আঠা দিয়ে বন্ধ করে বান্ধবীর সঙ্গে মিলন, যুবকের মৃত্যু
আঠা দিয়ে বন্ধ করে বান্ধবীর সঙ্গে মিলন, যুবকের মৃত্যু

প্রতীকী ছবি

যৌনাঙ্গের মুখে

আঠা দিয়ে বন্ধ করে বান্ধবীর সঙ্গে মিলন, যুবকের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

বান্ধবীর সঙ্গে মিলনের সময়ে হাতের কাছে পাওয়া গেল না কন্ডোম। তাই কড়া আঠা দিয়ে যৌনাঙ্গের মুখ বন্ধ করে দিলেন যুবক। তাতেই মৃত্যু। এমনই সন্দেহ পুলিশের।

সম্প্রতি এমনই ঘটেছে ভারতের গুজরাতের আহমেদাবাদে। খবর আনন্দবাজারের।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, সলমন মির্জা (২৫) নামের এই যুবক তাঁর বান্ধবীর সঙ্গে এক হোটেলে যান। তাঁদের দুই জনেরই নানা ধরনের মাদকে আসক্তির কথা জানা গেছে।  

আরও পড়ুন


আজও নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় নেমেছেন শিক্ষার্থীরা


হোটেলে পৌঁছে তাঁরা মাদক গ্রহণ শুরু করেন। সেই সময়ে যৌনসম্পর্কে লিপ্ত হতে যান তাঁরা। কিন্তু আবিষ্কার করেন, তাঁদের কাছে কোনও নিরোধক নেই। তখনই সলমন আঠা দিয়ে নিজের যৌনাঙ্গের মুখ বন্ধ করে নেন।

পুলিশের সন্দেহ, নেশার প্রয়োজনেই সলমন এই আঠা ব্যবহার করতেন। যৌনাঙ্গে এই কড়া আঠা ব্যবহার করে তাঁরা যৌনসম্পর্কে লিপ্ত হন। এর পরেই সলমন অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরের দিন তাঁকে রাস্তার পাশে অসুস্থ অবস্থায় স্থানীয় এক ব্যক্তি পান।  

প্রথমে তিনি সলমনকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যান। ক্রমশ তাঁর অবস্থার অবনতি হতে থাকে। তখন তাঁকে স্থানীয় এক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে, সেখানেই মারা যান সলমন।

পরে সলমনের এক আত্মীয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্ত থেকে পুলিশের অনুমান, যৌনাঙ্গের মুখ আঠা লাগিয়ে বন্ধ করে রাখায় সলমনের শরীর খারাপ হতে শুরু করে এবং তা থেকেই মৃত্যু।

news24bd.tv/

;