মামা লাইজুকে বিয়ে করায় ক্ষিপ্ত ভাগ্নে, ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ধরা
Breaking News
মামা লাইজুকে বিয়ে করায় ক্ষিপ্ত ভাগ্নে, ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ধরা

গ্রেপ্তার মো. বাঁধন হোসেন

মামা লাইজুকে বিয়ে করায় ক্ষিপ্ত ভাগ্নে, ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ধরা

অনলাইন ডেস্ক

রাজশাহীর হড়গ্রাম এলাকায় মো. বাবু (৩১) নামের এক ব্যক্তি প্রথম স্ত্রীকে রেখে দ্বিতীয় বিয়ে করায় ক্ষিপ্ত হয় মো. বাঁধন হোসেন (১৯) নামের তার ভাগ্নে। বারবার নিষেধ করার পরেও মামা দ্বিতীয় স্ত্রীকে ছাড়তে রাজি হয় না।

পরে বিরিয়ানির প্যাকেটে মাদক রেখে মামা ও দ্বিতীয় মামিকে ফাঁসাতে চেষ্টা করে সে। কিন্তু সে জালে সে নিজেই আটকে গেছে।

পুলিশ বাঁধনকে গ্রেপ্তার করেছে।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর হড়গ্রাম কোর্ট স্টেশন এলাকায় থেকে তাকে আটক করে কাশিয়াডাঙ্গা থানা পুলিশ।

কাশিয়াডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ পারভেজ জানান, বাঁধনের মামা নগরীর হড়গ্রাম এলাকার বাসিন্দা মো. বাবু। কিছু দিন আগে প্রথম স্ত্রীকে রেখেই লাইজু বেগম (২১) নামের এক নারীকে বিয়ে করেন তিনি। এতে ক্ষিপ্ত হন ভাগ্নে বাঁধন। একাধিকবার দ্বিতীয় স্ত্রী লাইজুকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য চাপ দেয় বাঁধন। তারপরেও মামা কথা না শোনায় হড়গ্রাম কোর্ট স্টেশন এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা মামা-মামিকে ফাঁসাতে তাদের হাতে একটি বিরিয়ানির প্যাকেট ধরিয়ে দেন। ওই বিরিয়ানির প্যাকেটে ১০ গ্রাম হেরোইন রেখে বাঁধন পুলিশকে খবর দেন।

পরে আরএমপির সিসিটিভি ফুটেজ ও সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সহায়তায় তথ্য প্রদানকারী কল রেকর্ড যাচাই করে বাবু ও তার স্ত্রী হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে সত্যতা মেলে। পরে তাদের ছেড়ে দিয়ে মূল আসামি বাঁধনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাদকদ্রব্য রাখা ও পরিকল্পিতভাবে মিথ্যা মামলায় অন্যকে ফাঁসানোর চেষ্টার তার নামে মামলা হয়েছে।

আরও পড়ুন


ইউপি নির্বাচন: আ.লী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে গোলাগুলি, আহত ৬

news24bd.tv এসএম

;