সর্বস্তরের শ্রদ্ধায় সিক্ত বেগম মুশতারী শফী
সর্বস্তরের শ্রদ্ধায় সিক্ত বেগম মুশতারী শফী

সর্বস্তরের শ্রদ্ধায় সিক্ত বেগম মুশতারী শফী

শাহ আলী জয়

শেষ যাত্রায় সর্বস্তরের শ্রদ্ধায় সিক্ত হলেন একাত্তরের স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা, নারীনেত্রী ও সাহিত্যিক এবং উদীচী চট্টগ্রামের সভাপতি শহীদ জায়া বেগম মুশতারী শফী।

মঙ্গলবার সকালে তাঁর মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে।

গুণগ্রাহীরা বলছেন, দেশে প্রগতিশীল চেতনার বাতিঘর হিসেবে পরিচিত ছিলেন মুশতারী শফি। সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সব সময় সোচ্চার এই মানুষটির চলে যাওয়া দেশের সংস্কৃতি ও নারী জাগরণের ক্ষেত্রে অপূরণীয় ক্ষতি।

উত্তাপ জলতে লাগলো নির্মম,
দম বন্ধ হয়ে এলো বুকের; আর,
আগুনের আভা আলোকিত করে তুলল
নক্ষত্রহীন রাত্রির নিস্তব্ধ অন্ধকার।

স্বাধীনতা আমার রক্তঝরা দিনের এই লাইন গুলো আজ বড্ড একা। কারণ তার রচয়িতা মুশতারী শফি শেষ যাত্রায় আসলেন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। এবার এলেন সাদা কাফনে মোড়ানো কফিনবন্দী হয়ে।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, উদীচী শিল্পগোষ্ঠীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী ও স্বজনদের অপেক্ষা শেষ বিদায়ের জানানোর।  গুণী এই মানুষটিকে হারানোর শোকে সবার অশ্রুশিক্ত চোখ।

দেশের নারী জাগরণ, শিল্প-সংস্কৃতি কিংবা মুক্তিযুদ্ধ। যে কোনো দিক থেকেই মুশতারী শফিকে হারানো এক অপূরনীয় ক্ষতি, বলছেন গুণগ্রাহীরা।

অচিন ঠিকানায় পাড়ি জমালেও নিজের সৃষ্টি আর চেতনায় মুশতারী শফি বেঁচে থাকবেন প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে। প্রগতিশীল চেতনার এই বাতিঘরের প্রয়াণে অতল শ্রদ্ধা।

news24bd.tv/ তৌহিদ