অর্থের অভাবে চিকিৎসা বন্ধ, কাতরাচ্ছে অগ্নিদগ্ধ শিশু
অর্থের অভাবে চিকিৎসা বন্ধ, কাতরাচ্ছে অগ্নিদগ্ধ শিশু

অগ্নিদগ্ধ শিশু সাজ্জাত

অর্থের অভাবে চিকিৎসা বন্ধ, কাতরাচ্ছে অগ্নিদগ্ধ শিশু

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

শিশু সাজ্জাত হোসেন পাড়ার সহপাঠিদের সঙ্গে খেলা করার সময় আগুনে পড়ে গিয়ে তার কোমড় থেকে হাটু পর্যন্ত পুড়ে যায়। তার চিৎকারে আশে-পাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ভর্তি করানো হয়।

সাত বছর বয়সী শিশু সাজ্জাত হোসেন ঠাকুরগাঁও হরিপুর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের তারবাগান গ্রামের দিনমজুর নূর মোহাম্মদের ছেলে।

জানা যায়, গত নভেম্বরে শিশু সাজ্জাত সহপাঠিদের সঙ্গে বাড়ির পাশে খেলতে গিয়ে ধান সিদ্ধ করা চুলায় পড়ে যায়।

এসময় তার পরনে গামছায় আগুন লেগে কোমড় থেকে হাঁটু পর্যন্ত পুড়ে যায়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। দীর্ঘ এক মাস চিকিৎসা দেওয়ার পরও শিশুটি সুস্থ্য না হওয়ায় গতকাল সেখানকার ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রেফার্ড করেন। কিন্তু দিনমজুর পিতা-মাতা ইতিমধ্যে কাজের উপর অগ্রিম টাকা ও বাড়ির পালিত গবাদি পশু বিক্রি করে সন্তানের চিকিৎসা করেছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার মতো সামর্থ না থাকায় শিশুটি এখন হাসপাতালের বেডে আগুনে পোড়ার জ্বালায় ছটফট করছে।

শিশু সাজ্জাতের পিতা নুর মোহাম্মদ বলেন, আমার যা ছিলো সব বিক্রি করে সন্তানের চিকিৎসা করেছি। ডাক্তার বলেছে ঢাকা না নিয়ে গেলে অনেক বড় সমস্যা হবে। আমি মানুষের বাড়িতে কাজ করি। যেগুলো টাকা ছিলো তা দিয়ে চিকিৎসা করেছি। এখন টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছি না। আজ টাকার অভাবে আমার সন্তান হাসপাতালের বেডে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। আল্লাহ যেন এমন পরীক্ষা আর কোন পিতাকে না দেয়।

আরও পড়ুন


ধারাবাহিকভাবে কমছে স্বর্ণের দাম

news24bd.tv এসএম