সরকারি চাকরির নিয়োগের আগে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
সরকারি চাকরির নিয়োগের আগে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সংগৃহীত ছবি

সরকারি চাকরির নিয়োগের আগে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

সরকারি চাকরিতে নিয়োগের আগে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক করেছে সরকার। পর্যায়ক্রমে শিক্ষার্থীদেরও ডোপ টেস্টের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে জাতীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ উপদেষ্টা কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, সরকারি যেকোনো চাকরির জন্য ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী অনুশাসন দিয়ে আমাদের জানিয়ে দিয়েছেন, আমরা সেই ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সবাইকে জানিয়ে দিয়েছি। কাজেই এখন থেকে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও চাচ্ছি, যাতে নবপ্রজন্ম বিপথগামী না হয়, ভুল পথে না যায়, সে জন্য ধীরে ধীরে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

তিনি জানান, নিরাপত্তা বাহিনীতে যারা চাকরি করছেন এবং মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করছেন, তাদের মধ্যে যাদের মাদকাসক্ত বা মাদকের সঙ্গে জড়িত বলে মনে হচ্ছে এবং ডোপ টেস্টে যারা শনাক্ত হয়েছেন, তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হচ্ছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীন সব নিয়োগে এরই মধ্যে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:

রাজধানীতে বেড়েছে চুরি-ছিনতাই

চীনের সঙ্গে সামরিক হটলাইন স্থাপনে সম্মতি জানিয়েছে জাপান

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশে মাদক তৈরি হয় না। ভারত কিংবা মিয়ানমার থেকে আসছে। মাদকের স্বর্গরাজ্য হলো মিয়ানমার। টেকনাফের যতই ওপর যাবেন, বান্দরবানের দিকে যতই যাবেন দুর্গম এলাকা। বর্ডার এলাকায় যেতে দু-তিন দিন লাগবে। মিয়ানমার এই সুবিধা নিয়ে সড়ক পথে ও জঙ্গল দিয়ে মাদক পাচার করে। আমরা বর্ডার রুট করছি। আমরা মনে করি দুই বছরের মধ্যে বর্ডার রুট করা শেষ হবে। এটা হয়ে গেলে বর্ডার গার্ডরা সীমান্তে গিয়ে পাহারা দিতে পারবেন। তখন মাদক অনেকটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারব।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত