতিবেশীর সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

গুলি ছাড়াই প্রতিবেশীর সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সচিবালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শান্তিতে বিশ্বাসী। সে কারণে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সমস্যা আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সমাধান করেছি। কোনো গুলি ছাড়াই আমরা শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছি বলে জানিয়েছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এটি আগামী ৪-৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠার ব্রতে নিয়োজিত বরেণ্য ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, কবি, সাহিত্যিক, শিক্ষাবিদ, বিজ্ঞানী, শিল্পী, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, বুদ্ধিজীবীরা অংশ নেবেন। এতে বিশ্বের ৫০টি দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন। এদের মধ্যে ৬০ জন প্রতিনিধি সশরীরে আসবেন। আর ৪০ জন প্রতিনিধি ভার্চ্যুয়ালি অংশ নেবেন।

করোনার নতুন ধরন প্রসঙ্গে ড. মোমেন বলেন, সাউথ আফ্রিকা থেকে আসা বন্ধ করে দিয়েছি। আগে যারা আসছে তাদেরও চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। আমরা আমাদের আফ্রিকা দূতাবাসে বার্তা পাঠিয়েছি, বলেছি সেখানে যারা আছেন এখন যেন তাদের দেশে আসতে নিরুৎসাহিত করা হয়।

এবিষয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানান, প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ আগামী ৪ ডিসেম্বর বিকেলে ভার্চ্যুয়ালি সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। আর ৫ ডিসেম্বর সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সম্মেলনে রাজনীতিবিদ, শিল্পী, সাহিত্যিক অংশ নেবেন। সম্মেলনে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন, নোবেল জয়ী কৈলাশ সত্যার্থী, ইউনেস্কোর মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা, ব্রিটেনের সাবেক ফার্স্ট লেডি শেরি ব্লেয়ার অংশ নেবেন।

আরও পড়ুন


করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

রামপুরায় আজও শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

অনলাইন ডেস্ক

রামপুরায় আজও শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

ফাইল ছবি

গাড়িচাপায় কলেজছাত্র মাঈনুদ্দিন নিহতের ঘটনার বিচার ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আজও রাজধানীর রামপুরা এলাকায় সড়ক আটকিয়ে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা।  

বুধবার (১ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কয়েকশ' শিক্ষার্থী রামপুরা ব্রিজ এলাকায় অবস্থান নেয়।

রামপুরা ব্রিজ এলাকায় একরামুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ইম্পিরিয়াল কলেজ, ন্যাশনাল আইডিয়াল কলেজ, আলাতুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ক্যামব্রিয়ান কলেজ, গুলশান কমার্স কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছে।

শিক্ষার্থীদের টানা আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীতে বাসে অর্ধেক ভাড়ার দাবি মেনে নেওয়ার ঘোষণা দেয় পরিবহন মালিক সমিতি।

তবে শিক্ষার্থীদের ভাষ্য, নিরাপদ সড়কের জন্য তাদের ৯ দফার মধ্যে একটি দাবি হচ্ছে অর্ধেক ভাড়া কার্যকর করা। বাকি দাবিগুলো না মানা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) দুপুর ২টা পর্যন্ত আমরা অবরোধ কর্মসূচি পালন করছি। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আমরা আজ আন্দোলনে নেমেছি। শিক্ষার্থীদের জন্য যতক্ষণ পর্যন্ত সড়ক নিরাপদ হবে না এ আন্দোলন আমরা চালিয়ে যাব।


আরও পড়ুন:

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি, কাটাখালীর মেয়র আটক

শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

আজ থেকে ঢাকার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক কার্যকর


রামপুরা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা শুনেছি শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমেছে। আগে থেকে ঘোষণা ছিল তারা আজকেও নামবে। তবে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে করোনার প্রকোপ বাড়লে আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে। আর এই বিষয়টি মাথায় রেখে শিক্ষার্থীদের সময়কে কাজে লাগাতে এবং ক্লাসে মনোযোগী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

বুধবার (০১ ডিসেম্বর) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে শিশু একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল উদ্বোধন এবং ধানমন্ডিতে জয়িতা টাওয়ারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, মনে রাখতে হবে যে এই করোনা ভাইরাস কিন্তু এখনো শেষ হয়ে যায়নি। আমরা ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু করেছি, এখন শিক্ষার্থীদেরও দিচ্ছি। বর্তমানে আবার নতুন আরেকটা ওয়েব আসছে। কাজেই এটা মাথায় রাখতে হবে যদি এটা বিস্তার লাভ করে তাহলে যেকোনো সময় আবার কিন্তু সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাবে।

যেটুকু সময় পাওয়া যাচ্ছে সবাইকে অন্তত যার যার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে গিয়ে শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। 

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘ছাত্রছাত্রীদের জন্য আমি আরেকটা কথা বলবো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন করোনার জন্য বন্ধ ছিল। এখন সমস্ত স্কুল-কলেজগুলো খুলে গেছে। সবাইকে এখন পড়াশোনা করতে হবে। যার যার স্কুলে ফিরে যেতে হবে।

আরও পড়ুন


গৃহবধূকে গভীর রাতে স্কুলে নিয়ে পালাক্রমে ৩ জনের ধর্ষণ

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর