ঘুমিয়েই কমাবেন ওজন
ঘুমিয়েই কমাবেন ওজন

ঘুমিয়েই কমাবেন ওজন

অনলাইন ডেস্ক

ওজন বেড়ে যাচ্ছে! কিভাবে কমাবেন,এ নিয়ে চিন্তার শেষ নেই অনেকের। তবে, সুখবর হল ঘুমিয়েই ওজন কমাতে পারবেন। কিভাবে জেনে নিন।

ঘুম কম হলে শরীরের ক্ষুধাপ্রক্রিয়ায় অন্যভাবে কাজ করে।

তাই রাত জেগে থাকলে উল্টোপাল্টা খাওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়। রক্তে শর্করা মাত্রা বেড়ে যেতে পারে এর ফলে। তাই ওজন বাড়তেও বেশি সময় লাগে না।  

১। যারা সন্ধ্যাবেলা শরীরচর্চা করেন, তাদের রক্তে শর্করার মাত্রা রাতে কম ওঠানামা করে বলে দেখা গেছে। তাই আপনি যদি ওয়েট ট্রেনিং করেন, তাহলে সেটা সকালের বদলে সন্ধ্যাবেলা করতে পারেন। শরীরের বিপাক হার শরীরচর্চার পর ১৬ ঘণ্টা পর্যন্ত বেশি থাকবে। তাই ঘুমের মধ্যেও শরীরে ক্যালোরি বেশি খরচ হবে।

২। ক্যাসেইন প্রোটিন এক ধরনের দুগ্ধজাত প্রোটিন, যা হজম হতে অনেকটা সময় নেয়। তাই রাতে যদি এই ধরনের কোনো প্রোটিন শেক খেতে পারেন, তাহলে সারা রাত ধরে আপনার হজম প্রক্রিয়া সচল থাকবে। ক্যালোরিও ঝরবে।
 
৩। শরীরচর্চা করার পর যদি ঠান্ডা পানিতে গোসল করতে পারেন, তাহলে শরীরে থেকে ল্যাকটিক অ্যাসিড বেরিয়ে যেতে সাহায্য করবে। আমাদের শরীরে ব্রাউন ফ্যাটের পরিমাণে খুব কম থাকে। কিন্তু এটি সক্রিয় থাকলে শরীরের বিপাক হার বেড়ে অনেকক্ষণ পর্যন্ত ক্যালোরি ঝরাতে পারে। ৩০ সেকেন্ড যদি বরফ-ঠান্ডা পানিতে গোসল করতে পারেন, তা হলে শরীরের ব্রাউন ফ্যাট সক্রিয় হয়ে ঘুমের মধ্যেও ৪০০ ক্যালোরি পর্যন্ত ঝরাতে পারে।
 
৪। গ্রিন টি শরীরের বিপাক হার বাড়াতে সাহায্য করে। দিনে যদি ৩ কাপ চা খান, তার মধ্যে শেষ কাপটি ঘুমের আগে তা হলে ঘুমের মধ্যে ৩.৫ শতাংশ বেশি ক্যালোরি ঝরতে পারে।

আরও পড়ুন:

প্রেমিকের বাড়িতে একসঙ্গে ৪ তরুণীর অনশন, ধরা পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

বিয়ের পূর্বে যৌনতা যে গ্রামের রীতি

 ৫। ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং করেন কি? যেই খাদ্যাভ্যাসে দিনে ১৬ ঘণ্টা না খেয়ে বাকি ৮ ঘণ্টা খাওয়া যায়। এতে জমিয়ে রাখা সব সুগার শেষ হয়ে গিয়ে ফ্যাট ঝরিয়ে এনার্জি পায় শরীর। তাই ঘুমের মধ্যেও অনেকটা ক্যালোরি ঝরে।
 
সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

news24bd.tv রিমু   

;