দেশে এসে পৌঁছেছে করোনার টিকার আরেকটি চালান
দেশে এসে পৌঁছেছে করোনার টিকার আরেকটি চালান

দেশে এসে পৌঁছেছে করোনা ভাইরাসের টিকার আরেকটি চালান

দেশে এসে পৌঁছেছে করোনার টিকার আরেকটি চালান

অনলাইন ডেস্ক

ভারত থেকে দেশে এসে পৌঁছেছে করোনা ভাইরাসের টিকার আরেকটি চালান। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মঙ্গলবার রাত ২টা ৪০ মিনিটের দিকে ১০ লাখ টিকার এ চালান পৌঁছায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বেক্সিমকো ফার্মার চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) রাব্বুর রেজা বুধবার সকালে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘একটি বিশেষ বিমানে ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউট থেকে ১০ লাখ টিকা দেশে এসেছে।

টিকা বহনকারী বিমানটি মঙ্গলবার রাত ২টা ৪০ মিনিটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

আমাদের প্রতিনিধিরা টিকাগুলো বুঝে নেন। টিকাগুলো আমরা সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করব। ’

 আরও পড়ুন:


রায়ের পর আবরার ফাহাদের মা যা বললেন!


ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউট থেকে বাংলাদেশ যে টিকা কিনেছে, তাতে মধ্যস্ততা করে বেক্সিমকো ফার্মা। পাশাপাশি দেশে টিকা আসার পর এর সংরক্ষণ ও পরিবহনের দায়িত্বও পালন করছে তারা।

গত বছরের ১৩ ডিসেম্বরে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার তিন কোটি ডোজ কেনার জন্য সরকার সিরামের সঙ্গে চুক্তি সই করে। টিকা পেতে প্রতিষ্ঠানটিকে প্রায় ১ হাজার ৩০০ কোটি টাকা অগ্রিম পরিশোধ করে বাংলাদেশ।

চুক্তি অনুযায়ী, বাংলাদেশকে প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও ভারত দুই কিস্তিতে মাত্র ৭০ লাখ ডোজ টিকা দেয়। এছাড়া ভারত সরকার উপহার হিসেবে পাঠিয়েছিল ৩৩ লাখ ডোজ টিকা।  

করোনা সংক্রমণ বেড়ে গেলে তখন টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত। তারপর চীন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে নতুন করে চুক্তির পর সেখান থেকে নতুন করে টিকা এনে সাময়িক প্রয়োজন মেটানো হয়। যদিও গত ২ ডিসেম্বর ৪৫ লাখ টিকা পাঠায় ভারত।

news24bd.tv/ কামরুল