মন্ত্রী মুরাদ ‘খুব ব্রুটালি’ মাহিকে ধর্ষণ করতে চেয়েছে: তসলিমা
মন্ত্রী মুরাদ ‘খুব ব্রুটালি’ মাহিকে ধর্ষণ করতে চেয়েছে: তসলিমা

ফাইল ছবি

মন্ত্রী মুরাদ ‘খুব ব্রুটালি’ মাহিকে ধর্ষণ করতে চেয়েছে: তসলিমা

অনলাইন ডেস্ক

ক্ষমতার অপব্যবহার করে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান অসংখ্য মেয়েকে ধর্ষণ করেছে বলে মনে করছেন ভারতে নির্বাসিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

বেশ কয়েকদিন ধরেই বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে আলোচনায়-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ডা. মুরাদ হাসান। তার শাস্তির দাবিতে ইতিমধ্যে আওয়াজ তুলেছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনগুলো।

বিভিন্ন জেরে সোমবার রাতে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ও জামালপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মুরাদ হাসানকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর আজ মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) দুপুরে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান।

আলোচনায়-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা মুরাদকে নিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়ে তসলিমা নাসরিন।

তিনি লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের মন্ত্রী মুরাদ হাসান খুব ব্রুটালি মাহিকে ধর্ষণ করতে চেয়েছে। আমরা যারা তার সেই ফোনালাপ শুনেছি, তারা নিশ্চয়ই অনুমান করতে পারি যে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে লোকটি অসংখ্য মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। ’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘তার চালচলন, আচার-ব্যবহার সব বলে দেয় যে, সে ধরাকে সরা জ্ঞান করে। কে তাকে এত বর্বর হওয়ার স্বাধীনতা দিয়েছে? এ-ও অনুমান করতে পারি, কে। লোকটি মাতাল হয়ে মানুষকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল দেয়। নেত্রীর আশকারা তাকে কোথায় উঠিয়েছে! উঠিয়েছে নাকি নামিয়েছে? আমি তো বলব, মানুষ হিসেবে তাকে অনেক নিচে নামিয়েছে। ’

এদিকে মুরাদ হাসানকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারের বিষয়ে আগামী কার্যনির্বাহী সভায় সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। সংশ্লিষ্টদের মতে, দল থেকে বহিষ্কার হলে তাকে সংসদ সদস্যপদও হারাতে হতে পারে।

আরও পড়ুন: 

মুরাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে: ডিবি

news24bd.tv/তৌহিদ