বরগুনায় ড্রাগন ফল চাষ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন
স্বল্প খরচে লাভ

বরগুনায় ড্রাগন ফল চাষ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন

Other

ড্রাগন ফল চাষ করে দৃষ্টান্তস্থাপন করেছেন বরগুনার বামনা উপজেলার চিকিৎসক মো. ফেরদৌস। চলতি মৌসুমে এরই মধ্যে ড্রাগণ ফল ও চারা বিক্রি করে আয় করেছেন প্রায় ৮ লাখ টাকা।  

স্বল্প খরচে লাভ বেশি হওয়ায় বিদেশী এই ফল চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন অনেকে। এই ফল চাষ প্রসারের লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে কৃষি বিভাগ।

 

বরগুনার বামনা উপজেলার খোলপটুয়া গ্রামের চিকিৎসক মো. ফেরদৌস। পেশায় একজন চিকিৎসক হলেও ছোটবেলা থেকেই কৃষির প্রতি ছিল তার গভীর আগ্রহ। সেই আগ্রহ থেকেই ইউটিউব দেখে ড্রাগন ফল চাষে উৎসাহী হয়ে ওঠেন তিনি।

আরও পড়ুন:


 শাপলা চত্বরে নটরডেম কলেজ শিক্ষার্থীদের অবস্থান

শিশু যৌন নির্যাতনের পর মীমাংসা প্রচেষ্টা অতঃপর...


মো. ফেরদৌস জানান, গেল বছর ৪০ শতাংশ জমিতে ৮’শ ড্রাগণ গাছের চারা রোপন করেন তিনি। আর রোপণের ১০ থেকে ১৫ মাসের মধ্যেই ফল সংগ্রহ করা যায়। এখন প্রতি সপ্তাহে প্রায় ২ মণ ড্রাগণ ফল বিক্রি করতে পারছেন। একই সাথে বিক্রি হচ্ছে চারা গাছও। চলতি মৌসুমে এরই মধ্যে প্রায় ফল ও চারা গাছ বিক্রি করে তার আয় হয়েছে প্রায় ৮ লাখ টাকা।  

তার সফলতা দেখে বিদেশী এই ফলের বাগান করতে আগ্রহী হয়ে উঠেছৈ অনেকে। সংশ্লিস্টরা জানান, এ অঞ্চলে ড্রাগণ চাষ প্রসারের লক্ষ্যে কৃষকদের সব দলণের সহযোগিতা করছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।   

বিদেশি ফলগুলোর মধ্যে এদেশে সবচেয়ে বেশি সম্ভাবনাময় ফল হচ্ছে ড্রাগন। এটি সুস্বাদু, রঙিন এবং আকারে বেশ বড়ও হয় বলে জানান তারা।  

news24bd.tv/ কামরুল 

;