তরুণীর সাথে আ.লীগ নেতার আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল
তরুণীর সাথে আ.লীগ নেতার আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল

তরুণীর সাথে আ.লীগ নেতার আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল

Other

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল কাদেরের সাথে এক তরুণীর আপত্তিকর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযাগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনার পর যেন ভুক্তভোগী ওই তরুণী আইনের আশ্রয় নিতে না পারে এজন্য তাকে চেয়ারম্যানের লোকজন জোরপূর্বক তুলে নিয়ে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে স্থানীয় আ.লীগ নেতৃবৃন্দ তার পদত্যাগসহ অনৈতিক কাজের জন্য তাকে দল থেকে বহিস্কারের দাবি জানিয়েছেন।   

গতকাল বুধবার ভাইরাল হওয়া এক মিনিট ১৩ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা যায় উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের অফিস কক্ষে এক তরুণীর সাথে অশালীন আচরণ করছেন।

এসময় তিনি ভিডিও করার বিষয়টি আঁচ করতে পেয়ে ভিওি করচো নাকি এমন প্রশ্ন করলে অন্য এক নারী কন্ঠে শোনা যায় যে, তিনি মোবাইলে গান দেখছেন, ভিডিও করছেন না।  

 নাম প্রকাশ না করার শর্তে আব্দুল কাদেরের ঘনিষ্ঠ একজন জানান, ভিডিওটি কিছুদিন আগে উপজেলা পরিষদের পুরাতন ভবনে তোলা হলেও প্রতিপক্ষরা এতদিন পর তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ওই সময় ওই কক্ষে আরও চারজন নারী ছিলেন এবং প্রায় সময় ওই নারীদের নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান তার অফিস কক্ষে মনোরঞ্জন করে থাকেন।  

তবে এ ব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এদিকে ভিডিওটি ফাঁস হয়ে পড়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন জন বিভিন্ন মন্তব্য করছেন এবং ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে তার ভাগ্নেসহ ঘনিষ্ঠ কয়েকজন বিভিন্ন সংস্থার লোকজনকে ম্যানেজ করার জন্য তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।  

এ প্রসঙ্গে নাচোল থানার ওসি মোঃ সেলিম রেজার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি জানেন না এবং কেউ অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:


কাল শতাব্দীর দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ, কোথায় এবং কখন দেখা যাবে!

শীতে সুস্থ থাকতে খাবারে রাখুন ৬ ফল


উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা  চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরের নারী ঘটিত কেলেঙ্কারীর ভিডিও ফাঁস হয়েছে সে বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাদারণ সম্পাদক কামাল আহমেদুজ্জোহা পলাশ বলেন, ঘটনাটি অত্যন্ত দূঃজনক ও লজ্জাজনক। এসমস্ত চরিত্রহীন ব্যক্তির কারণে দলের ভাবমুর্তি নষ্ট হচ্ছে। তাই এই চরিত্রহীন ব্যক্তিকে দল থেকে বহিস্কারসহ তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, একজন ব্যক্তি কোন অপকর্ম করলে সেটা তার পরিবারের ওপর পড়ে, কিন্তু দলের কোনো একজন নেতা কোন অপকর্ম করলে সেটা সমস্ত দলের ওপর প্রভাব পড়ে। তাই তাকে অবিলম্বে দল থেকে বহিস্কার করা দরকার বলে মনে করেন তিনি।

news24bd.tv রিমু