খালেদা জিয়া এ দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা : ফখরুল 
খালেদা জিয়া এ দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা : ফখরুল 

খালেদা জিয়া এ দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা : ফখরুল 

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে এ দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,১৯৭১ সালে খালেদা জিয়া তার দুই শিশু তারেক রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর হাত ধরে তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। পাকিস্তান সেনাবাহিনী দ্বারা গ্রেফতার হয়ে তিনি ক্যান্টনমেন্টের কারাগারে বন্দি ছিলেন ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত। আজকে আপনারা তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটক করে রেখেছেন। এখন তিনি জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে লড়াই করছেন, মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

সোমবার (২০ ডিসেম্বর) বিকেলে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। মহানগর নাট্যমঞ্চে বিএনপির উদ্যোগে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়।

আওয়ামী লীগ স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিতে পরিণত হয়েছে জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন,বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে অন্যায় ও বেআইনিভাবে মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটক করে রাখা হয়েছে। এর অর্থ হচ্ছে আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার বিরোধী শক্তিতে পরিণত হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে দেখুন এই ৫০ বছরে সরকার দাবি করে যে, বাংলাদেশে উন্নয়নের নাকি বন্যা বইয়ে দিয়েছে। এই ৫০ বছরে গরীব আরও গরীব হয়েছেন। এখানে কিছু সংখ্যক আওয়ামী লীগের সহায়তাপুষ্ট, মদদপুষ্ট কিছু বড়লোক আরও ধনী হয়েছেন।

আরও পড়ুন


চুল পড়া কমবে যেসব তেল ব্যবহারে  

বিএনপির মহাসচিব বলেন, আজকে আমাদের দেশের কৃষকেরা তারা তাদের পণ্যের দাম পাচ্ছেন না, শ্রমিকেরা তাদের শ্রমের ন্যায্য পাওনা মজুরি পাচ্ছেন না। আমাদের সমস্ত রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে, শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে ফেলেছে, আমাদের অর্থনীতিকে সত্যিকার অর্থে পরনির্ভরশীল অর্থনীতিতে পরিণত করেছে।  

বিএনপি প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি ও সহ-প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম আলিমের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, আবুল খায়ের ভুঁইয়া প্রমুখ।

news24bd.tv/আলী

;