শুনলাম উনি রেপ করার থ্রেট দিচ্ছেন : ফারুকী
শুনলাম উনি রেপ করার থ্রেট দিচ্ছেন : ফারুকী

সংগৃহীত ছবি

শুনলাম উনি রেপ করার থ্রেট দিচ্ছেন : ফারুকী

অনলাইন ডেস্ক

সরকারের তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা.মুরাদ হাসান এখন দেশজুড়ে তুমুল বিতর্কিত একটি নাম। একের পর এক তার বিকৃত অশালীন বক্তব্য, প্রতিহিংসামূলক আক্রমনাত্নক অঙ্গভঙ্গি সব মিলিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে আসছেন তিনি। তার ‘নারীবিদ্বেষী’ বক্তব্য নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এদিকে তাকে আগামীকালের মধ্যে  মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

ডা.মুরাদ হাসানের বিতর্কিত সব কর্মকাণ্ডে সচেতন আরও অনেকের মতো তার সমালোচনা মুখর হয়েছেন জনপ্রিয় নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।  

নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক একাউন্টে সোমবার বিকেলে পোস্ট করা এক স্ট্যাটাসে প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তার মন্ত্রিত্ব থাকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্রাঙ্গনেও সুপরিচিত এই নির্মাতা।

তিনি লিখেন, আগের দিন দেখলাম প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নাতনীকে নিয়ে অশ্লীলতম ভাষায় প্রজাতন্ত্রের একজন চাকর কথা বললেন। তার পরদিন সেই একই লোক এক অনুষ্ঠানে গিয়ে পুলিশ ভাইদের নসিহত করলেন যাতে তারা কারো সাথে ব্যবহার খারাপ না করেন।

তার পরদিন শুনলাম উনি রেপ করার থ্রেট দিচ্ছেন কাউকে। এখন আপনারাই বলেন, এমন দেশটি কোথায় খুঁজে পাবেন?

এইসব দেখিয়া শুনিয়া একজন নাগরিক হিসাবে আমি যার পর নাই ক্ষুব্ধ। আমি বিশ্বাস করতে চাই মন্ত্রীসভার অন্য সদস্যরাও এই লোকের সাথে এক টেবিলে বসতে লজ্জাই বোধ করবেন। এই ছোট্ট জীবনে আমার সুযোগ হইছে দুয়েকজন মন্ত্রী দেখার। তাদের কারো কারো প্রশংসা করে আমি লিখছিলামও। আমি বিশ্বাস করি তারা কেউই চাইবেন না এই লোক তাদের বিজ্ঞাপন হয়ে উঠুক। ’

 আরও পড়ুন : প্রতিমন্ত্রী মুরাদের জায়গা পাবনার পাগলা গারদে : ডা. জাফরুল্লাহ

প্রসঙ্গত,সম্প্রতি ফেসবুক লাইভে এক অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, তার ছেলে তারেক রহমান ও নাতনি জাইমা রহমানকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন তিনি।

এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের নেত্রীদের নিয়েও আপত্তিকর ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যের অভিযোগ ওঠে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে মুরাদের পদত্যাগ দাবি করেন ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন বর্তমান এবং সাবেক নেত্রী।

জামালপুর-৪ আসনের এই সংসদ সদস্যের পদত্যাগের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন সামাজিক-রাজনৈতিক ও নারী সংগঠনগুলো। এমনকি নিজ দল আওয়ামী লীগেও ডা. মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি ওঠে।
news24bd.tv/আলী