স্কুলছাত্র নিহত: ৯ বাসে আগুনের ঘটনায় যা বলছে পুলিশ
স্কুলছাত্র নিহত: ৯ বাসে আগুনের ঘটনায় যা বলছে পুলিশ

স্কুলছাত্র নিহত: ৯ বাসে আগুনের ঘটনায় যা বলছে পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীর রামপুরায় মাঈনুদ্দিন নামের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে বাস থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে নিহতের ঘটনায় বাসচালককে আটক করেছে পুলিশ। ঘাতক বাসটিকেও জব্দ করা হয়েছে।

ওই ছাত্র নিহতের ঘটনায় উত্তেজিত জনতা ৯টি বাসে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। তবে কারা আগুন দিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এটি উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে হতে পারে বলেও মনে করছে পুলিশ।

ঘটনাস্থল থেকে খিলগাঁও ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার হাসান আলী গণমাধ্যমকে জানান, বাস ভাঙচুরের পাশাপাশি ৯টি বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট এসব বাসের আগুন নেভায়।

এদিকে, দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে সাংবাদিকদের ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. আ. আহাদ জানান, আমরা যতদূর জানি উত্তেজিত জনতা এসব আগুন ধরিয়েছে। তবে কোনো সুযোগসন্ধানী কেউ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বাসে আগুন দিয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখবে পুলিশ। এছাড়া কতগুলো বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে তা পরে জানানো হবে।

ডিসি আরও বলেন, আমরা নিহতের ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন, তারা ভাঙচুর বা আগুন দেননি। অন্য কেউ এসে এসব করেছে। এ ধরনের ঘটনা কাম্য নয়। সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ ও আনুষ্ঠানিকতা শেষ করার পর সড়কটি খুলে দেওয়া হবে।

এর আগে, সোমবার রাত পৌনে এগারোটার দিকে রামপুরা বাজারের সামনে বাসচাপায় মাঈনুদ্দিনের মৃত্যু হয়। নিহত শিক্ষার্থী একরামুন্নেসা স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

আরও পড়ুন


কাউন্সিলরসহ জোড়া খুন: দুই আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

news24bd.tv এসএম