স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে ফাঁকা মাঠে ফেলে গেল তারা
স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে ফাঁকা মাঠে ফেলে গেল তারা

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে ফাঁকা মাঠে ফেলে গেল তারা

অনলাইন ডেস্ক

ফরিদপুর সদর উপজেলায় সপ্তম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) জামাল পাশা প্রেস ব্রিফিংয়ে নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তাররা হলেন- ফরিদপুর সদরের আইজুদ্দিন ডাঙ্গী এলাকার শুকুর শেখের ছেলে আকাশ শেখ (১৮), সদরের পূর্বডাঙ্গী এলাকার আব্দুল রাজ্জাক শেখের ছেলে শিপন শেখ (১৯) ও ১৭ বছরের এক কিশোর।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গত ৭ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০টার দিকে কোতোয়ালি থানাধীন সুলতান নগর ডাঙ্গা এলাকার ১৩ বছরের এক স্কুলছাত্রী রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য বাইরে গেলে আকাশ শেখ তার ৩ থেকে ৪ জন সঙ্গী নিয়ে কিশোরীকে মুখ চেপে ধরে ইজিবাইকে তুলে নিয়ে যায়।

পরে পার্শ্ববর্তী চর মাধবদিয়া ইউনিয়নের আসির উদ্দিন মুন্সী ডাঙ্গী এলাকা সংলগ্ন হাওরের শ্যালো মেশিন ঘরে নিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। এ সময় কিশোরীকে মুমূর্ষু অবস্থায় ফাঁকা মাঠের মধ্যে ফেলে রেখে চলে যায় তারা।

পরে কিশোরী বাড়িতে গিয়ে তার মার কাছে সব ঘটনা বলে। স্বজনরা কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

রোববার (৭ নভেম্বর) ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

আরও পড়ুন:

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সে সুযোগ পাবে না পাকিস্তান: আমির

ফেরিটির ইঞ্জিনের পেছনের অংশ তোলার প্রক্রিয়া চলছে

দুই কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ দুই কিশোরের বিরুদ্ধে

ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া তিনজনকে মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) বিকেলে জেলার এক নম্বর আমলি আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ফরিদপুর কোতয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল খায়ের।

অভিযুক্তকে কীভাবে গ্রেপ্তার করা হলো প্রশ্ন করলে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরিদপুর সদর সার্কেল সুমন রঞ্জন সরকার জানান, প্রযুক্তির সহায়তায় ধর্ষণ মামলার আসামি আকাশ শেখকে সোমবার (৯ নভেম্বর) দিনগত রাত ১টা ৫০ মিনিটে ফরিদপুর সদরের টেপাখোলা বেড়িবাঁধ এলাকার মিলন পালের ইটের ভাটার পেছন থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

news24bd.tv/ তৌহিদ

সম্পর্কিত খবর

;