অযথা টেস্ট বা ওষুধ দেবেন না: চিকিৎসকদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী
অযথা টেস্ট বা ওষুধ দেবেন না: চিকিৎসকদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক

অযথা টেস্ট বা ওষুধ দেবেন না: চিকিৎসকদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

রোগীদের অযথা টেস্ট বা ওষুধ না দেওয়ার জন্য চিকিৎসকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, দেশে বেসরকারি পর্যায়ে প্রয়োজনের অতিরিক্ত পরীক্ষা রোগীদের দিয়ে করানো হচ্ছে। এতে রোগীর খরচ বাড়ছে। তাই চিকিৎসকদের প্রতি অনুরোধ, রোগীদের অযথা পরীক্ষা দেবেন না।

 

 স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্যসেবা নিতে গেলে ব্যক্তির পুরো খরচের ৬৮ ভাগ খরচ তার পকেট থেকে। এর মধ্যে ওষুধের খরচ পড়ে ৬৪ ভাগ। আমরা সরকার থেকে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণের চেষ্টা করছি যেন এই খরচ আরও কমিয়ে আনা যায়। এজন্য আমাদের ডাক্তার এবং নার্সদেরকে আরও সচেতন হতে হবে এবং সাধারণ জনগণকেও সচেতন হতে হবে। যে ওষুধের দরকার নেই বা যে টেস্টের দরকার নেই, সেগুলো করা থেকে বিরত থাকতে হবে। এছাড়া শুধু ফান্ডিং বাড়িয়ে এই ব্যয় কমানো সম্ভব নয়। আমাদের কোয়ালিটি বাড়াতে হবে এবং ইথিক্যাল হতে হবে।  

রোববার (২১ নভেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাকালীন আমরা হিসাব করে দেখেছি যে, একটি রোগীর পেছনে সাধারণভাবে প্রত্যেক দিন খরচ হয় প্রায় ১৫ হাজার টাকা। সরকার বিনামূল্যে এ সময় চিকিৎসা দিয়েছেন এবং মিনিমাম ৮০ থেকে ৯০ ভাগ করোনায় আক্রান্ত মানুষ সরকারি স্বাস্থ্যসেবা নিয়েছেন।

আরও পড়ুন:


জাতীয় জাদুঘর প্রাঙ্গণ থেকে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য সরিয়ে নিতে চিঠি

এবার অন্যরকম পুরস্কার পেলেন জয়া

ইঁদুর মারার ফাঁদে প্রাণ গেল কৃষকের


তিনি বলেন, ইতোমধ্যে আমরা ৯ কোটি মানুষকে টিকা দিয়েছি। ৫ কোটি মানুষ দ্বিতীয় ডোজ সম্পন্ন করেছে এবং চার কোটি মানুষ প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছে। আমরা কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে করোনার টিকা দিচ্ছি এবং স্বাস্থ্যসেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছি।

কর্মশালায় স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়াসহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv নাজিম

;