মুরাদকে নিয়ে তদন্ত শুরু

মুরাদকে নিয়ে তদন্ত শুরু

মাসুদা লাবনী

বেফাঁস মন্তব্য আর অডিও কেলেঙ্কারীতে জড়িয়ে পদ হারানো, ডা. মুরাদ হাসানকে নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। ডিএমপি জানিয়েছে, শাহবাগ থানায় দায়ের হওয়া অভিযোগের তদন্ত করছে পুলিশের সাইবার অপরাধ বিভাগ। এদিকে, র‌্যাবের দাবি, চিত্রনায়ক ইমনকে জিজ্ঞাসাবাদে মিলেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। অন্যদিকে, ডা. মুরাদের অশালীন বক্তব্যের ৩৮৭টি ভিডিও চিহ্নিত করেছে বিটিআরসি।

এদিকে জামালপুরের সরিষাবাড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য থেকেও ডা.মুরাদ হাসানকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।  

সদ্য পদ হারানো ডা. মুরাদ হাসানের অডিও ফাঁস নিয়ে পুলিশের পর, র‌্যাবও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে চিত্রনায়ক ইমনকে। মঙ্গলবার রাতে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাকে।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক জানান, ডা. মুরাদ হাসানের সঙ্গে চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির ফোনালাপ নিয়েই জানতে চাওয়া হয়, তার কাছে।  

জিজ্ঞাসাবাদে ইমনের কাছ থেকে চাঞ্চল্যকর তথ্য মিলেছে বলে দাবি করেছে র‌্যাব। এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে আরও কয়েকজনকে।

এদিকে শাহবাগ থানায় ডা. মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে দায়ের করা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিযোগটি মামলা হিসাবে নেয়া হবে কি না, তা তদন্ত করবে ডিবির সাইবার অপরাধ বিভাগ।

আরও পড়ুন:

ইরানের ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার আহ্বান

এবার আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা


 

অন্যদিকে বুধবার সকালে ডা. মুরাদ হাসানের সংসদ সদস্য পদের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করেছেন এক আইনজীবী।

এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডা. মুরাদ হাসানের ভাইরাল হওয়া অশালীন বক্তব্যের ২৭২টি ভিডিও চিহ্নিত করেছে, বিটিআরসি। যার মধ্যে ইউটিউবেই রয়েছে শতাধিক।

বিটিআরসির আইজীবী রেজা ই রাকিব আরও জানান, ফেসবুকেও ছড়িয়ে পড়া ডা. মুরাদের কুরুচিপূর্ণ ভিডিও সরাতে কাজ করছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

news24bd.tv/আলী