কুষ্টিয়ায় রেজাউল হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন
কুষ্টিয়ায় রেজাউল হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

ব্যবসায় হত্যার ঘটনায় চার জনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় রেজাউল হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া:

কুষ্টিয়ায় এক ব্যবসায় হত্যার ঘটনায় চার জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম।

আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে এ রায় ঘোষণার সময় আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি জিতু, মিতুল ও খলিল উপস্থিত ছিলেন। অপর আসামি জুয়েল পলাতক রয়েছেন।  

আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, দণ্ডপাপ্তদের একইসেঙ্গে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে আদালত।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, কুষ্টিয়া জেলা শহরের আড়ুয়াপাড়া এলাকার শহীদ লিয়াকত সড়কের খলিলুর রহমান, মীর সাইমুম ওরফে জিতু, জুয়েল রানা এবং মো. মিতুল। মামলার অন্য ৫ আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।  

মামলার বিবরণ মোতাবেক, ২০১০ সালের ২২ অক্টোবর বিকালে কুষ্টিয়া শহরের কালিশংকরপুরে বালুর মাঠ কালভার্টের কাছে আরসিসি ড্রেনের মধ্যে ব্যবসায়ী রেজাউলের গলাকাটা লাশ পাওয়া যায়। মরদেহের পেট, মুখ সহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখমের চিহ্ন ছিল। লাশ উদ্ধারের তিন থেকে চারদিন আগে আসামি জুয়েল রেজাউলের নিকট একটি মোবাইল রেখে ৩০০ টাকা নেয়। টাকা ফেরত না দিয়ে মোবাইল ফেরত নেয়ার জন্য রেজাউলের কাছে যায় জুয়েল।  

আরও পড়ুন:

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ ও তার ভিডিও ধারণ!

পরকীয়া সন্দেহে স্ত্রী ও সন্তানকে গলা কেটে হত্যা, স্বামী আটক

পরে ২১ অক্টোবর রাতে আসামি জুয়েল ও জিতু রেজাউলকে ডেকে নিয়ে যায়। মোবাইল ফেরত নেয়াকে কেন্দ্র করে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে আসামিরা রেজাউলকে হত্যা করে ড্রেনের ভিতর ফেলে দেয় রেজাউলের লাশ। নিহত রেজাউল ইসলাম (৩০) কুষ্টিয়া শহরের আড়ুয়াপাড়া এলাকার বাহাদুর আলী বিশ্বাস দ্বিতীয় লেনের বাসিন্দা।

২২ অক্টোবর নিহত রেজাউলের বড় ভাই রবিউল ইসলাম আসামিদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন।  

আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, ১২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালত রায় দেন। পরে দণ্ডপ্রাপ্তদের পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
news24bd.tv/ কামরুল