নতুন যুগে প্রবেশ করছে আকাশ যোগাযোগব্যবস্থা
নতুন যুগে প্রবেশ করছে আকাশ যোগাযোগব্যবস্থা

নতুন যুগে প্রবেশ করছে আকাশ যোগাযোগব্যবস্থা

Other

অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি গতির এক নতুন যুগে প্রবেশ করছে আকাশ যোগাযোগব্যবস্থা। নতুন তৈরি উড়োজাহাজের গতি ঘণ্টায় ৬২৩ কিলোমিটার। যুক্তরাজ্যের প্রতিষ্ঠান রোলস-রয়েস উড়োজাহাজটি তৈরি করেছে।

রোলস-রয়েসের তৈরি এই বৈদ্যুতিক উড়োজাহাজ।

নাম দেওয়া হয়েছে স্পিরিট অব ইনোভেশন। প্রতিষ্ঠাটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তারা বিশ্বাস করে, বিশ্বের দ্রুতগতির উড়োজাহাজটি স্পিরিট অব ইনোভেশন। এই উড্ডয়নের তথ্য ওয়ার্ল্ড এয়ার স্পোর্টস ফেডারেশনে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন:

২ সালের ৩০ জুন খুলে দেওয়া হবে পদ্মাসেতু: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির সমাবেশ

ওয়ার্ল্ড এয়ার স্পোর্টস ফেডারেশন অ্যারোনটিক্যাল ও অ্যাস্ট্রোনটিক্যাল–সংক্রান্ত রেকর্ডের স্বীকৃতি দিয়ে থাকে। তথ্য অনুসারে, গত ১৬ নভেম্বর স্পিরিট অব ইনোভেশনের গতি পরীক্ষা করা হয়। এই উড্ডয়নের সময় ৩ কিলোমিটার উড়েছে ৫৯৯ দশমিক ৯ কিলোমিটার গতিতে এবং ১৫ কিলোমিটার চলেছে ৫৩২ দশমিক ১ কিলোমিটার গতিতে। যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা দপ্তরের টেস্টিং সাইটে এ পরীক্ষা চালানো হয়। এ উড়োজাহাজের পরীক্ষা যে পাইলট চালিয়েছেন, তার নাম ফিল ও’ডেল। তিনি ফ্লাইট অপারেশনের পরিচালকও।  

রোলস-রয়েসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পূর্বের যে রেকর্ড ছিল, তার চেয়ে এবারের উড়োজাহাজের গতি ২১৩ কিলোমিটার বেশি।  
এটা নতুন তিনটি রেকর্ড করতে যাচ্ছে। এর আগে ২০১৭ সালে এই রেকর্ড করেছিল সিমেন্স ই-এয়ারক্র্যাফট।
শুধু গতির ক্ষেত্রে যে নতুন রেকর্ড হয়েছে, এমনটি নয়। সবচেয়ে উঁচুতে উড্ডয়নের ক্ষেত্রেও রেকর্ড হয়েছে। তিন হাজার মিটার উচ্চতায় যাওয়ার ক্ষেত্রে যে রেকর্ড ছিল, তা–ও ভেঙেছে এ উড়োজাহাজ।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত    

;