যুক্তরাষ্ট্র পুলিশের সহিংসতার পরিসংখ্যান তুলে ধরলেন জয়
যুক্তরাষ্ট্র পুলিশের সহিংসতার পরিসংখ্যান তুলে ধরলেন জয়

ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্র পুলিশের সহিংসতার পরিসংখ্যান তুলে ধরলেন জয়

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের বিচারবহির্ভূত হত্যা নিয়ে ব্যাপক হতাশা ও ক্ষোভ রয়েছে। প্রতিবছর দেশটিতে পুলিশের গুলিতে কী পরিমাণ মানুষ নিহত হয়েছে এবার সেই তথ্য তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

রোববার (১২ ডিসেম্বর) রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ পরিসংখ্যান তুলে ধরেন তিনি।

এসময় তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ডের একটি পরিসংখ্যান তুলে ধরেন জয়।

সেখানে বলা হয়েছে ২০১৫ সালে অন্তত এক হাজার ২০০ জনেরও বেশি কৃষ্ণাঙ্গ পুলিশের হাতে নিহত বা গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। পুলিশি হেফাজতে মৃত্যু কিংবা অন্য পদ্ধতিতে নিহতের সংখ্যা এই পরিসংখ্যানে অন্তর্ভুক্ত করা হয় নি।

যুক্তরাষ্ট্র পুলিশের গুলিতে হতাহতদের মধ্যে কৃষ্ণাঙ্গের সংখ্যা শ্বেতাঙ্গদের চেয়ে অন্তন তিনগুণ বেশি। মার্কিন জনসংখ্যার মাত্র ১৩ শতাংশ কৃষ্ণাঙ্গ।

টিআরটি ওয়ার্ল্ডের পরিসংখ্যান

টিআরটি ওয়ার্ল্ডের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, দেশটিতে ২০১৩ সালে পুলিশের গুলিতে ১১০৬ জন, ২০১৪ সালে ১০৫০ জন, ২০১৫ সালে ১১০৩ জন, ২০১৬ সালে ১০৭১ জন, ২০১৭ সালে ১০৯৫ জন, ২০১৮ সালে পুলিশের গুলিতে সর্বোচ্চ ১১৪৩ জন এবং ২০১৯ সালে ১০৯৮ জন নিহত হয়েছেন।  

অর্থাৎ ২০১৩ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ১১০০ মানুষ পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন।

সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে পুলিশের সহিংসতার সমাধানে মার্কিন সামাজিক ও রাজনৈতিক অঙ্গণে সামনে থেকে কাজ করছে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলন।

২০১৪ সালের আগস্টে মাইকেল ব্রাউন নামের ১৮ বছর বয়সী এক হাইস্কুল শিক্ষার্থী পুলিশের গুলিতে নিহত হন। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে অহিংস বিক্ষোভ হয়েছে।

এছাড়া, ২০২০ সালের ২৫ মে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে আটক করার সময় হাঁটু দিয়ে ঘাড় চেপে ধরে তাকে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশ। পুলিশের নির্যাতন থেকে বাঁচতে ‘আমি শ্বাস নিতে পারছি না’ বলেও আকুতিও করেছিলেন ফ্লয়েড।  

আরও পড়ুন:

ফিলিস্তিনি শরণার্থী শিবিরে বন্দুক হামলায় নিহত ৪

news24bd.tv/ নকিব