ভূমিহীন হওয়ায় পঞ্চম স্থানে থেকেও পুলিশে চাকরি হচ্ছে না আসপিয়ার
ভূমিহীন হওয়ায় পঞ্চম স্থানে থেকেও পুলিশে চাকরি হচ্ছে না আসপিয়ার

ভূমিহীন হওয়ায় চাকরি না পাওয়া আসপিয়া

ভূমিহীন হওয়ায় পঞ্চম স্থানে থেকেও পুলিশে চাকরি হচ্ছে না আসপিয়ার

রাহাত খান, বরিশাল

সাত স্তরে যাচাই-বাছাই, শারীরিক যোগ্যতা, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা এবং দুই দফা মেডিকেল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরও শুধুমাত্র ভূমিহীন হওয়ার কারণে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি হলো না বরিশালের হিজলার কলেজ ছাত্রী আসপিয়া ইসলামের।

পুলিশের প্রতিবেদনে ভূমিহীন হওয়ায় তার চাকরি হবে না বলে জানিয়ে দেয়া হয়েছে। যোগ্যতা বলে চাকুরী পাওয়ার দাবী নিয়ে বুধবার বরিশালের ডিআইজি’র কাছে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ফল হয়নি।

বুধবার দুপুরে বরিশাল জেলা পুলিশ লাইনের গেটের বাইরে ফুটপাতে তীর্তের কাকের মতো পুলিশ লাইনের দিকে তাকিয়ে বসেছিলেন কলেজ ছাত্রী আসপিয়া ইসলাম। উদ্দেশ্য রেঞ্জ ডিআইজি’র সাথে দেখা করার।

আসপিয়া জানান, জেলায় পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগের জন্য নিজের যোগ্যতায় ৭টি স্তর উত্তীর্ণ হয়েছেন। এখন চূড়ান্ত নিয়োগের আগে পুলিশের প্রতিবেদনে ‘ভূমিহীন’ হওয়ায় তার চাকরি হবে না বলে জানিয়ে দেয়া হয়েছে। চাকুরীর দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেও চাকরি না হওয়ায় তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিকার দাবী করেন তিনি।  

বরিশাল সচেতন নাগরিক কমিটির (সনাক) সভাপতি অধ্যাপক শাহ সাজেদা বলছেন, শারীরিক এবং একাডেমিক যোগ্যতায় অজপাড়াগায়ের একটি মেয়ে পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে। শুধুমাত্র ভূমিহীন হওয়ায় তার চাকরি হবে না এটা মানা যায় না। প্রয়োজনে আইন পরিবর্তন করে হলেও যোগ্যতা বলে ওই মেয়েটিকে পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেয়ার দাবী জানান তিনি।

এদিকে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখার কথা জানিয়েছেন, জেলা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন। বাংলাদেশের কোথাও যদি তার ভূমি না থাকে, সেটা তিনি দেখবেন। আর যদি কোথাও ভূমি থাকে তাহলে সেটাই তার স্থায়ী ঠিকানা।

সকল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরও ভূমিহীন কারোর চাকরি না হওয়া দুঃখজনক বলছেন, জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন হায়দার। তিনি ওই মেয়েটির পরিবারকে হিজলায় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্প থেকে জমিসহ একটি ঘর দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।  

গত ১৪ নভেম্বর থেকে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত জেলা পুলিশ লাইনে ৬টি স্তরে শারীরিক, লিখিত ও মৌখিক এবং প্রাথমিক মেডিকেল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয় সে। সব শেষ ২৯ নভেম্বর ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইন সেন্ট্রাল হাসপাতালে চূড়ান্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয় সে। ৭ স্তরে মেধা তালিকায় পঞ্চম হয় আসপিয়া।  

জেলায় এবার ৪১ জন পুরুষ ও ৭ জন নারী কনস্টেবল নিয়োগ করা হবে। এই প্রদে চাকুরী পেতে লড়াই করে ২ হাজার আবেদনকারী।

আরও পড়ুন


মুরাদ হাসানের বিদেশ যাত্রা নিয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

news24bd.tv এসএম

;