নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছেনা দিল্লির বায়ু দুষণ
নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছেনা দিল্লির বায়ু দুষণ

নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছেনা দিল্লির বায়ু দুষণ

অনলাইন ডেস্ক

কোনভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছেনা দিল্লির বায়ু দুষণ। শীতের শুরুতে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ঘন ধোয়াশা এবং শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করছে।  

এখনও তীব্র ধোঁয়াশার কবলে দিল্লির বাতাস । শীতের শুরুতে সেই ধোঁয়াশা যেন আরও বেড়েছে  সিস্টেম অব এয়ার কোয়ালিটি অ্যান্ড ওয়েদার ফোরকাস্টিং অ্যান্ড রিসার্চ জানিয়েছে  মঙ্গলবার সকালেও দিল্লির বাতাসে সার্বিক দূষণসূচক ছিল ৩০৫।

আর এই মাত্রা মানব স্বাস্থ্যের জন্য খুবই খারাপ।

সরকারী তথ্য বলছে, বিগত ৬ বছরের মধ্যে নভেম্বরের সবচেয়ে খারাপ বাতাস রেকর্ড ছুঁয়েছে ভারতের রাজধানী।
এতে ক্রমেই বাড়ছে  দিল্লী বাসীর শ্বাসনালি ও ফুসফুসে সংক্রমণজনিত সমস্যা। এ ঘটনায় দিল্লী কতৃপক্ষ  সুপ্রিম কোর্টের তোপের মুখে আছে। স্বস্তিতে নেই কেন্দ্রীয় সরকারও।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাতাসের এই গুণমান নেমে যাওয়ায় চোখে জ্বালাপোড়া, ত্বকে জ্বালা এবং শ্বাসকষ্টের গুরুতর সমস্যা হতে পারে। মৃত্যুও হতে পারে। তাই শুধু দিল্লী নয়। প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতে যানবাহন দূষণ এবং খড় পোড়ানোও বন্ধে ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ দেন তারা।

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রামান্নার বেঞ্চে দিল্লি বায়ুদূষণ মামলার শুনানি হয়। মামলাকারী আইনজীবী বিকাশ সিং দাবি করেন, নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার কথা বলা হলেও কেন্দ্রীয় সরকারের সেন্ট্রাল ভিস্তার কাজ এখনও চলছে।

আমাদের কাছে ভিডিও আছে, কীভাবে এই নির্মাণ কাজে ধুলো উড়ছে এবং তার ফলে বায়ু দূষিত হচ্ছে। বিকাশবাবু এই বিষয়ে আদালতের হস্তক্ষেপ চান। শীর্ষ আদালত এরপরেই ক্ষোভ প্রকাশ করে জানিয়ে দেয়, কেন্দ্র ও রাজ্যগুলিকে দ্রুত বক্তব্য জানাতে হবে।

আরও পড়ুন

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৬৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে কিশোরীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ

কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

দিল্লিতে এই দূষণের মাত্রা না কমায় ফলে চিন্তায় পরিবেশবিদেরা। রাজধানী ক্ষেত্রের নয়ডাতেও বাতাসে দূষণ-সূচক এদিন ছিল খুব খারাপ।

শহরে বাতাসের গতি কমেছে , কমেছে তাপমাত্রা। আগামী কয়েকদিনে শহরের বাতাসের মানের উন্নতির কোনো লক্ষণ নেই।  

ভারতীয় আর্থ সায়েন্সেস মন্ত্রণালয় বা সিস্টেম অফ এয়ার কোয়ালিটি অ্যান্ড ওয়েদার ফোরকাস্টিং অ্যান্ড রিসার্চ  দিল্লির ধোয়াশার  ৩০৫ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়েছে। দূষণের কারণে শ্বাসকষ্ট এবং চোখ জ্বালাপোড়া করছে স্থানীয়দের।  

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

;