আজ ৪০'এ পা রাখলেন এই মিষ্টি হাসির মেয়ে!   
আজ ৪০'এ পা রাখলেন এই মিষ্টি হাসির মেয়ে!    

দিয়া মির্জা

আজ ৪০'এ পা রাখলেন এই মিষ্টি হাসির মেয়ে!   

অনলাইন ডেস্ক

দিয়া মির্জা। অভিনয়ের প্রতি টান সেই শৈশব থেকে। সুযোগ পেলেই স্কুলের নাটকে নাম লেখাতেন। মন দিয়ে ঝালিয়ে নিতেন সংলাপ।

তার মা দীপা চেয়েছিলেন দিয়া আইন নিয়ে বেঙ্গালুরুতে পড়াশোনা করুক। তবে দিয়ার মাথায় তখন জেদ চেপেছে মডেলিংয়ের। ঠিক করেন দুটোই করবেন। কলেজে পড়তে পড়তেই শুরু হয় তাঁর মডেলিংয়ের কাজ। লিপটন, ওয়ালস আইসক্রিম, ইমামির মতো ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপনের কাজ পেতে শুরু করেন বলিউডের এই সুন্দরী অভিনেত্রী।  

আজ বৃহস্পতিবার দিয়ার জন্মদিন। ৪০-এ পা রাখলেন বলিউডের মিষ্টি হাসির মেয়ে।  

১৯৮১ সালে হায়দরাবাদে দিয়ার জন্ম। বাবা ফ্র্যাঙ্ক হেন্ড্রিক ছিলেন জার্মান। মা দীপা দেবী বাঙালি। দু’জনেরই পেশা স্থাপত্যবিদ্যা কেন্দ্রিক। দিয়ার বয়স যখন মাত্র সাড়ে চার, তাঁদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। দীপা দেবী বিয়ে করেন আহমেদ মির্জাকে। দিয়ার নাম থেকে হেন্ড্রিক সরে গিয়ে জুড়ে যায় মির্জা।  

স্বাবলম্বী হয়ে ওঠার তাগিদ তাড়িয়ে বেড়াত। কলেজে পড়ার সময় থেকেই তাই চাকরি করেছেন দিয়া। এক সংস্থার মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ পদে নিযুক্ত ছিলেন বেশ কিছু দিন। অভিনেত্রী হওয়ার লক্ষ্যে তখনও স্থির। তাই দশটা-পাঁচটার চাকরির পাশাপাশি চালিয়ে গিয়েছেন মডেলিং।  

পরে মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ। তাতে তৃতীয় স্থান অধিকার করে মিস এশিয়া প্যাসিফিকে জয়। ওই বছরই বিশ্বসুন্দরী হয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ব্রহ্মাণ্ডসুন্দরী হয়েছিলেন লারা দত্ত। দিয়া মিস এশিয়া প্যাসিফিক হওয়ার পরই তাঁর কাছে একের পর এক সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব আসতে শুরু করে।

দিয়া অবশ্য তখনও ভাবেননি অভিনয় করবেন। বেশ কিছু ছবির প্রস্তাব ফিরিয়েও দিয়েছিলেন। বদলে একটি মিউজিক ভিডিয়োয় অভিনয় করেন। এরপরই প্রথম ছবি ‘রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে’ করার সিদ্ধান্ত নেন। প্রথম ছবিতেই গোটা ভারত চিনে গিয়েছিল তাঁকে।

এরপর ‘দিওয়ানাপন’, ‘তুমকো না ভুল পায়েঙ্গে’, ‘দম’-এর মতো একের পর এক হিট উপহার দেন বলিউডকে। সব মিলিয়ে ৪২টি ছবি করেছেন কেরিয়ারে। কিন্তু দিয়ার কেরিয়ারের গ্রাফ হঠাৎই থমকে যায়। ২০১৪ সালে অভিনয় ছেড়ে প্রযোজনায় আসেন দিয়া। তৈরি করেন প্রযোজনা সংস্থা বর্ন ফ্রি এন্টারটেনমেন্ট। সঙ্গী হন স্বামী সাহিল সঙ্ঘ।

উদ্যোগপতি সাহিলকে ২০১৪ সালে বিয়ে করেছিলেন। ভালবেসে বিয়ে। তবে বেশিদিন টেকেনি। ২০১৯ সালেই সম্পর্কে ইতি টানেন দু’জনে। দু’বছর পর এখন দিয়া বৈভব রেখির ঘরনি।

পুরনো সম্পর্কের সঙ্গে শেষ হয়েছে পুরনো প্রযোজনা সংস্থাও। তবে প্রযোজক দিয়া থামেননি। তাঁর নতুন প্রযোজনা সংস্থার নাম ‘ওয়ান ইন্ডিয়া স্টোরিজ’।

আরও পড়ুন: 


সোহেলকে তিনি করেন ৫টি গুলি


ফের প্রেম আসে দিয়ার জীবনে। ব্যবসায়ী বৈভব রেখির সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান নায়িকা। ২০২১ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করেছেন তাঁরা। চলতি বছরের মে মাসে পুত্রসন্তানের মা হয়েছেন দিয়া। একরত্তির নাম রেখেছেন অভ্যান আজাদ।

news24bd.tv রিমু