সুন্দরবনে আরেক কাণ্ড ঘটাল অভিযান-৫ লঞ্চ
সুন্দরবনে আরেক কাণ্ড ঘটাল অভিযান-৫ লঞ্চ

সুন্দরবনে আরেক কাণ্ড ঘটাল অভিযান-৫ লঞ্চ

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

ঝালকাঠির ক্ষত শুকানোর আগেই সুন্দরবনে আরেক কান্ড ঘটালো এমভি অভিযান-৫ লঞ্চ। ঝালকাঠির সুগন্ধ্যা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের শতাধিক হতাহতের মধ্যে এখনো নিখোঁজ রয়েছে ৫১ জন। এই অবস্থার মধ্যে একই মালিকের এমভি অভিযান-৫ লঞ্চের বিরুদ্ধে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে সুন্দরবনে পর্যটক বহনের অভিযোগ উঠেছে। লঞ্চটি ৭৫ জন পর্যটকের পাস পারমিট (অনুমতিপত্র) নিয়ে সর্বমোট ১৪০ জন পর্যটক নিয়ে ঢুকে পড়ে সুন্দরবনে।

রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে সুন্দরবনের ঢোকায় শরনখোলা রেঞ্জ অফিসের সামনে থেকে লঞ্চটি আটকে দিয়েছে বনবিভাগ।

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সুন্দরবনের শরনখোলা রেঞ্জের সহকারী বনসংরক্ষক (এসিএফ) মো. শামসুল আরেফিন জানান, সুন্দরবন ভ্রমণের জন্য অন্তত এক সপ্তাহে আগে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিয়ে বন বিভাগ থেকে অনুমতিপত্র নিতে হয়। সুন্দরবন ভ্রমণ নীতিমালা অনুযায়ী একটি লঞ্চে ৭৫ জনের বেশি পর্যটক বহনের অনুমতি নেই। সুন্দরবনের অভয়ারণ্যে পর্যটকদের প্রবেশের জন্য জনপ্রতি ১৫০ টাকা রাজস্ব ধার্য করা আছে। আর অভয়ারণ্যের বাইরে হলে ৭০ টাকা। কিন্তু ঢাকা থেকে পর্যটকবাহী বিলাসবহুল এমভি অভিযান-৫ নামের এই লঞ্চটি ৭৫ জনের স্থলে ১৪০ জন পর্যটক বহন করে রাজস্ব ফাঁকি দিতে চেয়েছিল। প্রতিটি লঞ্চটিতে পর্যটকদের জন্য ট্যুরস গাইড বাধ্যতামূলক হলেও এমভি অভিযান-৫ লঞ্চটি সে নির্দেশনাও মানেনি। তারা নির্দেশনা না মেনে সুন্দরবনে ঢোকার চেষ্টা করলে শনিবার সন্ধ্যায় শরনখোলা রেঞ্জ অফিসের সামনে থেকে লঞ্চটি আটকে দেওয়া হয়।

অতিরিক্ত পর্যটকবাহী এই লঞ্চটিকে সুন্দরবনে ঢুকতে না দিয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এই বনকর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:

শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের কম্বল পেল মানিকগঞ্জের শীতার্তরা

নারিন -ডুপ্লেসি- মঈন কুমিল্লায়, গেইল বরিশালে

news24bd.tv/  তৌহিদ

;