ফেলনা আর টোকানো কাগজ দিয়ে নতুন বোর্ড তৈরি
ফেলনা আর টোকানো কাগজ দিয়ে নতুন বোর্ড তৈরি

কাগজ থেকে তৈরি হচ্ছে নতুন বোর্ড

ফেলনা আর টোকানো কাগজ দিয়ে নতুন বোর্ড তৈরি

আব্দুস সালাম বাবু

ফেলনা কাগজ আর ফেলনা নয়, ফেলে দেয়া পরিত্যক্ত আর টোকানো কাগজ থেকে তৈরি হচ্ছে নতুন বোর্ড কাগজ। বই, খাতা কাভার, বাইন্ডিং, মিষ্টিসহ বিভিন্ন ধরনের খাবারের প্যাকেট, জুতা, স্যান্ডেলের বক্স, বিভিন্ন পণ্যের মোড়ক দিয়ে তৈরি হচ্ছে এই বোর্ড।

 চাহিদা মিটিয়ে এসব বোর্ড কাগজ  সরবরাহ করা হচ্ছে বিভিন্ন জেলায়। এ খাতে উদ্যোক্তা সৃষ্টির পাশাপাশি কর্মসংস্থান হয়েছে নারী পুরুষদের।

 

ঢাকার একটি কারখানায় শ্রমিক ছিলেন- বগুড়ার হাজী আব্দুল আউয়াল। সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ১৯৮৩ সালে শ্রমিক থেকে উদ্যোক্তা হয়ে শহরের কারবালা মোড়ে নতুন বোর্ড তৈরির মেশিন স্থাপন করেন। এখন তিনি ৩টি কারখানার মালিক, শতাধিক শ্রমিক তার কারখানায় কাজ করছেন।

আরও পড়ুন: ব্রুনাইয়ে ময়লা আনতে গিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, বাংলাদেশি যুবকের শাস্তি

তার সাফল্য দেখে অনেকেই বোর্ড তৈরি শুরু করেছেন।

সবমিলিয়ে বগুড়ায় ১ ডজনেরও বেশি কারখানা গড়ে উঠেছে। পুরাতন খবরের কাগজ, প্রেসপট্টির ছাট কাগজ, বাসাবাড়ি থেকে সংগ্রহীত পুরাতন বই, কাগজ ও ছিন্নমূল মানুষদের টুকানো কাগজ ক্রয় করেই তৈরি হচ্ছে বোর্ড কাগজ।  

ফেলে দেয়া কাগজ থেকে তৈরি বোর্ড জেলার চাহিদা মিটিয়ে যাচ্ছে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায়

উদ্যোক্তাদের বিভিন্নভাবে সহায়তা প্রদান করছে বিসিক, প্রশিক্ষন ও আর্থিক সুবিধা দিয়ে তাদের এগিয়ে নিতে বিসিক কাজ করছে বলে জানান এই কর্মকর্তা

বগুড়ায় গড়ে উঠা বোর্ড কাগজ তৈরির কারখানায় কর্মসংস্থান হয়েছে নারী পুরুষদের, এতে স্বচ্ছলতা এসেছে তাদের পরিবারে। লাভজনক হওয়ায় অনেকেই আগ্রহী হচ্ছে এ কারখানা স্থাপনে।

news24bd.tv/ কামরুল