ঘুমন্ত সুমাইয়ার আঙুল বিচ্ছিন্ন করল স্বামী, দেওয়া হল না পরীক্ষা
ঘুমন্ত সুমাইয়ার আঙুল বিচ্ছিন্ন করল স্বামী, দেওয়া হল না পরীক্ষা

ঘুমন্ত সুমাইয়ার আঙুল বিচ্ছিন্ন করল স্বামী, দেওয়া হল না পরীক্ষা

অনলাইন ডেস্ক

সুমাইয়া আক্তার। এসএসসি পরীক্ষার্থী সে। আজ রবিবার থেকে পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল তার। কিন্তু ঘুমন্ত সুমাইয়াকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে ডান হাতের আঙুল বিচ্ছিন্ন করল স্বামী সাইফুল।

তাই এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারলো না সুমাইয়া। বর্তমানে আহত সুমাইয়া মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।      

সুমাইয়ার পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় সাত মাস আগে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার বাঁশতৈল ইউনিয়নের আমড়াতৈল গ্রামের বিল্লাল হোসেনের ছেলে সাইফুল ইসলামের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। সুমাইয়া গোড়াই ইউনিয়নের সোহাগপাড়া এলাকার খাইরুল ইসলামের মেয়ে।

সাইফুল ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী।   

এক বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসার পর বাবার সঙ্গে আর্থিক বিষয়ে সাইফুলের দ্বন্দ্ব চলছিল। পরে গত রবিবার শ্বশুরবাড়িতে আসেন সাইফুল। মূলত পরিবারের খরচ চালাতে না পারার হতাশা থেকেই তিনি কুপিয়েছেন। শুক্রবার ভোরে সুমাইয়াকে ঘুমন্ত অবস্থায় বঁটি দিয়ে কোপাতে থাকেন সাইফুল। আত্মরক্ষা করতে গিয়ে সুমাইয়ার ডান হাতের আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়। চিৎকার শুনে মা ও বোন এগিয়ে গেলে সাইফুল তাঁদেরও কুপিয়ে আহত করেন। পরে তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 আরও পড়ুন:

শীতে আমলকি যেভাবে সাহায্য করে

নিষিদ্ধ হচ্ছে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের কনটেন্ট


গোড়াই উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে সুমাইয়ার এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল।

চিকিৎসাধীন সুমাইয়া বলেন, ‘আমার সহপাঠীরা সবাই পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। আমার মা কষ্ট করে আমাকে লেখাপড়া করিয়েছেন। ’

news24bd.tv রিমু