ভালো মানুষ নারীকে সম্মান করে : তারানা
ভালো মানুষ নারীকে সম্মান করে : তারানা

সংগৃহীত ছবি

ভালো মানুষ নারীকে সম্মান করে : তারানা

অনলাইন ডেস্ক

সরকারের তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা.মুরাদ হাসান এখন দেশজুড়ে তুমুল বিতর্কিত একটি নাম। একের পর এক তার বিকৃত অশালীন বক্তব্য, প্রতিহিংসামূলক আক্রমনাত্নক অঙ্গভঙ্গি সব মিলিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে আসছেন তিনি। তার ‘নারীবিদ্বেষী’ বক্তব্য নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এদিকে তাকে আগামীকালের মধ্যে  মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

ডা.মুরাদ হাসানের বিতর্কিত সব কর্মকাণ্ডে সচেতন আরও অনেকের মতো তার সমালোচনা মুখর হয়েছেন সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম।  

সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি পোস্ট দিয়েছেন। সেখানে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিয়ে ডা. মুরাদ হাসানের উদ্দেশ্যে লিখেছেন, ‘শাস্তি আপনার প্রাপ্য। ’

মুরাদ হাসান,-আপনি কর্মক্ষেত্রে  যা করেছেন তা conflict of interest ,
-আপনি যে ভাষায় কথা বলেছেন তা বিকৃত রুচির,অশালীন,নারীর প্রতি অবমাননাকর,
-আপনি দলের ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষু্ণ্ণ করেছেন,
-শাস্তি আপনার প্রাপ্য ।
রাসুলে করিম (সা:) বলেছেন-
“ভালো মানুষ নারীকে সম্মান করে । ”
তাই আপনি দোষী থাকবেন দুনিয়াতে ও আখেরাতে।

তারানা হালিম

তারানা হালিম ওই পোস্টে আরও লিখেছেন, আমরা যারা দলকে ভালোবাসি তারা জানি এই সিদ্ধান্ত নেবার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কঠিন ,কঠোর হতে হয়েছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুকন্যার কাছ থেকে এটাই আশা করি আমরা। ভবিষ্যতে সব লুটেরা,ঘুষখোর,লম্পটদের বিরুদ্ধে আপনার এমন কঠোর পদক্ষেপ অব্যাহত থাকুক। এই দৃষ্টান্ত যেন সকলের জন্য শিক্ষার কারণ হয়।

যখন টাইপ করছিলাম তখন শিরোনাম দিয়েছিলাম-“এটা অন্যায়” জনাব মুরাদকে উদ্দেশ্য করে। এর মাঝে ফোনে জানলাম ওনাকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তাই শিরোনামটি বদলালাম । লিখলাম-“ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী 

 আরও পড়ুন : প্রতিমন্ত্রী মুরাদের জায়গা পাবনার পাগলা গারদে : ডা. জাফরুল্লাহ

প্রসঙ্গত,সম্প্রতি ফেসবুক লাইভে এক অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, তার ছেলে তারেক রহমান ও নাতনি জাইমা রহমানকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন তিনি।

এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের নেত্রীদের নিয়েও আপত্তিকর ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যের অভিযোগ ওঠে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে মুরাদের পদত্যাগ দাবি করেন ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন বর্তমান এবং সাবেক নেত্রী।

জামালপুর-৪ আসনের এই সংসদ সদস্যের পদত্যাগের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন সামাজিক-রাজনৈতিক ও নারী সংগঠনগুলো। এমনকি নিজ দল আওয়ামী লীগেও ডা. মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি ওঠে।
news24bd.tv/আলী