লঞ্চের কেবিনে তরুণীর লাশ: স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা
লঞ্চের কেবিনে তরুণীর লাশ: স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

লঞ্চের কেবিনে তরুণীর লাশ: স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

রাহাত খান, বরিশাল

বরিশাল নদী বন্দরে ঢাকা থেকে আসা একটি লঞ্চের কর্মচারী কেবিন থেকে এক তরুণীর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। নিহত শারমিন আক্তারের স্বামী ঝালকাঠীর নলছিটি উপজেলার পশ্চিম গোপালপুর মাদুদ হাওলাদারকে একমাত্র আসামি করে গত শুক্রবার রাতে কোতয়ালী মডেল থানায় এই মামলা দায়ের করেন তার বাবা জেলার বাবুগঞ্জের এনায়েত হোসেন ফকির। মামলার আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন কোতয়ালী মডেল থানার ওসি আজিমুল করিম।  

গত শুক্রবার সকালে ঢাকা থেকে বরিশাল নদী বন্দরে আসা এমভি কুয়াকাটা-২ লঞ্চের কর্মচারী কেবিন থেকে মধ্য বয়সী এক নারীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

আঙ্গুলের ছাপ মিলিয়ে তার পরিচয় নিশ্চিত হয় পুলিশ। পরে তার স্বজনদের খবর দেয়া হয়। স্বজনরা লঞ্চের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে শারমিনের স্বামীকে শনাক্ত করে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বরিশালের বাবুগঞ্জের এনায়েত হোসেন ফকির বাদী হয়ে ওই রাতেই কোতয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পারিবারিক কলহের জের ধরে শারমিনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।  

শারমিনকে তার স্বামীই হত্যা করেছে বলে অভিযোগ স্বজনদের। এ ঘটনায় তার স্বামীর কঠোর শাস্তি দাবী করেন তারা।  

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মো. আজিমুল করিম, ঘটনাস্থল নৌ থানার অন্তর্গত হওয়ায় এই হত্যা মামলা তদন্ত করছে নৌ পুলিশ। তবে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশও এই মামলা ছায়া তদন্ত করছে। হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতারের চেস্টা চলছে বলেও জানান ওসি।

এর আগেও ঢাকা-বরিশাল রুটের লঞ্চে একাধিক হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়।

আরও পড়ুন


মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ সঠিক নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

news24bd.tv এসএম