পাকিস্তানকে সাপোর্ট করা যাবে না দেশে এমন নিয়ম নেই
Breaking News
পাকিস্তানকে সাপোর্ট করা যাবে না দেশে এমন নিয়ম নেই

রুবাইয়াত সাইমুম চৌধুরী

পাকিস্তানকে সাপোর্ট করা যাবে না দেশে এমন নিয়ম নেই

Other

পাকিস্তানের খেলাতে পতাকা নিয়ে সাপোর্ট করা আর তাদের সাপোর্টারদের কে জানি জিতে পিটা করেছে সেটা নিয়ে অনেকগুলো খবর আর স্টাটাস পড়লাম। দুই পক্ষই 'নাহি দিবো সূচাগ্র মেদেনী' টাইপের অনড়।  

আমার মনে হয়েছে - দেশে যেহেতু আইন নাই যে পাকিস্তানকে সাপোর্ট করা যাবে না, তাই পাকিস্তানকে সাপোর্ট করা তাদের ব্যক্তি স্বাধীনতা। তাদের ইচ্ছে তারা করবে।  

পাকিস্তানীরা আমাদের উপরে জুলুম করেছিলো, খুন করেছিলো, ধর্ষন করেছিলো এগুলো যেমন সত্য, ঠিক এটাও সত্য যে পাকিস্তানকে সাপোর্ট করার অধিকার যারা পাকিস্তানকে সাপোর্ট করছে তাদের আছে। দেশে তাদের সাপোর্ট করা যাবে না এমন নিয়ম নেই।  

যারা জুতো পিটা করাকে বিশাল বড় কাজ মনে করছেন, তারা ভুল করছেন। এটা সমাধান না। বরং এতে তাদের নিজেদের দীনতাই প্রকাশ পায়। তাদের ভাবা উচিত কেন দেশে পাকিস্তানের এত সাপোর্টার বাড়লো? 

দেশে তো, ভাই ভাইকে ভালোবাসতে হবে এমন আইন নাই, বাবা-মা সন্তানকে ভালোবাসবে- তার ভালো চাবে এমন আইন নাই। দেশে তো আপনাকে সামাজিকতা মেইনটেইন করতে হবে এমন আইন নাই। এমনকি বিয়ের দাওয়াত পেলে যেতে হবে এমন আইনও নাই। তার পরেও বেশীরভাগ (৯৫%) মানুষ, এই দেশেরই মানুষ, এসব করেন। কারণ এসব করা ভালো, উচিত এবং মনুষত্ব্যর লক্ষণ।
 
তাহলে কেন দেশে পাকিস্তানের সাপোর্টার বাড়লো?? কেন যেটা স্বাভাবিক, যেটা হবার কথা ছিলো সেটা হলো না? ভাবতে হবে। ভালো মতো ভাবতে হবে।  

১৯৭১ এ কিন্তু পাকিস্তানে পটকার মতো বোমা ফুটতো না। মসজিদে নামাজ পড়তে যেয়ে, স্কুলে বাচ্চারা ক্লাস করতে যেয়ে বোমা আর গুলি খেয়ে মরতো না। একদিনে পাকিস্তানের এ অবস্থা হয় নি।  

আমাদের ভাবতে হবে আমাদের তরুণদের মাঝে পাকিস্তান প্রীতি বাড়ছে কেনো? কী তাদেরকে টানছে?

ফিলিস্তিনীরা ইজরায়েলকে সাপোর্ট করছে না, ইরানীরা-ইরাকিদের সাপোর্ট করছে না। ইয়েমেনীরা সৌদিদের সাপোর্ট করছে না। আর্জেন্টাইনরা ইংরেজদের সাপোর্ট করছে না। তাহলে বাঙ্গালীরা কিসের টানে পাকিস্তানীদের সাপোর্ট করছে? কেন করছে??? 

বুঝতে হবে। খুব গভীর ভাবে ভাবতে হবে। আর সেই সমস্যার সমাধান করতে হবে।
 
আহমেদ ছফা বলেছিলো “বাংলাদেশ থেকে সেকুলার অংশ বাদ দিলে যা থাকে তাই পাকিস্তান”।  

১৯৭১-২০২১। জিডিপি বাড়ছে, সাথে দারিদ্রতাও বাড়ছে। মানুষের গড় আয়ু বাড়ছে , সাথে কষ্ট করার সময়ের দৈর্ঘ্যও বাড়ছে। গড় আয় বাড়ার খুশিতে ঢেকুর তোলা কারো পাশেই, সংসার চালাতে হিমশিম খাওয়া কারো চোখ থেকে দু ফোটা পানি গড়িয়ে পড়ছে। শিক্ষার বেহাল দশার মাঝেও কথিত বুদ্ধি সমাজের জোর করে 'শিক্ষার মান বাড়েছে' এই গল্প আমাদের গিলাবার প্রতিযোগিতা বাড়ছে।
 
আমাদের ভাবতে হবে কেনো পাকিস্তানের সাপোর্টার দেশে বাড়ছে। পাকিস্তান একদিনে সকাল-সন্ধ্যা বোমা ফোটে এমন দেশ হয় নি। আমাদের দেশেও এক দিনে পাকিস্তানের সাপোর্টার বাড়ে নি। আমাদের ভাবতে হবে। বুঝতে হবে। সমস্যার সমাধান করতে হবে। নাহলে?

উদাহরন তো আমরা চোখের সামনেই দেখছি।

আরও পড়ুন:

মাঠে যারা পাকিস্তানের পতাকা উড়িয়েছে তারা সোজা-সরল ছাগল


news24bd.tv/ নকিব