হাত-পা বেঁধে বারবার ধর্ষণ, ৩ দিন পর ভোরে রেখে যায় ধর্ষক
হাত-পা বেঁধে বারবার ধর্ষণ, ৩ দিন পর ভোরে রেখে যায় ধর্ষক

প্রতিকী ছবি

হাত-পা বেঁধে বারবার ধর্ষণ, ৩ দিন পর ভোরে রেখে যায় ধর্ষক

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার কোমরগঞ্জ এলাকায় ৯ বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মো. জনিকে (৩২) নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনা জানাজানির পর স্থানীয় জনগণ অভিযুক্ত যুবক জনিকে পুলিশে ধরিয়ে দিয়েছে।

নির্যাতিতা ওই শিশুকে হাত-পা বেঁধে ৩ দিন ধরে নিজ ঘরে আটকে রেখে ধর্ষণ করে সে। শনিবার ভোরে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় শিশুটিকে তার বাড়ির সামনে রেখে যায় সে।

জনি উপজেলার কোমরগঞ্জ এলাকায় হাসিম মেম্বারের বাড়িতে ভাড়া থাকে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তার গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনা জেলায়। তার পিতার নাম মো. নুরল ইসলাম।

এ ব্যাপারে নবাবগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপ-পরিদর্শক শ্রী অজিত কুমার রায়।  

স্থানীয়রা জানান, গত তিন দিন ধরে নির্যাতিতা শিশুকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। শিশুটির খোঁজ পেতে মাইকিংও করেন তার স্বজনরা। পরে শনিবার ভোরে শিশুটিকে অভিযুক্ত ধর্ষক জনি হাত-পা বাঁধা ও মুখে টেপ লাগানো অবস্থায় বসত ঘরের সামনে রেখে যায়। শিশুটির নিজ মুখে ঘটনার বিবরণ শুনে তার বাবা-মা স্থানীয়দের জানালে এলাকাবাসী জনিকে আটক করে পুলিশে দেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত জনির বোন ময়না আক্তার (৩৬) বলেন, আমার ভাই দোষী হলে দেশের প্রচলিত আইনে তার বিচার করা হোক। ভুক্তভোগী পরিবার অভিযুক্ত জনির শাস্তি দাবি করেছে।  

আরও পড়ুন


কোম্পানীগঞ্জে আ.লীগ সভাপতির বাড়িতে ককটেল বিস্ফোরণ ও ভাংচুর

news24bd.tv এসএম