তাবলিগ জামাত ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’: সৌদি আরব
তাবলিগ জামাত ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’: সৌদি আরব

সংগৃহীত ছবি

তাবলিগ জামাত ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’: সৌদি আরব

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বব্যাপী ইসলামের দাওয়াতের কার্যক্রম পরিচালনা করা অহিংস ধর্মীয় আন্দোলন তাবলিগ জামাত। নিজ সদস্যদের ধর্ম চার্চায় উদ্বুদ্ধ করা এবং মুসলমানদের মধ্যে ধর্মীয় মূল্যবোধ জাগ্রত করাই সংগঠনটির মূল উদ্দেশ্য।

কিন্তু এমন একটি সংগঠনটিকে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ আখ্যা দিল সৌদি আরব। সেই সঙ্গে দেশটির জুমার খুতবায় তাবলিগ জামাতের সমালোচনার নির্দেশনা দিয়েছে সৌদির ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স দপ্তর।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, সৌদি আরবের ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স দপ্তরের মন্ত্রী ডা. আব্দুল লতিফ আল শাইখের জারি করা এক নির্দেশনায় জুমার খুতবায় তাবলিগ জামাতের বিরুদ্ধে কথা বলতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নতুন ওই খুতবায় বলা হয়েছে- তাবলিগ জামাত সন্ত্রাসবাদের একটি প্রবেশপথ। এদের বিপদ সম্পর্কে মানুষকে বোঝান। এদের ভুলগুলো তুলে ধরুন। তাবলিগ জামাতের পাশাপাশি দাওয়া নামে আরেকটি সংগঠনের ব্যাপারেও সতর্ক করা হয়েছে।

এদিকে, বিশ্লেষকরা বলছেন- তাবলিগ জামাত ভারতের দেওবন্দভিত্তিক সুন্নি মুসলিমদের সংগঠন। অন্যদিকে সৌদি আরবের ক্ষমতাসীন গোষ্ঠী কট্টর ওয়াহাবি ও আহলে হাদিস মতাদর্শের অনুসারী।

তাই সৌদিতে প্রকাশ্যে তাবলিগ জামাতের কাজ করা যায় না এবং সৌদি সরকার মাঝেমধ্যেই এ দলটি সম্পর্কে সতর্ক করে খুতবা দেয়। কিন্তু এ বছরই প্রথম অহিংস এ সংগঠনটিকে সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগ করা হয়েছে। সৌদি সরকারের ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স দপ্তরের এমন নির্দেশনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলিম স্কলাররা।

ভারতের বিখ্যাত আলেম শায়খ সালমান হুসাইনি নদভী এ বিষয়ে সৌদি সরকারের তীব্র সমালোচনা করে তাৎক্ষণিক আরবি ও উর্দু ভাষায় এর প্রতিবাদ করেছেন। তিনি বলেন, মোহাম্মদ বিন সালমানের এ সৌদি সরকার আন্তর্জাতিক সাম্রাজ্যবাদী শক্তির এজেন্ট হয়ে যে মুসলিম বিশ্বের বিরুদ্ধে কাজ করছে সেটি এমন নির্দেশনায় আরও স্পষ্ট হলো।

বাংলাদেশের গবেষক আলেম মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী বলেন, তারা কারেকশন দিতে পারেন কিন্তু শতবর্ষী একটি দীনি আন্দোলনকে এভাবে একতরফা নিন্দা ও নিরুৎসাহিত করতে পারেন না।

তিনি বলেন, সৌদি সরকারকে এই বক্তব্য তুলে নিতে হবে। উপমহাদেশের আলেমদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করতে হবে। বিশ্বের কোটি কোটি তাবলিগ সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।

news24bd.tv/ তৌহিদ