কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান
Breaking News
কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

Other

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) শিক্ষক অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেনের মৃত্যু ঘিরে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, মৃত্যুর আগে তিনি লাঞ্ছনার শিকার হয়েছিলেন।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) বিকালে এ মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত ও বিচারের দাবিতে প্রশাসনিক ভবনের নীচে অবস্থান নেয় বিক্ষুদ্ধ সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তারা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থাসহ ৭ দফা দাবি জানিয়েছেন।

জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুর ৩টার দিকে মো. সেলিম হোসেন মারা যান। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, হার্ট অ্যাটাকে তার মৃত্যু হয়েছে। তিনি কুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ও লালন শাহ হলের প্রভোস্ট ছিলেন।

শিক্ষার্থীরা জানায়, কুয়েটে লালন শাহ হলের ডিসেম্বর মাসের খাদ্য ব্যবস্থাপক (ডাইনিং ম্যানেজার) নির্বাচনকে প্রভাবিত করার অভিযোগ ওঠে ক্যাম্পাসের একটি ছাত্র সংগঠনের বিরুদ্ধে। তারা হলের প্রভোস্ট সেলিম হোসেনকে নিয়মিত হুমকি দিতো তাদের মনোনীত প্রার্থীকে নির্বাচিত করার জন্য।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তারা ক্যাম্পাসে ড. সেলিম হোসেনের গতিরোধ করে। পরে ওই শিক্ষককে তড়িৎ প্রকৌশল ভবনে তার ব্যক্তিগত কক্ষে এনে আনুমানিক আধা ঘণ্টা রুদ্ধদার বৈঠক করেন।

পরে ড. সেলিম হোসেন দুপুরের খাবারের জন্য বাসায় যান। এরপর দুপুর আড়াইটার দিকে তার স্ত্রী লক্ষ্য করেন, সেলিম হোসেন বাথরুম থেকে বের হচ্ছেন না। এরপর দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন


বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে: মেয়র আতিকুল

news24bd.tv এসএম

;