কিশোরীকে ফুসলিয়ে অপহরণ করে জোরপূর্বক ধর্ষণ, গ্রেপ্তার সেই ধর্ষক
কিশোরীকে ফুসলিয়ে অপহরণ করে জোরপূর্বক ধর্ষণ, গ্রেপ্তার সেই ধর্ষক

কিশোরীকে ফুসলিয়ে অপহরণ করে জোরপূর্বক ধর্ষণ, গ্রেপ্তার সেই ধর্ষক

অনলাইন ডেস্ক

সম্প্রতি কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ি থেকে এক কিশোরী নিখোঁজের ঘটনায় উদ্ধার অভিযানে নামে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ( র‍্যাব)। এ ঘটনায় ভিকটিমের পরিবার কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ি থানার গত ৭ নভেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।  

অবশেষে সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে র‌্যাব-১১, সিপিসি-৩, লক্ষ্মীপুর ও সিপিএসসি, র‌্যাব-১৩ রংপুর এর সমন্বয়ে একটি বিশেষ আভিযানিক দল নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থানার ৫নং ছয়ানী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভূপতি গ্রামের জনৈক আব্দুল মালেকের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অপহৃত ভিকটিম সালমা আক্তারকে (ছদ্মনাম) উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি অপহরণকারী ও ধর্ষক শাকিলকে (২২) আটক করেছে করা হয়েছে।

জানা গেছে, অপহরণকারী ও ধর্ষক শাকিল রংপুর জেলার কোতয়ালী থানার পূর্ব খাসবাগ গ্রামের মো. সেলিম মিয়ার ছেলে।

গতকাল মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১১ (সিপিসি-৩) লক্ষ্মীপুর ক্যাম্পের কম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মো. শামীম হোসেন।   

এক বিজ্ঞপ্তি বলা হয়েছে, সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের ছয়ানী ইউনিয়নের ভূপতিপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে রংপুর থেকে অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধার এবং অপহরণকারী ও ধর্ষককে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-১১ ও  সিপিএসসি, র‌্যাব-১৩ রংপুর।   

আরও পড়ুন:

চুরির অপবাদে শিকলে বেঁধে কিশোরকে নির্যাতন, চাচা গ্রেফতার

বিজ্ঞপ্তি আরো বলা হয়েছে, আটককৃত আসামি মো. শাকিল (২২) ভিকটিমকে (১৫) ফুসলিয়ে অপহরণ করে। এরপর নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের উদ্ধারকৃত স্থানে নিয়ে আসে এবং তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের পরিবার কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ি থানার গত ৭ নভেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। উদ্ধারকৃত ভিকটিম ও আটককৃত আসামির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে হস্তান্তরনামা মূলে র‌্যাব-১৩, রংপুর বরাবর হস্তান্তর করা হয়েছে।

news24bd.tv রিমু  

;