স্কুলের সহপাঠী থেকে প্রতিপক্ষ

অনলাইন ডেস্ক

স্কুলের সহপাঠী থেকে প্রতিপক্ষ

আজ থেকে ১২ বছর আগে স্কুলের হয়ে একসঙ্গে লড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার অলরাউন্ডার মার্কাস স্টোনিস এবং নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যান ড্যারিল মিচেল। আজও আরেকটি লড়াইয়ে নামছেন এই দুই ক্রিকেটার। তবে এবার আর একসঙ্গে নয়, দুই সাবেক সহপাঠী প্রতিপক্ষ হিসেবে মাঠে নামছেন আজ।

২০০৯ সালে স্কারবরোর হয়ে ফার্স্ট গ্রেড প্রিমিয়ারশিপ জিতেছিলেন ড্যারেল মিচেল এবং মার্কাস স্টোনিস। সেসময় স্কুলকে জেতাতে বড় অবদান ছিল এই দুই ক্রিকেটারের। সেমিফাইনালে স্টোইনিস করেছিলেন ১৮৯ রান। আর ফাইনালে বল হাতে মাত্র ২৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন মিচেল।

Marcus Stoinis and Darrell michael

তখন তাদের কোচ ছিলেন জাস্টিন ল্যাঙ্গার। সেই ল্যাঙ্গার এখন অস্ট্রেলিয়ার প্রধান কোচ। তবে স্টোনিস দলে থাকলেও আজ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ ড্যারিল মিচেল।

এক-দু'বছর নয়, দীর্ঘ পাঁচ বছর একসঙ্গে খেলেছিলেন এই দুই ক্রিকেটার। তার পরে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলার জন্য দু’জনেই পার্থ ছাড়েন। স্টোইনিস মেলবোর্নে গিয়ে ভিক্টোরিয়ায় যোগ দেন। অন্য দিকে ২০১১ সালে অস্ট্রেলিয়া ছেড়ে নিউজিল্যান্ডে পাড়ি দেন মিচেল। সেখানে গিয়ে নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টসের হয়ে খেলা শুরু করেন তিনি।

আজ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে আলাদা পতাকা বুকে নিয়ে মাঠে নামবেন দুজনেই। কিন্তু আজ আর একসঙ্গে জেতা হবে না।

আরও পড়ুন:

কাজাখস্তানের জালে ফ্রান্সের গোল উৎসব


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

বাদ পড়া সেই মুশফিক-লিটনের ব্যাটেই স্বপ্ন

অনলাইন ডেস্ক

বাদ পড়া সেই মুশফিক-লিটনের ব্যাটেই স্বপ্ন

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিন শেষে বেশ ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। ৪ উইকেট হারিয়ে স্কোরকার্ডে ২৫৩ রান তুলে প্রথম দিন শেষ করেছে তারা।

মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের সামর্থ্য এবং যোগ্যতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। টেকনিক্যালি দুজনেই দুর্দান্ত ব্যাটসম্যান। বিপর্যয়ে হাল ধরার অনেক নজির আছে দুজনের। টেস্ট সিরিজে আস্থা রাখেন দুজনের ওপর। তার প্রতিদানও দেন লিটন ও মুশফিক। খাঁদের কিনারায় থাকা দলকে দুজনে রেকর্ড জুটি গড়ে নিয়ে যান শক্ত অবস্থানে। পঞ্চম উইকেট জুটিতে দুজনের অবিচ্ছিন্ন ২০৪ রানের জুটিতে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন ৪ উইকেটে ২৫৩ রান করেছে বাংলাদেশ। জুটি গড়ার পথে নান্দনিক ব্যাটিংয়ে ১১৩ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন লিটন। যা তার ২৬ টেস্ট ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরি। দেশের সবচেয়ে সিনিয়র ও অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুশফিক অপরাজিত রয়েছেন ৮২ রানে।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য সহায়ক ছিল। সেটি দেখেই টস জিতে ব্যাটিং নিতে ভুল করেননি বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। কিন্তু অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে আরও একবার সঠিক প্রমাণ করতে ব্যর্থ বাংলাদেশের টপ অর্ডার। স্কোরবোর্ডে ৪৯ রান উঠতেই সাজঘরে ফিরে যান সাইফ হাসান, সাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক ও নাজমুল হোসেন শান্ত। 

সকালেই দ্রুত উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ দল যখন সর্ষে ফুল দেখছিল, তখনেই দৃশ্যপটে মুশফিক আর লিটন। দুজনে প্রথমে দেখেশুনে খেলতে থাকেন পাকিস্তানের বোলারদের। তবে একই সঙ্গে বাজে বল হলেই চুকিয়ে দিয়েছেন মূল্য। ঠান্ডা মাথায় এর মধ্যে দুজনে শেষ করেছেন প্রথম দিন।

আরও পড়ুন: 


ফখরুল বললেন, আন্দোলন-আন্দোলন-আন্দোলন

ধর্ষণ মামলায় জামিন: ক্ষমা চাইলেন বিচারক


 

২০১৯ সালে হ্যামিল্টনে সৌম্য সরকার-মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ করেছিলেন ২৩৫ রান। লিটন ১১৩ রানের অপরাজিত ইনিংসটি খেলেন ২২৫ বলে ১১ চার ও ১ ছক্কায়। ২৬ টেস্টে এটা তার প্রথম সেঞ্চুরি। দৃষ্টিনন্দন সেঞ্চুরির ইনিংসটি কিন্তু নিশ্চিদ্র ছিল না। ব্যক্তি ৬৭ রানের মাথায় সহজ জীবন পান লিটন। শাহীন আফ্রিদিকে পুল খেলেন লিটন। ডিপ মিড উইকেটে সাজিদ ফেলে দেন সহজ ক্যাচ। দলের স্কোর তখন ৬৫ ওভারে ৪ উইকেটে ১৮৯ রান। ২৬ নম্বর টেস্টে লিটন প্রথম সেঞ্চুরি পান।

এর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৯৪ ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৯৫ রানে আউটের রেকর্ড রয়েছে তার। মুশফিক অপরাজিত রয়েছেন ৮২ রানে। ১৯০ বলের ইনিংসটিতে রয়েছে ১০টি চার। ৭৬ টেস্ট ক্যারিয়ারে সাবেক অধিনায়কের এটা ২৪ নম্বর হাফসেঞ্চুরি। তার রান ৪৭৭৮। টেস্টে তামিম ইকবালকে টপকে বাংলাদেশের সর্বাধিক রানের মালিক হতে মুশফিকের চাই আর মাত্র ১১ রান। বাঁ-হাতি ওপেনার তামিমের রান ৪৭৮৮। তবে জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে তিনি এখন সর্বধিক রানের মালিক। ৮২ রানের ইনিংস খেলার পথে তিনি পেছনে ফেলেন টাইগার টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুলকে। ১৮ টেস্টে মুশফিকের রান ১২৭৬ এবং মুমিনুলের রান ১১ টেস্টে ১২০৩ রান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

লিটন-মুশফিকের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়িয়েছে টাইগাররা

অনলাইন ডেস্ক

লিটন-মুশফিকের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়িয়েছে টাইগাররা

লিটন দাস

পাকিস্তানের বিপক্ষে শুরুতে চার উইকেট হারিয়ে প্রথমে চাপের পড়ে টাইগাররা। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়ায় লিটন-মুশফিকের ব্যাটে। লিটন তুলেন নেন সেঞ্চুরি। ১৯৯ বলে ১০ চার ও এক ছক্কায় শত রান করেন তিনি।

প্রথম দিন শেষে লিটন-মুশফিকের ব্যাটে ভর করে বড় সংগ্রাহের পথে টাইগাররা। লিটনের ১১৩ সঙ্গে মুশফিক ব্যাট করছেন ৮২রানে। প্রথম দিনে বাংলাদেশের স্কোর ২৫৩।  

চট্টগ্রাম টেস্টে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে দলীয় ১৯ রানের মাথায় ১৪ রান করে ফিরে যান ওপেনার সাইফ হাসান। শাহীন আফ্রিদির একটি বাউন্স ঠেকাতে গিয়ে পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা ফিল্ডার আবিদ আলির হাতে সহজ ক্যাচ তুলে দেন তিনি। 

আরও পড়ুন


ভাইরাল ছবি হাছান মাহমুদের নয়!


অপর ওপেনার সাদমান ইসলামও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ৩৩ রানের সময় তিনিও মাত্র ১৪ রান করে আউট হয়ে যান। হাসান আলির দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন এই ব্যাটার।

এরপর ক্রিজে আসেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। মাত্র ৬ রান করেছেন তিনি। স্পিনার সাজিদ খানের বলে উইকেটকিপার মোহাম্মদ রিজওয়ানের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ক্যাপ্টেন। 

এরপর দলের রানের খাতায় ২ রান যোগ করতেই দল হারায় আরো একটি উইকেট। এবার ফাহিম আশরাফের শিকার ওয়ানডাউনে নামা নাজমুল শান্ত। তিনি সাজিদ খানের হাতে ক্যাচ তুলে দেন। এই তরুণও ১৪ রান করেন। 

ফলে ৪৯ রানেই চার উইকেট হারায় টাইগাররা।

বাংলাদেশ দল: 

সাদমান ইসলাম, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস (উইকেটকিপার), ইয়াসির আলী, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহী, ইবাদত হোসেন।

পাকিস্তান দল: 

আব্দুল্লাহ শফিক, আবিদ আলী, আজহার আলী, বাবর আজম (অধিনায়ক), ফাওয়াদ আলম, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটকিপার), ফাহিম আশরাফ, নওমান আলী, হাসান আলী, শাহীন শাহ আফ্রিদি, সাজিদ খান।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

মুশফিক-লিটনের দুর্দান্ত জুটিতে দুইশো পেরোলো বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক

মুশফিক-লিটনের দুর্দান্ত জুটিতে দুইশো পেরোলো বাংলাদেশ

দ্বিতীয় সেশনে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম সেশনটা ছিল বাংলাদেশের জন্য ছিলো দুঃস্বপ্নের। পাকিস্তাানি বোলারদে তোপে পড়ে ২৮ ওভারে রান উঠেছিল ৬৯। আর তাতেই হারাতে হয় চারটি উইকেট। তবে দ্বিতীয় সেশনে পুরোপুরি ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) সকাল ১০টায় ম্যাচটি শুরু হয়।

লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহের পথে এগুচ্ছে বাংলাদেশ। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৭২ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে ২১১ রান করেছে স্বাগতিকরা। 

আরও পড়ুন


রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চেয়ে বিদেশে যেতে হবে খালেদাকে: হানিফ

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বের হয়ে যাওয়া ও বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ

সিলেট থেকে বিদেশে পণ্য রপ্তানির ব্যবস্থা করা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী


লিটন দাস ৮৫ রান ও মুশফিকুর রহিম ৭০ রানে ক্রিজে রয়েছেন। বাংলাদেশের হয়ে পঞ্চম উইকেটে এটি সর্বোচ্চ রানের জুটি। এ পথে মেহরাব হোসেন-মুশফিকের গড়া ১৪৪ রানের জুটি টপকে গেলেন লিটন-মুশফিক। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

রিজওয়ানের বাংলা শুনে হাসলেন লিটন (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

রিজওয়ানের বাংলা শুনে হাসলেন লিটন (ভিডিও)

বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচের দৃশ্য।

৪ উইকেট হারিয়ে যখন দিশা খুঁজে পাচ্ছিল না বাংলাদেশ ঠিক তখনি হাল ধরেছেন মুশফিক-লিটন। এ জুটির ব্যাটিং উপভোগ করছেন পাকিস্তানের উইকেটকিপার মোহাম্মদ রিজওয়ানও। সতীর্থদের উৎসাহ দিচ্ছেন নানা কথা বলে। এর ফাকে হঠাৎ করে উইকেটের পেছনে থেকে বাংলা বলা শুরু করেছেন তিনি। বললেন - ভালো ভালো, ভালো বলিং।

আরও পড়ুন:


স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বের হয়ে যাওয়া ও বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ


 

বাংলা বলার ঘটনাটি ঘটে ৪৭তম ওভারে। বল করছিলেন বাঁহাতি অর্থডক্স বোলার নোমান আলি। তার তৃতীয় ডেলিভারিটি ডিফেন্স করেন লিটন। এসময় রিজওয়ান বলেন, ‌‘ভালো ভালো, ভালো বলিং’।

রিজওয়ানের বাংলা শুনে হেসে দেন লিটন দাস।

উইকেটের স্টাম্পের রাখা মাইকে সে কথা শোনা যায় স্পষ্টই। বিষয়টি নিয়ে ওই সময় আলোচনা করেন ধারাভাষ্যকার শামীম আশরাফ।

ভিডিও

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রাম টেস্ট: দ্বিতীয় সেশনে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রাম টেস্ট: দ্বিতীয় সেশনে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ

মুশফিক-লিটনে এগুচ্ছে বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করছে বাংলাদেশ। দিনের প্রথম সেশনটা ছিল বাংলাদেশের জন্য দুঃস্বপ্নের। চারটি উইকেট হারাতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। ২৮ ওভারে রান উঠেছিল ৬৯। তবে দ্বিতীয় সেশনে এসে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ।

লিটন দাস এবং মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহের পথে টাইগাররা। ক্রিজে থাকা দুইজনই অর্ধশতক তুলে নিয়েছেন। শতরানের জুটিও গড়লেন তারা।

টি-টোয়েন্টিতে বাজে ফর্মে থাকা লিটন চট্টগ্রাম টেস্টে ৯৫ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন। ৪৯তম ওভারে নওমান আলীকে চার মেরে ফিফটি করেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ২৭ বছর বয়সী উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নিজের দশম ফিফটি করলেন। এর দুই ওভার আগে সাজিদ খানকে একটি ছক্কাও মারেন লিটন।

আরও পড়ুন


রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চেয়ে বিদেশে যেতে হবে খালেদাকে: হানিফ

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বের হয়ে যাওয়া ও বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ

সিলেট থেকে বিদেশে পণ্য রপ্তানির ব্যবস্থা করা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী


লিটন দাসের পর হাফ সেঞ্চুরি হাঁকান দলের আরেক অভিজ্ঞ ব্যাটার মুশফিকুর রহীম। ক্যারিয়ারের ২৪ তম হাফ সেঞ্চুরি তিনি তুলে নিলেন ১০৮ বল খেলে। হাসান আলিকে বাউন্ডারি মেরেই অর্ধ শতকের ঘরে পা রাখেন তিনি।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৫৯ ওভারে চার উইকেটে ১৭১ রান করেছে বাংলাদেশ।  মুশফিক ৫৫ ও লিটন দাস ৬২ রানে ব্যাট করছেন। 

বাংলাদেশ একাদশ : সাদমান ইসলাম, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, ইয়াসির আলী রাব্বী, লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহি, ইবাদত হোসেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর