১৩০ টাকায় চাকরি পেয়ে আনন্দে আত্মহারা
Breaking News
১৩০ টাকায় চাকরি পেয়ে আনন্দে আত্মহারা

ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে নির্বাচিতরা

১৩০ টাকায় চাকরি পেয়ে আনন্দে আত্মহারা

Other

কুড়িগ্রামে ১৩০ টাকা খরচ করে পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরপি) পদে নির্বাচিত হয়ে উচ্ছ্বসিত চাকুরীপ্রাপ্তরা। এভাবে চাকুরী পেয়ে আনন্দে আত্মহারা তারা। মাইকে ফলাফল ঘোষণার পর অভিভাবকসহ নির্বাচিতরা কান্নায় ভেঙে পরেন।

নিয়োগ পরীক্ষায় প্রথম হওয়া জেলার রাজারহাট উপজেলার নাজিমখান ইউনিয়নের মৃত: অজিত কুমার মন্ডলের মেয়ে পূর্ণিমা রানী মন্ডল জানান, ‘এতো সহজে চাকুরী হবে স্বপ্নেও ভাবিনি।

দু’বছর আগে বাবা মারা যাওয়ার পর সংসারে নেমে আসে দুর্ভোগ। স্বপ্ন ছিল বিসিএস ক্যাডার সার্ভিস’র পরীক্ষা দিয়ে পুলিশ অফিসার হবার। বাবা-মা দুজনেই উৎসাহ দিতো। সে স্বপ্ন পূরণ না হলেও পুলিশ কনস্টেবল হলাম। কিন্তু কষ্ট একটাই বাবা দেখে যেতে পারল না। ’

পূর্ণিমা রানী বর্তমানের নাটোরের আব্দুলপুর সরকারি কলেজে অর্থনীতি বিভাগে অনার্স প্রথম বর্ষে পড়াশুনা করছে। তার মা উর্মিলা রানী অনেক কষ্ট করে তার দুই সন্তানকে মানুষ করছেন। অভাবের কারণে কখনো কখনো পড়াশুনা বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। মেয়ের ১৩০ টাকার চাকুরীতে খুশি মা। মেধার কারণে চাকুরী হওয়ায় সরকার ও পুলিশ বিভাগকে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি।

কুড়িগ্রাম পুলিশ বিভাগে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরপি) পদে চাকরির জন্য এবার নির্বাচিত হয়েছেন ৪৩ জন। এদের মধ্যে ৬ জন নারী এবং ৩৭ জন পুরুষ।

গত বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) কুড়িগ্রাম পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে এই ৪৩ জনের প্রাথমিকভাবে ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। এরপর পুলিশ বিভাগের খরচে তাদের আগামী ৩০ নভেম্বর ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে বিনা খরচে প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা শেষে নিয়োগপত্র দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রুহুল আমিন।  

তিনি আরও জানান, কুড়িগ্রাম পুলিশ লাইন মাঠে গত ১৪, ১৫ ও ১৬ নভেম্বর তিনদিন পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে চাকরি করতে আগ্রহী প্রার্থীদের শারীরিক মাপ ও শারীরিক সহনশীলতা পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। এতে ১ হাজার ৭২০ জন আবেদনকারীর মধ্যে ৩৪৪ জন উত্তীর্ণ হন। এরপর ১৭ নভেম্বর মাপে ও শারীরিক সহনশীলতা পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ২৪ নভেম্বর লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ১৪০ জনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

ঐদিনই সকাল ১০টা থেকে দিনভর মৌখিক মনসতাত্ত্বিক পরীক্ষা শেষে গভীর রাতে ৪৩ জনকে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত করে তালিকা প্রকাশ করা হয়। এরমধ্যে কুড়িগ্রাম সদরে ১৪ জন উলিপুরে ৫ জন, নাগেশ্বরীতে ৬ জন, চিলমারীতে ২ জন, রাজারহাটে ৬ জন, ফুলবাড়ীতে ৪ জন, ভুরুঙ্গামারীতে ৪ জন, রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলায় ১ জন করে উত্তীর্ণ হয়েছে।  

এই নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদনকারীদের খরচ হয়েছে মাত্র ১৩০ টাকা। এরমধ্যে ব্যাংক বাবদ ১০০ টাকা এবং অনলাইনে আবেদন পাঠানো বাবদ ৩০ টাকা।

বিষয়টি নিয়ে কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা জানান, নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরুর আগে কোনো ধরণের তদবির বা দালাল ধরলে তাকে নিয়োগ প্রক্রিয়া থেকে বাদ দেয়া হবে বলে ব্যাপকভাবে প্রচার করা হয়েছিল। ফলে এর সুফল পাওয়া গেছে। এবারে শারীরিক যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে নিরপেক্ষ এবং স্বচ্ছতার মাধ্যমে পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন


হরিপুরে বিলুপ্তপ্রায় নীলগাই উদ্ধারের পর মৃত্যু

news24bd.tv এসএম

;