বকশিশ ৫০ টাকা কম দেয়ায় অক্সিজেন খুলে দিলো ওয়ার্ড বয়, রোগীর মর্মান্তিক মৃত্যু
বকশিশ ৫০ টাকা কম দেয়ায় অক্সিজেন খুলে দিলো ওয়ার্ড বয়, রোগীর মর্মান্তিক মৃত্যু

বকশিশ ৫০ টাকা কম দেয়ায় অক্সিজেন খুলে দিলো ওয়ার্ড বয়, রোগীর মর্মান্তিক মৃত্যু

Other

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শজিমেক) ওয়ার্ড বয় বকশিশের চাহিদামত টাকা না পেয়ে অক্সিজেন খুলে দেওয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে এ ঘটনা ঘটে।   নিহতের নাম বিকাশ চন্দ্র দাস (১৮)। তিনি গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার শিয়ালকুন্ডি গ্রামের বিশু দাসের ছেলে।

ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত ওয়ার্ডবয় পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ৪ সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

নিহতের চাচা শচীন চন্দ্র বলেন, তার ভাতিজা বিকাশ চন্দ্র সন্ধ্যা ৭টায় সাঘাটায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হয়। তাকে সাঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়।  

হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতালে ওয়ার্ড বয় স্টেচারে করে তৃতীয় তলায় সার্জারি বিভাগে নিয়ে গিয়ে ৫০০ টাকা দাবি করে। কিন্তু কাছে টাকা না থাকায় বিকাশের বাবা বিশু দাস ১৫০ টাকা দিতে চান কিন্তু ওয়ার্ড বয় তখন ২০০ টাকা দাবি করে। ৫০ টাকা তাৎক্ষণিক না পাওয়ায় ওয়ার্ড বয় রেগে গিয়ে টান দিয়ে অক্সিজেন মাস্ক খুলে দেয়। এর পরপরই বিকাশের শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। তখন তারা ওয়ার্ড বয়কে অক্সিজেন লাগিয়ে দেয়ার অনুরোধ করে কিন্তু ওয়ার্ড বয় ৫০ টাকা না দিলে লাগাবে না জানায়।

এরপর তারা নিজেরাই বিকাশের মুখে অক্সিজেন লাগিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। যখন তার ভাতিজার নাক দিয়ে শ্লেষ্মা বের হওয়া শুরু করে তখন ওয়ার্ড বয় পুনরায় অক্সিজেন লাগিয়ে দেয়। এরপর পর তার ভাতিজা আর শ্বাস নিচ্ছে না দেখে ওয়ার্ড বয় সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পরে ডাক্তার এসে রোগীকে মৃত ঘোষণা করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা জানান, অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আর শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ পরিচালক  ডা: আব্দুল ওয়াদুদ জানান, এরইমধ্যে ৪ সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। খুব দ্রুত দোষীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন


ভারতে তেল পাচার রোধে কঠোর অবস্থানে বিজিবি

news24bd.tv এসএম

;