সাতক্ষীরায় গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছুরিকাঘাত
সাতক্ষীরায় গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছুরিকাঘাত

হাসপাতালের বেডে ধর্ষিতা।

সাতক্ষীরায় গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছুরিকাঘাত

Other

সাতক্ষীরায় পঞ্চাশোর্ধ এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছুরিকাঘাত করে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে সদর উপজেলার লাবসা ইউনিয়নের মাগুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষু অবস্থায় স্বামী পরিত্যক্তা নির্যাতিত ওই গৃহবধূকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন স্বামী পরিত্যক্তা ওই গৃহবধূ জানান, কেউ না থাকার সুযোগে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে তিন দুর্বৃত্ত তার বাড়িতে ঢোকে।

এ সময় গলায় ছুরি ও মুখে কম্বল চেপে ধরে এবং পিঠমোড়া দিয়ে হাত বেঁধে তাকে ধর্ষণ করে।

অপর দুজন এ সময় বাহিরে পাহারা দিতে থাকে। এ সময় তিনি ধস্তাধস্তির চেষ্টা করলে তার দুই হাতে ও গলায় ছুরি দিয়ে আঘাত করে। আহত গৃহবধূ জড়িতদের শাস্তির দাবি জানান।

ধর্ষিতার মেয়ে অভিযোগ করে বলেন, আমার মায়ের সাথে যে অমানবিক ও পাশবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে তা অবর্ণনীয়। দুর্বৃত্তরা এ সময় তার মায়ের কানের দুল ও পায়ের নুপুর ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য নজিবুর রহমান টুটুল জানান, অমানবিক কাজের নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানানা।

আরও পড়ুন: 


আবারও প্রাণ কারল সিটি করপোরেশনের গাড়ি


 

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শেখ ফয়সাল আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে সদর হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ওই গৃহবধূ চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিসার পাশাপাশি মনসিকভাবে
সার্পোটও দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে তিনি অনেকটা সুস্থ রয়েছেন।

সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বাবুল আক্তার জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ মাঠে রয়েছে।

news24bd.tv/তৌহিদ