সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ
সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রতীকী ছবি

সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

মাদারীপুরে সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে এক সন্তানের এক জননী ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় থানায় মামলা দিতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ।  

শুক্রবার রাতে কালকিনি উপজেলা শহরে ঘটেছে। অভিযুক্ত মামনু সরদার (৩৫) সিডিখান ইউনিয়নের মাথাভাঙ্গা এলাকার ওয়াজেদ সরদারের ছেলে।

 

নির্যাতিতা ও অভিযুক্ত সাবেক স্বামীর দাম্পত্য জীবনে একটি ৫ বছরের মেয়ে রয়েছে বলে জানিয়েছে কালকিনি থানার ওসি ইশতিয়াক আশফাক রাসেল।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার দাবী করা এক সন্তানের জননী সিডিখান ইউনিয়নের বাড়ি থেকে কালকিনি উপজেলা শহরে ডাক্তার দেখানো কথা বলে রওনা দিলে পথের মধ্যে থেকে তার সাবেক স্বামী ও তার শিশু সন্তানের বাবা মামুন সরদার তাকে জোর করে উপজেলা শহরের একটি বাড়িতে নিয়ে যায়।

রাতভর আটকে রেখে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। পরে শনিবার সকালে কালকিনি থানায় ধর্ষণের একটি অভিযোগ নিয়ে যায়। কিন্তু অভিযোগটি থানা পুলিশ গ্রহণ করেনি বলে ধর্ষণের শিকারের দাবি করা ওই জননীর অভিযোগ।

আরও পড়ুন


বাংলাদেশে দুইজন ওমিক্রনে আক্রান্ত

পেটের ভেতরে কাঁচি রেখেই সেলাই, দেড় বছর পর ধরা!

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালে মামুন সরদারের সঙ্গে পারিবারিকভাবে ওই তরুণীর বিয়ে হয়। পরে ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে দাম্পত্য কলহের জেরে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে একটি কন্যা শিশুর রয়েছে।

নির্যাতনের শিকার তরুণী দাবি করে বলেন, 'আমি দাঁতের ডাক্তার দেখাতে বাড়ি থেকে বের হয়ে রাস্তায় আসলে মামুন ও তার সহযোগীরা আমাকে জোর পূর্বক ইজিবাইকে তুলে নিয়ে যায়। কিছু বলার আগেই তারা আমার মুখ চেপে ধরে। পরে উপজেলার অজ্ঞাত একটি স্থানে নিয়ে রাতে একাধিকবার ধর্ষণ করে। আমি এই ঘটনার বিচার চাই। থানায় অভিযোগ নিয়ে গেলেও শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত পুলিশ আমার অভিযোগ গ্রহণ করেনি। '

কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা (ওসি) ইশতিয়াক আসফাক রাসেল বলেন, ‘ওই মহিলা যে বাড়িতে রাতে ছিল। সেই বাড়িতে আমরা খোঁজ খবর নিয়েছি। তার সাবেক স্বামীর সাথে দিনের বেলা ঘোরাঘুরি করে ওই বাড়িতে রাতে গিয়ে থাকে। দুজনের ইচ্ছায় রাতে ওই বাড়িতে থাকে। পরের দিন হাসপাতালে ভর্তি না হয়ে ওই মহিলা তার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দিতে আসে।  

ওসি বলেন, তাদের একটি পাচ বছরের কন্যা সন্তানও রয়েছে। আমরা বিষয়টি আরো তদন্ত করে দেখছি। যদি সত্যিই ধর্ষণের ঘটনা হয়ে থাকে। তাহলে আমরা মামলা নেব। ’

news24bd.tv/ কামরুল