আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ, টেকনোলজিস্ট কারাগারে
আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ, টেকনোলজিস্ট কারাগারে

আসামি প্রকাশ কুমার দাস

আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ, টেকনোলজিস্ট কারাগারে

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

খুলনা ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে (সদর) বিদেশগামীদের করোনা নমুনা পরীক্ষার দুই কোটি ৫৭ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় হাসপাতালের টেকনোলজিস্ট প্রকাশ কুমার দাসকে কারাগারে প্রেরণ করেছেন আদালত।

রোববার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে খুলনা মহানগর দায়রা জজ বিশেষ আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিচারক শহিদুল ইসলাম জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মজিবর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, ২০২০ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের জুলাই পর্যন্ত করোনা পরীক্ষার ইউজার ফি বাবদ মোট ৪ কোটি ২৪ লাখ ৯৩ হাজার টাকা আদায় হলেও সরকারি কোষাগারে জমা হয়েছে মাত্র ১ কোটি ৬৬ লাখ ৯৬ হাজার টাকা।

ল্যাব টেকনোলজিস্ট ও ল্যাব ইনচার্জ প্রকাশ কুমার দাস বাকি ২ কোটি ৫৭ লাখ ৯৭ হাজার টাকা জমা দেননি। ওই টাকা কেন সরকারি কোষাগারে জমা দেননি তার জবাব দেওয়ার জন্য ২০ সেপ্টেম্বর কৈফিয়ত তলব করা হয়। কিন্তু গত ২৩ সেপ্টেম্বর দুপুরের পর থেকে প্রকাশ কুমার দাস আত্মগোপনে ছিলেন। সম্প্রতি তিনি হাইকোর্টের জামিন নিয়ে কর্মস্থলে যোগ দেয়ার চেষ্টা করেন।

আইনজীবী খন্দকার মজিবর রহমান জানান, দুদকের উপ-সহকারি পরিচালক খন্দকার কামরুজ্জামান বাদী হয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে টেকনোলজিস্ট প্রকাশ কুমার দাসের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এই মামলায় হাইকোর্ট থেকে প্রকাশ কুমার ১৫ দিনের জামিন নিয়ে খুলনায় আসেন। জামিন শেষে আদালতে হাজির হয়ে পুনঃজামিনের আবেদন করলে বিচারক তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন।

আরও পড়ুন


বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ সত্য নয়: আইনমন্ত্রী

news24bd.tv এসএম