পিঁপড়ার কামড় খেয়ে দিতে হবে পুরুষত্বের প্রমাণ!
পিঁপড়ার কামড় খেয়ে দিতে হবে পুরুষত্বের প্রমাণ!

পিঁপড়ার কামড় খেয়ে দিতে হবে পুরুষত্বের প্রমাণ!

অনলাইন ডেস্ক

ছোট্ট এক প্রজাতি পিঁপড়া। এই পিঁপড়ার কামড় খেয়ে যদি আপনাকে দিতে হয় পুরুষত্বের প্রমাণ! কি বলবেন আপনি? হ্যাঁ, সত্যিই এমন অদ্ভুত ঘটনাও আছে এই আধুনিক বিশ্বে। যেমন আমাজনের সাতেরে মাওয়ে উপজাতির পুরুষদের পুরুষত্বের প্রমাণ দিতে খেতে হয় বিষাক্ত পিঁপড়ার কামড়।

বহু বছর ধরে চলে আসা এই প্রথায় বুলেট নামক ভিমরুলের আকৃতির দসেই পিঁপড়ার বিষাক্ত কামড় সহ্য করতে পারলেই প্রকৃত যোদ্ধা হওয়া যাবে সেখানকার পুরুষরা।

জানা গেছে, আমাজনের এই পিঁপড়ার নাম প্যারাপোনেরা ক্লাভাটার, যার এক কামড়ে ২৪ ঘণ্টা একটানা ব্যথা থাকে। এমনকি গুলিবিদ্ধ হওয়ার মতই যন্ত্রণাদায়ক সেই ব্যথা। যা অনেকেই সহ্য করতে না পেরে অজ্ঞান হয়ে যায়। কিন্তু সাতেরে মাওয়ে উপজাতির মধ্যে যারা শেষ পর্যন্ত টিকে থাকতে পারে তারাই বীরপুরুষের খেতাব পেয়ে যায়।

পিঁপড়াগুলোকে জঙ্গল থেকে সংগ্রহ করে এক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে নির্ধারিত ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী পাতা দিয়ে তৈরি পিঁপড়ার গ্লাভসটি পরিয়ে দেওয়া হয়। একজন পুরুষকে সারা জীবনে ২০ বার বিষাক্ত পিঁপড়ার কামড় সহ্য করতে হয়।

বারো বছর বয়স থেকেই এই পরীক্ষা শুরু হয়। কম বয়সী ছেলেরা পাঁচ মিনিট, বয়স বাড়লে অবশ্য দশ মিনিট বা তারও বেশি সময় এই পরীক্ষা দিতে হয়।

আরও পড়ুন:


আমি বাঘ, না ভাল্লুক: মুশফিক


এই অগ্নিপরীক্ষার সময় যখন ছেলেটি যন্ত্রণায় কাতরায় তখন বাকিরা গান এবং নৃত্যে ব্যস্ত থাকে। কঠিন এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে তবেই একজন সাতেরে মাওয়ে পুরুষ পান শারীরিক সম্পর্ক করার অনুমতি।

news24bd.tv রিমু