চট্টগ্রাম হানাদার মুক্ত দিবস আজ
চট্টগ্রাম হানাদার মুক্ত দিবস আজ

প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রাম হানাদার মুক্ত দিবস আজ

নয়ন বড়ুয়া জয়, চট্টগ্রাম

১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বরেও চট্টগ্রামে চলে যুদ্ধ। ১৭ ডিসেম্বর হানাদার মুক্ত হয় চট্টগ্রাম। সেদিন সকালেই চট্টগ্রামের বাতাসে উড়ে লাল সবুজের পতাকা। নামিয়ে দেয়া হয় পাকিস্তানি পতাকা।

জয় বাংলা স্লোগানে বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে শহরে নেমে পড়ে জনতা।

৭১’র ১৬ ডিসেম্বর ঢাকায় যখন পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পন করছিলো,তখনও হানাদারমুক্ত হয়নি চট্টগ্রাম। তখনও চলছিলো যুদ্ধ। ১৫ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের কুমিরায় পাকিস্তানিদের অস্থায়ী ডিফেন্স ভেঙে যৌথ বাহিনী ভাটিয়ারিতে পৌঁছে যায়। সেখান থেকে ফৌজদারহাট পর্যন্ত পাকিস্তানি সেনাবাহিনী প্রবল প্রতিরক্ষা অবস্থান তৈরি করেছিল।

এখানে ১৬ ডিসেম্বর প্রায় সন্ধ্যা পর্যন্ত যুদ্ধ হয়। এক পর্যায়ে পিছু হটতে থাকে পাকিস্তানি বাহিনী। পালানোর সময় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ভাটিয়ারি অংশে ধ্বংস করে দিয়ে যায় একটি সেতু। যে কারণে চট্টগ্রামের পথে আগুয়ান মুক্তিযোদ্ধা-স্বেচ্ছাসেবক ও ভারতীয় বাহিনীর অগ্রযাত্রা বিলম্বিত হয়।  

১৬ ডিসেম্বর সারা রাত সেতুর পাশে খালের মধ্যে একটি বিকল্প সড়ক তৈরি করা হয়। এরপর মুক্তিবাহিনী  বিনাবাধায় দ্রুত চট্টগ্রাম শহরে প্রবেশ করে । ১৭ ডিসেম্বর সকাল সোয়া ৯টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে পাকিস্তানি পতাকা নামিয়ে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেই জানান দেয়া হয় চট্টগ্রাম হানাদার মুক্ত।


আরও পড়ুন:

এক দশকে এই প্রথম মন্ত্রী পর্যায়ের পাকিস্তান সফর

জাপানের ওসাকা শহরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ২৭ জনের মৃত্যু
হাসপাতালে  মাহাথির মোহাম্মদ


সেদিনও ছিলো শীতের সকাল। শহরের নানা প্রান্ত থেকে হাজারো মানুষ বাঁধভাঙা স্রোতের মতো ছুটে আসছিলেন সার্কিট হাউসের দিকে। তাদের কণ্ঠে ছিলো জয় বাংলা। ৭১’র ২৫শে মার্চ রাতে চট্টগ্রাম থেকে শুরু হয় মুক্তিযুদ্ধের সূচনা। চট্টগ্রাম সেই যুদ্ধের সমাপ্তি দেখে ১৭ ডিসেম্বর।

news24bd.tv/ নাজিম