সুনামগঞ্জে দা দিয়ে জবাই করে শিশুকে হত্যা
সুনামগঞ্জে দা দিয়ে জবাই করে শিশুকে হত্যা

প্রতীকী ছবি

সুনামগঞ্জে দা দিয়ে জবাই করে শিশুকে হত্যা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে বোনের বাড়িতে বেড়াতে এসে দা দিয়ে কুপিয়ে ভগ্নিপতির ভাগিনাকে খুন করার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২০ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূর্বলক্ষীপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে।  খুন হওয়া শিশুর রিহান (৬) পূর্ব লক্ষীপুর গ্রামে হানিফ উদ্দিনের ছেলে।  

জামালগঞ্জ থানার ওসি মীর মোহাম্মদ আব্দুন নাসের খুনের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পার্শ্ববর্তী তাহিরপুর উপজেলার ভাটি তাহিরপুর গ্রামে তৌহিদ মিয়া (২৮) জামালগঞ্জ সদর  ইউনিয়নের পূর্ব লক্ষীপুর গ্রামে বোনের বাড়িতে বেড়াতে আসে। আজ সোমবার সকাল আকস্মিকভাবে ভগ্নিপতি হাবিব মিয়ার বোনের ছেলে ৬ বছরের শিশু রিহানকে দা দিয়ে কুপিয়ে জবাই করে হত্যা করে। এই ঘটনায় ঘাতক তৌহিদকে আটক করেছে নিহতের পরিবার ও স্থানীয়রা।

স্থানীয়দের ধারণা করা হচ্ছে- খুনি তৌহিদ একজন মানসিক ভারসাম্যহীন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ইমামুল বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে লোকটা মানসিক ভারসাম্যহীন। সে গত বৃহস্পতিবার পার্শ্ববর্তী উপজেলা থেকে বোনজামাইর বাড়িতে বেড়াতে আসেন। সে স্থানীয় বাজার থেকে একটি দা কিনে আনে। আর এই দা দিয়েই সে তার ভগ্নিপতির ভাগ্নাকে খুন করে।

আরও পড়ুন:

যে কারণে বিয়ের আসরেই বরকে গণধোলাই!

জুতা সেলাই করছে বন্ধু, পাশে বসে গল্প করছেন মাশরাফি

খুনের কারণ হিসেবে তিনি জানান, হত্যা করার পর আটক করা হলে তৌহিদ জানিয়েছে প্রায়ই স্বপ্নে দেখে তাকে কে বা কারা দা দিয়ে তাড়া করে বেড়ায়। তাই আক্রমন প্রতিহত করতে কিনে আনা দা'টি  নিজের বালিশের নিচে রেখে ঘুমাতে যায়। সোমবার সকালেও তেমনটা হলে ঘুম থেকে জেগে তার সামনে শিশুটিকে আসতে দেখে দা দিয়ে অতর্কিত হামলা করে। ঘটনাস্থলেই শিশুটি মারা যায়।

জামালগঞ্জ থানার ওসি মীর মোহাম্মদ আব্দুন নাসের বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতা খুনিকে আটক করা হয়েছে। নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃতের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv/ কামরুল 

;